behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

সরকার জিয়াকে খলনায়ক বানাতে চায়: মির্জা ফখরুল

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৯:৫৮, জানুয়ারি ১৮, ২০১৬

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসারাদেশ আজ কারাগারে পরিনত হয়েছে অভিযোগ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই কারাগার ভাঙতেই হবে। ‘গণতন্ত্র নির্বাসিত, গণতন্ত্র হরণ করা হয়েছে। এমন কোনও নেতাকর্মী নেই যে জেলে যেতে হয়নি। মানুষ কারাগারে যাওয়ার জন্য যুদ্ধ করেনি। পিছু হটার সময় নেই। মানুষের জন্য সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। গণতন্ত্র উদ্ধার করতেই হবে।’
সোমবার বিকেলে রাজধানীর রমনায় ইন্সটিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ার্স-বাংলাদেশ মিলনায়তনে বিএনপি’র উদ্যোগে দলটির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৮০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আলোচনা সভার প্রধান অতিথি হিসেবে নাম থাকলেও আসেননি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। দর্শক সারীতে তার জন্য নির্ধারিত আসনটি শূন্য ছিল।
আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, জিয়াউর রহমান আমাদের নতুন করে বিশ্ব দরবারে পরিচিত করেছিলেন। তিনি ছিলেন মহানায়ক। এখন সরকার হীন চেষ্টা করে তাকে খলনায়ক বানাতে চায়। এখানেই ক্ষান্ত নয়, সরকার জিয়াউর রহমানের সমাধি তুলে ফেলতে চায়।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের এমন কোনও জায়গা নেই যেখানে জিয়াউর রহমানের নাম নেই। ১৬ কোটি মানুষের যে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে তা জিয়াউর রহমানের আমল থেকেই শুরু হয়েছিল। তিনি সারা দেশে খাল কেটে কৃষি বিপ্লব করেছিলেন।

দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, একটি পত্রিকায় দেখলাম আমি বিএনপিকে ভাঙার জন্য মুক্তি পেয়েছি। ভাঙার কাজ নাকি শেষ করে ফেলেছি। জনগণকে ও দলের নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করার জন্য সরকারের ইন্ধনে এ রকম নিউজ করা হচ্ছে। 

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের মানুষ গণতন্ত্রকে ভালোবাসে। গণতন্ত্র এদেশের মানুষ আদায় করবে। আমরা গণতন্ত্র হারিয়েছি। এ হারিয়ে ফেলা গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে। 

মির্জা ফখরুলের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক এমাজ উদ্দিন আহমেদ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক মোস্তাহিদুর রহমান, সাংবাদিক শফিক রেহমান, অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুবুল্লাহ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এম আমিনুল ইসলাম। এছাড়া দর্শক সারিতে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, ডা. জেড এম জাহিদ হোসেন, অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ।

 

/সিএ/এফএস/ 

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ