উপকূলীয় এলাকায় ভারতের উপস্থিতি বাংলাদেশের জন্য হুমকি: জোনায়েদ সাকি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৩:০৮, অক্টোবর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:০৯, অক্টোবর ১১, ২০১৯

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেছেন, ‘যৌথ তদারকির নামে উপকূলীয় এলাকায় ভারতের উপস্থিতিকে বৈধতা দেওয়ার ঘটনা বাংলাদেশের নিরাপত্তার জন্য বিশাল হুমকি।’

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণসংহতি আন্দোলনের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি একথা বলেন।

ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত ‘দেশ বিরোধী’ চুক্তি বাতিল ও আবরারের হত্যাকারীদের রাজনীতির বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান তিনি।

জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক ভারত সফর বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের সত্যিকার চিত্রটি প্রতিফলিত করে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- ফেনী নদীর পানি ভারতের সাবরুম শহরের মানুষের তৃষ্ণা মেটাবার জন্য দিয়েছেন, আমরা প্রশ্ন করতে চাই- বাংলাদেশের গোটা উত্তরাঞ্চল যে তিস্তা-পদ্মার পানির অভাবে শুকিয়ে মৃত্যুবরণ করছে, আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তিনি কী ভূমিকা রেখেছেন? ৫৪টি যৌথ অভিন্ন নদীতে তারা (ভারত) বাঁধ দিয়ে পানি প্রত্যাহার করছে কিংবা করার পরিকল্পনা করছে, আর গদিতে টিকে থাকার স্বার্থে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সেই প্রসঙ্গগুলোতে নীরব থাকছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আশা করেছিলাম প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলে ভারত সফরের দেনা-পাওনা নিয়ে আলাপ হবে, কিন্তু আমাদের এখন প্রতিবাদ করতে হচ্ছে বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ ছাত্রলীগের হাত খুন হওয়ার ঘটনা নিয়ে।’  

জোনায়েদ সাকির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নির্বাহী সমন্বয়কারী (ভারপ্রাপ্ত) আবুল হাসান রুবেল, রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য ফিরোজ আহমেদ; সমাবেশ পরিচালনা করেন সৈকত মল্লিক। সমাবেশে বাচ্চু ভূঁইয়া, মনির উদ্দীন পাপ্পু, জুলহাসনাইন বাবুসহ অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

/এসও/এএইচ/

লাইভ

টপ