behind the news
IPDC  ad on bangla Tribune
Vision  ad on bangla Tribune

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আমার সিদ্ধান্ত বদলাবো না: এরশাদ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৮:০৫, জানুয়ারি ১৯, ২০১৬

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি তাতে আমি অটল। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এই সিদ্ধান্তে অটল থাকবো। বদলাবো না।’

জিএম কাদেরকে জাতীয় পার্টির (জাপা) কো-চেয়ারম্যান ও রুহুল আমিন হাওলাদারকে মহাসচিব পদে নিয়োগ করাসহ গত দুইদিনে হুসেনই মুহম্মদ এরশাদের নেওয়া সব সিদ্ধান্ত দলের পার্লামেন্টারি পার্টি প্রত্যাখ্যান করেছে- এরকম দাবির প্রতিক্রিয়ায় তিনি এই কথা বলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে জাতীয় সংসদ ভবনে নিজের কার্যালয়ে তিনি এই কথা বলেন।হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ
এর আগে জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদের সভাপতিত্বে এক বৈঠকের পর দলের নেতা ও সংসদে বিরোধী দলের চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী জানান, জিএম কদেরকে কো-চেয়ারম্যান ও রুহুল আমিন হাওলাদারকে মহাসচিব পদে নিয়োগ করাসহ এরশাদের সাম্প্রতিক সব সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করেছে দলের পার্লামেন্টারি পার্টি। মঙ্গলবার বিকেল পৌনে ৪টায় জাতীয় সংসদে বিরোধী দলীয় নেত্রীর ব্যক্তিগত কার্যালয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে এরশাদের সামনে পরে তিনি ‘প্রত্যাখ্যানের’ কথা বলেননি বলে দাবি করেন।
এরশাদের বক্তব্যের আগে এবং রওশনের সঙ্গে নেতাদের বৈঠকের পর তাজুল জানান, ‘গত কয়েকদিনে আমাদের দলে যেসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে দলের পার্লামেন্টারি পার্টি তা প্রত্যাখ্যান করেছে। অচিরেই পার্লামেন্টারি পার্টি ও প্রেসিডিয়ামের যৌথ সভা ডেকে এসব বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’
দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এ ব্যাপারে নীতিগতভাবে একমত রয়েছেন বলেও দাবি করেন তাজুল। তবে বৈঠক চলাকালেই রুহুল আমিন হাওলাদারকে সঙ্গে নিয়ে এরশাদ বৈঠক ছেড়ে বের হয়ে আসেন। এরপর তারা জাতীয় সংসদে এরশাদের কার্যালয়ে অবস্থান করেন।
তাজুল বলেন, ‘পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ বলেছেন আগামীতে তিনি রওশন এরশাদের সঙ্গে আলাপ করে এ সব সিদ্ধান্ত নেবেন।’ সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় রওশনকে দলের চেয়ারম্যান হিসেবে উল্লেখ করেন তাজুল।

উল্লেখ্য মঙ্গলবার দুপুরে বনানীতে জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে জরুরি এক সংবাদ সম্মেলনে এরশাদ ঘোষণা দেন, দলের মহাসচিব পদ থেকে জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুকে অব্যাহতি দিয়েছেন তিনি। রওশন এরশাদকে জোর করে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ঘোষণা করে বক্তব্য প্রদান, দুই বছরে একটিও বর্ধিত ও প্রেসিডিয়ামের সভা করতে না পারা এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। মহাসচিব পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে সাবেক মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদারকে।

 

/ইএইচএস/এফএস/এফএ/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ