behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

ওয়েলিংটন টেস্টে ফের ভাবাচ্ছে বৃষ্টি

ফজলুল বারী, ওয়েলিংটন থেকে১৯:৪৮, জানুয়ারি ১৪, ২০১৭

ওয়েলিংটন টেস্টে ফের ভাবাচ্ছে বৃষ্টি ওয়েলিংটনে যখন রিপোর্ট লিখছি তখন রাত ১২টা। ঝড়ো বাতাসের সঙ্গে এখন বৃষ্টি হচ্ছে। এখানে এই শহরে থেমে থেমে সারাক্ষণই বাতাস বয়। শনিবার যখন এখানকার বেসিন রিজার্ভ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা চলছিল তখন কখনো ঘণ্টায় ৪৮ কি.মি. কখনো ৫১ কি.মি. গতিতে বাতাস বইছিল। সারাক্ষণ বাতাসের সো সো গর্জনের শব্দ চলছিল চারপাশে! খেলা শেষে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের পক্ষে কামরুল ইসলাম রাব্বি বলেছেন, বাতাসে আর ঠাণ্ডায় তারা জমে যাচ্ছিলেন। এমন পরিবেশে তারা আগে কখনো খেলেননি। সেই ওয়েলিংটন টেস্টের গুরুত্বপূর্ণ চতুর্থ দিন রবিবার। এই টেস্টে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড দু’দলই জিততে চায়। বাংলাদেশের সাহস বেড়েছে টেস্টের প্রথম দু’দিনের পারফরম্যান্সে। সে কারণে একটা জয়ের আশায় শনিবার সাব্বিরের হাফ সেঞ্চুরিটা হয়ে যাওয়ার পরই ইনিংস ঘোষণা করা হয়েছে। ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টিতে হারা বাংলাদেশ যে টেস্টে এত বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে তা নিশ্চয়ই নিউজিল্যান্ড দল ভাবতেই পারেনি! খালি সবাই কন্ডিশন কন্ডিশন বলে ভয় দেখিয়েছে। কিন্তু তামিম-মমিনুল-সাকিব-মুশফিক-সাব্বিররা দেখিয়েছে কোনও কন্ডিশনে কাবু হয়না টিম বাংলাদেশ!

জিততে হলে পুরো সময় ধরে খেলা হতে হবে। খেলতে হবে। কিন্তু বৃষ্টির মধ্যেতো জাম্বুরা দিয়ে হলেও বল খেলা যায়, কিন্তু ক্রিকেট খেলা যায় না। শনিবার আমরা যখন বেসিন রিজার্ভের মাঠ ছেড়ে আসি তখন স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে আটটা। উল্লেখ্য গ্রীষ্মে এখানে বেশ দেরি করে সূর্য ডোবে। বৃষ্টির ঝাপটায় তখনই পিচ এলাকাটি ঢেকে ফেলা হয়েছিল। কিন্তু পুরো মাঠতো আর ঢাকা যায় না। অথচ আবহাওয়ার পূর্বাভাসে শনিবার এখানে আকাশ মেঘলা থাকবে বলা ছিল, বাতাস বইবে বলা ছিল। কিন্তু বৃষ্টির কথা বলা ছিল না! এরজন্যে এই দেশগুলোকে বলা হয় থ্রি-ডব্লিউর দেশ। ওয়েদার, ওয়েলথ, ওয়াইন; এসবের এখানে কোনও ঠিক-ঠিকানা, মা-বাপ নেই!

এখন পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাস হচ্ছে এই বৃষ্টি থামতে পারে রবিবার দুপুর ১২ টায়। এরপর চলবে ঝড়ো বাতাস। মনে করুন রবিবার দুপুর ১২ টায় থামলো বৃষ্টি, কিন্তু মাঠ শুকাতে খেলার উপযোগী করতে কতক্ষণ লাগতে পারে? তাহলে কি খেলা হবে না রবিবারের প্রথম সেশনে? বাংলাদেশ তার প্রথম ইনিংসে অনেকগুলো রেকর্ড করেছে। কী সাহস নিউজিল্যান্ডে এসে নিউজিল্যান্ডের মতো পুরনো ক্রিকেট খেলুড়ে দেশের বিরুদ্ধে এত রেকর্ড করে! নিউজিল্যান্ড এখন তার প্রথম ইনিংসে ব্যাট করছে। রবিবারও তারা প্রথম ইনিংসের অবশিষ্ট খেলা শুরু করবে। এরপর বাকি থাকবে দুই দলের দুই ইনিংস। কিন্তু বৃষ্টি যদি সময় কর্তন করে তাহলে পুরো খেলা না হলে খেলার রেজাল্ট হবে কী করে? তাহলে কী ওয়েলিংটন টেস্ট একটি নিশ্চিত ম্যাড়ম্যাড়ে ড্র’র দিকে এগোচ্ছে? কিছুই এখন আবার ঘোষণা দিয়ে বলা যাবে না। কারণ কিতাবে লেখা আছে ক্রিকেট একটি গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা। 

এরমাঝে বাংলাদেশের একটি দুঃস্বপ্নের নাম হয়ে গেছেন মুশফিক। বাংলাদেশ দলের ক্যাপ্টেন ব্যাটিং জিনিয়াস। তিনি নিউজিল্যান্ড সফরের শুরুতে ক্রাইস্টচার্চের প্রথম ওয়ানডের ইনজুরিতে পড়ে যাওয়ায় ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছিটকে যাওয়ার মাশুল গুনেছে বাংলাদেশ। কারণ মুশফিক বাংলাদেশের মিডল অর্ডারকে নেতৃত্ব দেন। অতএব মুশফিক নেই বলে বাংলাদেশের জয়ও নেই! টেস্টে ফিরে এসে মুশফিক আবার তার ক্যারিশমা দেখিয়েছেন। কিন্তু দ্বিতীয় দিনের খেলায় আঙুলে চোট পেলেও কাউকে তা বুঝতে না দিয়ে খেলা চালিয়ে গেছেন! ক্রিকেটে দেশের জন্যে এতটা ডেডিকেশন কী সহজে দেখা-পাওয়া যায়?

টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলায় যে মুশফিক নেই তা জানতে বুঝতে টিম বাংলাদেশকে অনুসরণ করা বাংলাদেশের সাংবাদিকদেরও জানতে বুঝতে অনেক সময় লেগেছে। মুশফিকের উইকেট কিপিংয়ের দায়িত্ব পালন করছিলেন ইমরুল কায়েস। আর মুশফিক হাতের এক্সরে করিয়ে দলের খেলা দেখছিলেন প্যাভিলিয়নে বসে! চোটে ফুলে গেছে তার ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি।  সঙ্গে অনেক ব্যথা। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু রাতে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘দ্বিতীয় ইনিংসে যদি মুশফিক খেলেনও তাহলে হয়তো ব্যাট করতে পারবেন। কিন্তু কোনও অবস্থাতে উইকেট কিপিং করতে পারবেন না।’ কী ভয়ংকর তথ্য বাংলাদেশের জন্যে! এখন ক্রাইস্ট চার্চ টেস্টে মুশফিক পুরোদমে খেলতে পারলেই হয়। আর টিম ম্যানেজমেন্ট যদি বলে বসে যে সামনে ইন্ডিয়ার সঙ্গে টেস্ট ম্যাচ, তারা টেস্ট ক্যাপ্টেন মুশফিকের বেলায় কোনও ঝুঁকি নিতে নারাজ তাহলে নিউজিল্যান্ড সফরের উপসংহারটা কী দাঁড়াবে?

মুশফিক ইস্যু হয়তো রবিবার দুপুরের দিকে অনেকে বেশি করে ভাবাতে শুরু করবে। আপাতত এখানকার বাংলাদেশ বিরোধী ভিলেন বৃষ্টির কথা ভাবা যাক। এই ভিলেন যদি ওয়েলিংটন টেস্টের সময় কমিয়ে আনে রেজাল্ট কার পক্ষে যাবে বলা মুশকিল!

/এফআইআর/

ULAB
Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ