behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

আগেই নেতৃত্ব নির্বাচন, নেই প্রচারণাওবিএনপির কাউন্সিল নিয়ে মানুষের আগ্রহ কম

সালমান তারেক শাকিল০২:৫৩, মার্চ ১৯, ২০১৬




অনেকে আশাবাদীও

বিএনপির কাউন্সিলের দাওয়াত পাননি মহাজোট শরিক বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের মহাসচিব এম এ আউয়াল এমপি। তিনি বলেন, দাওয়াত না পেলেও শুভ কামনা আছে। আমি মনে করি, বিএনপির কাউন্সিলকে সামনে রেখে বিগত দিনের নাশকতামূলক রাজনীতি পরিহার করে স্বচ্ছধারার রাজনীতিতে ফিরে আসবে। পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে, আদর্শের পক্ষে আসবে। জামায়াতকে ত্যাগ করবে। আমি মনে করি, তাদের মানসিকতার পরিবর্তন দরকার। কাউন্সিলের মাধ্যমে এই পরিবর্তন সাধিত হোক।
কবি ও আইটি স্পেশালিস্ট হাসানুর জামান।তিনি বলেন,নিরপেক্ষ মন নিয়ে যদি ভাবে কিংবা ভাবতে চায় তাহলে সবাই চাইবে একটি শক্তিশালী বিরোধীদল, যে দল সরকারের ভুল সিদ্ধান্তগুলোকে খুব গুরুত্বপূর্ণভাবে পর্যবেক্ষণ করবে এবং সঠিক পরামর্শ বা জনসমর্থন নিয়ে ফলপ্রসু আন্দোলনের সূচনা করবে। আমাদের দুর্ভাগ্য যে আমরা খাদহীন, আনুপাতিকভাবে সঠিক সরকার যেমন পাইনি,তেমনি পাইনি সঠিক কিংবা সরকার (সরকার মানে কোন রাজনৈতিক দল নয়) সহায়ক বিরোধীদল। সন্ত্রাসবিরোধী শ্লোগান এতদিনে বললে কি আর করা। তবুও যদি নিজেদের ঘোষণাপত্র নিজেরাই মেনে চলেন, তবেই দেশের গতি।একপক্ষীয় সরকার যেমন চাই না,তেমনি মুণ্ডুবিহীন বিরোধীদলও অপ্রত্যাশিত। ১৭ হোক আর ৩৫ হোক কাজের ফলাফলই প্রধান।
কবি নজরুল কলেজের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আকবর বলেন, আশা করছি কাউন্সিলের মাধমে বিএনপি আবার রাজনীতির মাঠে ফিরে আসবে। গণতান্ত্রিক আন্দোলন অব্যাহত রাখতে ভাল নেতৃত্ব বের করবে।

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ