‘খালেদা জিয়া কি বলতে পারবেন, কয়টা শূন্য দিয়ে লাখ লিখতে হয়?’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।
প্রকাশিত : ২১:০৩, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৫ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:০৬, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৫

খালেদা জিয়া

‘বেগম খালেদা জিয়া, আপনি কি বলতে পারবেন, কয়টা শূন্য দিয়ে লাখ লিখতে হয়? আপনাকে পাকিস্তান বলছে এই কথা বলতে হবে, আপনি তাই বলেছেন।’

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উদ্দেশে কথাটা বলেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

অন্যদিকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে খালেদা জিয়াকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই পড়ার পরামর্শ দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

বৃহষ্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তনে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাকের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী ও সুরঞ্জিত। আব্দুর রাজ্জাক স্মৃতি সংসদ এই স্মরণসভার আয়োজন করে।

খালেদা জিয়াকে পাকিস্তানের অনুচর আখ্যা দিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া শহীদদের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এটা পাকিস্তানিদেরও প্রশ্ন। আসলে কোনও কিছু সঠিকভাবে জানতে হলে লেখাপড়া করতে হয়।

মন্ত্রী বলেন, সারা বিশ্ব বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে স্বীকৃতি দিয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দিয়েছে। অথচ বিএনপি নেত্রী এ দেশের শহীদদের নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে তিনি পাকিস্তানের অনুচর। পাকিস্তান যে ভাষায় কথা বলে, বেগম জিয়াও সে ভাষায় কথা বললেন। পাকিস্তান প্রথমে বলল, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সঠিক হচ্ছে না, কয়েক দিন পর খালেদা জিয়াও বললেন এই বিচার সঠিক হচ্ছে না। এ থেকেই বোঝা যায় তিনি পাকিস্তানি।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বললেন, যখন তরুণ প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দিকে ঝুঁকে পড়েছে তখন বেগম জিয়া শহীদদের সংখ্যা নিয়ে মিথ্যাচার করছেন।

আব্দুর রাজ্জাকের স্মৃতি চারণ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, তিনি একজন আদর্শবান ও পরিশ্রমী নেতা ছিলেন। সবার কাছে জনপ্রিয় ছিলেন। মৃত্যুর দিন পর্যন্ত তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করে গেছেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, বেগম খালেদা জিয়া ও জঙ্গীবাদি চক্র আজ আবার নতুন করে দেশের বিরুদ্ধে ষড়ডন্ত্র শুরু করছে। এই শক্তিকে আমাদের পরাজিত করতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোজাফ্ফর হোসেন পল্টু, ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ প্রমুখ।

 

/পিএইচসি/এফএ/

লাইভ

টপ