behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

দ্বিতীয় ম্যাচেও মেয়েদের হার

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৬:৪৯, জানুয়ারি ১৪, ২০১৭

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচেও হারের বৃত্ত ভাঙতে পারেননি বাংলাদেশের মেয়েরা। জয়ের কাছে গিয়েও ১৭ রানে হারতে হয়েছে স্বাগতিকদের। শারমিন আক্তার ও রুমানা আহমেদের হাফসেঞ্চুরিও বাংলাদেশের হার ঠেকাতে যথেষ্ট হয়নি।

শেখ কামাল আন্তর্জতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ২২৪ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দলীয় ৩ রানে ওপেনার সানজিদা ইসলাম ফিরে গেলে ক্রিজে নামেন ফারজানা হক। দ্বিতীয় উইকেটে শারমিন ও ফারজানা মিলে প্রাথমিক বিপর্যয় কাটানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু সুন লুসের বলে খাকাকে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ৮ রানে বিদায় নেন ফারজানা।

তৃতীয় উইকেটে শারমিন ও অধিনায়ক রুমানা মিলে ১২৭ রানের বড় জুটি বাংলাদেশকে জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছিল। কিন্তু ৬৮ রান করে রুমানা ফিরে গেলে সম্ভাবনায় কিছুটা ভাটা পড়ে। রুমানা ৯৫ বলে ৫ চারে ৬৮ রানের ইনিংস খেলে মারিজান ক্যাপের বলে ক্লিন বোল্ড হন।

সঙ্গীর বিদায়ের কিছুক্ষণের মধ্যে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলা শারমিন আক্তার দুর্ভাগ্যজনকভাবে রান আউটের শিকার হন। তার বিদায়ে বাংলাদেশের হার প্রায় নিশ্চিত হয়ে যায়। শারমিন ৭৪ রানের ইনিংস খেলতে বাউন্ডারি মেরেছেন ১০টি।

তার বিদায়ের পর অন্য ব্যাটসম্যানরা চেষ্টা চালালে সেটা যথেষ্ঠ হয়নি। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের মেয়েরা নির্ধারিত ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২০৬ রান করতে সমর্থ হন। দলের অন্য ব্যাটসম্যানদের মধ্যে নিগার সুলতানা ১৪ ও জাহানার আলম ৮ রানে অপরাজিত থাকেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার বোলারদের মধ্যে সুন লুস ও মারিজান ক্যাপ সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট নিয়েছেন। এছাড়া আয়োবোঙ্গা খাকা ও অধিনায়ক ডেন ফন নাইকার্ক নিয়েছেন একটি উইকেট।

এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেন প্রোটিয়া অধিনায়ক ডেন ফন নাইকার্ক। শুরু থেকেই বাংলাদেশের বোলারদের উপর চাপ প্রয়োগ করেন দুই ওপেনার। দুই ওপেনার মিলে ১১৫ রানের জুটি গড়েন। দুইজনেই পান হাফসেঞ্চুরি। প্রথম ম্যাচে ৮৭ রানের ইনিংস খেলা লিজেল লি শনিবার দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেছেন। এদিন ৫৭ বলে ১৩ চারে ৭০ রানের ইনিংস খেলেছেন প্রোটিয়া এই ওপেনার। আগের ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন তিনি।

তাকে সঙ্গ দিয়েছেন আরেক ওপেনার আদ্রিয়ে স্টেইন। তিনি ৯৮ বলে ৮ চারে খেলেছেন ৬৬ রানের ইনিংস। আদ্রিয়ের এটা ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর।

এই দুই ওপেনারের ১১৫ রানের জুটি ভাঙার পরই বাংলাদেশের মেয়েরা ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেন। শেষ পর্যন্ত ৪৯ ওভারে ২২৩ রান তুলতেই অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। অন্য ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অধিনায়ক ডেন ফন ২৭, ইয়োলানি ফোরি ১৬ ও মারিজান ক্যাপ ১৫ রানের ইনিংস খেলেছেন।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল বোলার অফ স্পিনার খাদিজাতুল কুবরা। তার ক্যারিয়ারে সেরা বোলিংয়েই মূলত অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। ১০ ওভারে ৫৬ রান খরচায় তিনি চারটি উইকেট নিয়েছেন। এছাড়া পান্না ঘোষ, জাহানারা আলম, নাহিদা আক্তার ও লতা মণ্ডল প্রত্যেকে একটি করে উইকেট নিয়েছেন।

/আরআই/এফএইচএম/

ULAB
Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ