কোহলি-কেদারের সেঞ্চুরিতে ৩৫০ রানও টপকে গেল ভারত

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:৩৭, জানুয়ারি ১৫, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪২, জানুয়ারি ১৫, ২০১৭

কেদার যাদব ও বিরাট কোহলি, সেঞ্চুরি পেয়েছেন দুজনইঅধিনায়ক হিসেবে দশে দশ পেলেন বিরাট কোহলি। সত্যিকার অধিনায়কের মতোই ব্যাট হাতে দেখা দিলেন তিনি। তার সঙ্গে জ্বলে উঠল কেদার যাদবের ব্যাটও। দুজনের সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের ছুঁড়ে দেওয়া রানের পাহাড়টাও তাই ভারত টপকে গেল ৩ উইকেট হাতে রেখে।

রানের পাহাড়ই তো। পুনেতে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে সফরকারীরা স্কোরে জমা করেছিল ৩৫০ রান। কঠিন সেই লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই ভারতের নেই দুই উইকেট। সেই চাপ জয় করে কোহলি খেললেন ১২২ রানের ইনিংস। যোগ্য সঙ্গ দেওয়া কেদার খেলছেন ১২০ রানের ঝোড়ো ইনিংস। যার যোগফল ভারত কঠিন লক্ষ্যটা ৪৮.১ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে টপকে গিয়ে জিতল ৩ উইকেটে।

পুরোপুরি অধিনায়ক হিসেবে প্রথমবার ওয়ানডেতে নেমেছিলেন কোহলি। নতুন শুরুর শুরুটা মোটেও ভালো ছিল না তার। কারণ বোলিংয়ে তার দল খরচ করে ৩৫০ রান। ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের ধারালো ব্যাটিংয়ে কঠিন লক্ষ্যের সামনে দাঁড়িয়ে যায় কোহলির দল। সেই পথ পাড়ি দিতে শুরুতেই ভারত হারায় লোকেশ রাহুল (৮) ও শিখর ধাওয়ানের (১) উইকেট দুটি। দীর্ঘদিন পর ওয়ানডে দলে ফিরে শুরুটা মন্দ ছিল না যুবরাজ সিংয়ের। তবে বেন স্টোকসের লেগ স্ট্যাম্পের বল খেলতে গিয়ে ১৫ রান করে ধরা পড়েন তিনি উইকেটরক্ষক জস বাটলারের গ্ল্যাভসে। যুবরাজ ফেরার পর মাঠে নামেন এই সিরিজের আগেই অধিনায়কত্ব ছাড়া মহেন্দ্র সিং ধোনি। ‘চাপহীন’ ম্যাচে আক্রমণাত্মক শুরুটা শেষ হয়ে যায় তার মাত্র ৬ রানে। ভারতের তখন ৬৩ রানে নেই ৪ উইকেট।

ম্যাচ থেকে প্রায় ছিটকে যাওয়া ভারতীয় তরীকে পথে ফেরান কোহলি-কেদার জুটি। পঞ্চম উইকেট জুটিতে তারা যোগ করেন ২০০ রান। কোহলির চেয়ে আক্রমণাত্মক ছিলেন কেদার। মাত্র ২৯ বলে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেন তিনি। অসাধারণ ব্যাটিংয়ে নিজের সঙ্গে দলের রান বাড়িয়ে নেন তারা। অধিনায়ক হয়ে যেন আরও পরিণত হয়েছে কোহলির ব্যাটিং। চাপকে জয় করে, রানের গড় ঠিক রেখে, চমৎকার ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনীতে মুগ্ধ করেছেন দর্শকদের। সেই সঙ্গে তুলে নেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২৮তম সেঞ্চুরি। তার কিছু সময় পর কেদারও পান তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। ১০৫ বলে ১২২ রান করে কোহলি আউট হলেও জয়ের ভিতটা করে দিয়ে যান তৈরি। ভারতীয় অধিনায়ক তার ইনিংসটি সাজিয়েছিলেন ৮ চার ও ৫ ছক্কায়। কেদার অবশ্য টিকে ছিলেন আরও অনেকটা সময়। শেষ পর্যন্ত এই ব্যাটসম্যান আউট হন ১২০ রান করে। ৭৬ বলের বিধ্বংসী ইনিংসটি সাজিয়েছিলেন তিনি ১২ চার ও ৪ ছক্কায়।

কোহলি ও কেদারের গড়ে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে জয় নিশ্চিত করেন হার্দিক পান্ডিয়া (৪০*) ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন (১৫*)। ইংল্যান্ডের সফল বোলার জ্যাক বল ৬৭ রান খরচায় নিয়েছেন ৩ উইকেট।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ইংল্যান্ড জেসন রয়, জো রুট ও বেন স্টোকসের হাফসেঞ্চুরিতে গড়ে রানের পাহাড়। রয় খেলেন ৬১ বলে ৭৩ রানের ইনিংস। তিন নম্বরে নেমে রুট ৯৫ বলে করেন ৭৮ রান। আর মাঝে বেন স্টোকস ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে ৪০ বলে যোগ করেন ৬২ রান। তাতে ইংলিশরা ৩৫০ রানের বড় স্কোর গড়ালেও কোহলি-কেদারের ব্যাটে হার নিয়েই ছাড়তে হয়েছে মাঠ। ক্রিকইনফো

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

ইংল্যান্ড : ৫০ ওভারে ৩৫০/৭ (রুট ৭৮, রয় ৭৩, স্টোকস ৬২, বাটলার ৩১; পান্ডিয়া ২/৪৬)।

ভারত : ৪৮.১ ওভারে ৩৫৬/৭ (কোহলি ১২২, কেদার ১২০, পান্ডিয়া ৪০*; বল ৩/৬৭)।

ফল : ভারত ৩ উইকেটে জয়ী।

ম্যাচসেরা : কেদার যাদব (ভারত)।

/কেআর/

লাইভ

টপ