বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হামলায় সরকারকে দুষছে বিএনপি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:৫৯, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০০, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৬

রুহুল কবীর রিজভীরাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় এবং গাড়িতে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগকারীরা নামধারী কিছু দুষ্কৃতকারী এবং এর পেছনে সরকারের মদদ রয়েছে বলে জানিয়েছে বিএনপি। সোমবার হামলার পর সন্ধ্যায় নয়া পল্টনে বিএনপি কার্যালয়ে তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।
জানা গেছে, সোমবার বিকেল ৪টার দিকে রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গাড়িতে ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগ করে দলটির অঙ্গ সংগঠন ছাত্রদলের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। এসময় বিএনপি কার্যালয়ের চতুর্থতলায় ছাত্রদল কার্যালয়েও আগুন ধরিয়ে দেন পদবঞ্চিত নেতারা। উত্তেজিত ছাত্রদল নেতাকর্মীরা এসময় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের প্রবেশ মুখে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মুরাল ভেঙে ফেলে। বিকেলে নয়া পল্টনে সদ্য ঘোষিত ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান না পাওয়া নেতাকর্মীরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন। এসময় কমিটিতে পদ পাওয়া নেতাকর্মীরাও সেখানে জড়ো হন। এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।
রুহুল কবির রিজভী বলেন, পুলিশ তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিলে দুষ্কৃতকারীরা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হামলা চালাতে পারতো না। ঘটনাস্থলের কাছেই পুলিশ ছিল। একটি রাজনৈতিক দলের কার্যালয়ে এভাবে ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ চালালেও তাদের ভূমিকা ছিল রহস্যজনক।
রুহুল কবির রিজভী আরও বলেন, সামনে বিএনপির কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। আর এই কাউন্সিলকে সামনে রেখে সরকারের মদদে ছাত্রদল নামধারী কিছু দুষ্কৃতকারী এ হামলা চালিয়েছে। কাউন্সিল যাতে সুষ্ঠুভাবে না করা যায় এবং তা বাধাগ্রস্ত করতে এ ধরনের হামলা চালানো হয়েছে। এর পেছনে সরকারের মদদ রয়েছে। এসময় ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন রুহুল কবির রিজভী।

/সিএ/এএইচ /

লাইভ

টপ