বিএনপি ও জিয়া পরিবারকে টার্গেট করে ধ্বংস করা হচ্ছে: নজরুল

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৮:২৮, জানুয়ারি ২৮, ২০১৬

জিয়া পরিবার ও বিএনপিকে টার্গেট করে ধ্বংস করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের নাম ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে। যে সব বই-পুস্তকে জিয়ার নাম আছে সেসব বই লাইব্রেরী থেকে বের করে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। বিএনপির নেতাকর্মীদের নানা ভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে। খুন, গুম ও কারাগারে আবদ্ধ করা হচ্ছে।বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান
বৃহস্পতিবার দুপরে রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির মিলনায়তনে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) আয়োজিত চিকিৎসক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। ‘শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮০তম জন্মবার্ষিকী; গণতন্ত্র পুন:রুদ্ধার- সাংবিধানিক অধিকার সুরক্ষা ও জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে’ এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশ পরিচালনা করেন ড্যাবের যুগ্ম মহাসচিব রফিকুল ইসলাম বাচ্চু।
নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘তারা এখন দুঃস্বপ্ন দেখছে জিয়াউর রহমানের মাজার সরাবে। বুঝি আমরা আপনাদের নেতার মাজার অনেক দূরে। ওটাও এখানে নিয়ে আসেন। এটা সড়ানোর দরকার কী। আবার নতুন করে একটা জানাজার আয়োজন করলেই হয়। যাতে জিয়াউর রহমানের জানাজার চেয়ে বেশি লোক হয়। এটা হতেই পারে। আপনারা অরগানাইজ করতে পারেন।’
তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগের যে নেতারা জিয়াউর রহমানকে পাকিস্তানের এজেন্ট বলেন, তারা একবারও ভাবেন না জিয়াউর রহমান যদি পাকিস্তানের এজেন্ট হয় তাহলে তাকে যিনি বীর উত্তম খেতাব দিয়েছেন তিনি কি? পাকিস্তানের এজেন্টকে খেতাব দিলো- এ সব কথা যারা বলেন তারা নিজেদের নেতাকেই যে ছোট করে ফেলেন সে জ্ঞানও তাদের নেই। যিনি পুরস্কার নেন তার চেয়ে যিনি পুরুস্কার দেন তিনি অনেক বড়।’
বিএনপির এই নেতা বলেন, মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে যাদের যুদ্ধে যাওয়ার সামর্থ ছিল তারা যুদ্ধে না গিয়ে এখন জিয়াউর রহমানের সমালোচনা করেন। তাদের লজ্জা হয় না। তাদের নেতাদের সর্ম্পকে কিছু বললে সারা দেশে ১২০টি মামলা হয়।

তিনি আরও বলেন, ‘খালেদা জিয়া আমাদের কাউন্সিল গুলোতে অন্যনেতাদের যখন শ্রদ্ধা জানান তখন শেখ মুজিবকেও শ্রদ্ধা জানায়। কোনও দিন তাকে কোনও মন্দ কথা বলেননি।’

আয়োজক সংগঠনের সহ সভাপতি অধ্যাপক ডা. রফিকুল কবির লাবুর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদিন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভিসি আ ফ ম ইউসূফ হায়দার, ড্যাবের মহাসচিব ডা. জেড এম জাহিদ হোসেন, সহ সভাপতি ডা. অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম, ডা. অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, ডা. আব্দুল কুদ্দুস, ডা.আব্দুস সালাম প্রমুখ।

/এসটিএস/এফএস/

লাইভ

টপ