Vision  ad on bangla Tribune

আগেই নেতৃত্ব নির্বাচন, নেই প্রচারণাওবিএনপির কাউন্সিল নিয়ে মানুষের আগ্রহ কম

সালমান তারেক শাকিল০২:৫৩, মার্চ ১৯, ২০১৬

বিএনপির পতাকাবারোদিন আগে দলের চেয়ারপারসন হিসেবে খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে তারেক রহমান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ৬ষ্ঠ কাউন্সিলের প্রধান আকর্ষণ হারিয়েছে বিএনপি। পাশাপাশি রাজধানীতে প্রচারণা অনেক কম হওয়ায় কাউন্সিলের বিষয়টি দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যেও তেমন সাড়া ফেলেনি। এ কারণে শনিবার সকাল ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনে অনুষ্ঠিতব্য কাউন্সিলের প্রতি নাগরিকদের মনোযোগ নেই বললেই চলে। শুক্রবার দিনের বিভিন্ন সময় রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় চায়ের স্টলে,শিক্ষার্থী আড্ডায় বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে কথা বলে এই আগ্রহহীনতার বিষয়টি উঠে আসে। এদিকে বিএনপির কাউন্সিল নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও কোনও সাড়াশব্দ নেই। বিএনপির দলীয়, সমর্থিত কিছু পেজের বাইরে কাউন্সিল নিয়ে তেমন কোনও আলোচনা দেখা যায়নি। ইতোমধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারাও কাউন্সিলকে তামাশা বলে মন্তব্য করেছেন।
লেখক স্বকৃত নোমান বলেন,বিএনপির রাজনীতির প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থায় ভাটা পড়ে গেছে। কারণ, বিগত দিনগুলোতে দলটি রাজনীতিতে একের পর এক ভুলই করে গেছে শুধু।রাজনীতির জন্য যে বিচক্ষণতার প্রয়োজন, তা দেখাতে পারেনি দলটি। ফলে দেশের মধ্যবিত্ত শ্রেণী দলটিকে আর গোণার মধ্যে রাখছে না। আর জাতীয় কাউন্সিলে কী হবে, তা আগে থেকেই দেশের মানুষ জানে। মুখে যতই গণতন্ত্রের কথা বলা হোক না কেন,দলটির অভ্যন্তরেই তো গণতন্ত্র নেই।
তিনি আরও বলেন,খালেদা জিয়া তো আর চেয়ারপারসনের পদ ছাড়বেন না, এটা সবার জানা। তিনি ও তার পুত্র তারেক জিয়ার কথামতোই সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হবে,এটাও জানা কথা।বাকি পদগুলোও ঠিক একইভাবেই হবে।এ কারণে সাধারণ মানুষের মধ্যে কাউন্সিল নিয়ে তেমন কোনো উচ্ছ্বাস নেই।
শুক্রবার বিকালে হাতিরঝিলের মধুবাগ বিজ্রে কথা হয় ঢাকা কলেজের চার শিক্ষার্থীর সঙ্গে। ইংরেজি বিভাগের মাহফুজুর রহমান,পরিসংখ্যান বিভাগের আনিসুর রহমান বাবু, ব্যবস্থাপনা বিভাগের রেজাউল কবির খান ও দর্শনের রুবেল মোড়লের সঙ্গে।তাদের প্রত্যেকেরই মত, শনিবার বিএনপির কাউন্সিল নিয়ে তাদের আকর্ষণ নেই। দেশের একটি বড় দল হিসেবে বিএনপির কাউন্সিল নিয়ে সাধারণ মানুষের আগ্রহের জায়গাটিও নষ্ট হয়ে গেছে। যোগ করেন মাহফুজুর রহমান। তিনি বলেন, বিএনপি তো মুখে মুখে গণতন্ত্রের কথা বলে। কিন্তু তারা তাদের শীর্ষ দু‘টি পদে কোনও নির্বাচন করেনি।
প্রসঙ্গত, গত ৬ মার্চ বিনা-প্রতিদ্বন্দ্বিতায় খালেদা জিয়া চেয়ারপারসন,তারেক রহমান সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।নির্বাচন প্রক্রিয়ার সমন্বয় ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার ওই সময় জানিয়েছিলেন, প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় খালেদা-তারেক নির্বাচিত হয়েছেন।

লাইভ

টপ