টাইগারদের সিরিজ জয়ের ম্যাচ

Send
রবিউল ইসলাম, শ্রীলঙ্কা (কলম্বো) থেকে
প্রকাশিত : ২৩:০০, মার্চ ৩১, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৩৭, মার্চ ৩১, ২০১৭

260638শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম সিরিজ জয়ের প্রত্যাশা নিয়ে শনিবার ২২ গজের লড়াইয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এদিন বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় কলম্বোর সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব (এসএসসি) মাঠে শুরু হবে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ। দুই দলের জন্যই ম্যাচটি সমান গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ জিতে গেলে সিরিজের ভাগিদার হবে। আর হারলে স্বাগতিকদের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে হবে ট্রফি।

অবশ্য দুই দলের বাইরে খলনায়ক হয়ে দেখা যেতে পারে বৃষ্টিকে। আবহাওয়া প্রতিবেদনে তেমন কিছুর ইঙ্গিত রয়েছে। শুক্রবার বিকালে বেশ খানিকক্ষণ বৃষ্টি ঝরিয়েছে কলম্বোর আকাশ। সব মিলিয়ে রণকৌশলে বৃষ্টির ভাবনা মাথায় রাখতে হচ্ছে দুই দলকে।

সিংহলিজের পরিসংখ্যান অবশ্য আশাহত করতে পারে বাংলাদেশকে। কেননা এই ভেন্যুতে বাংলাদেশ দশটি ম্যাচ খেলে জিতেছে মাত্র একটিতে। ২০০৪ সালে হংকংয়ের বিপক্ষে ১১৬ রানে জিতেছিল বাংলাদেশ। এছাড়া শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চারটি, ভারতের বিপক্ষে দুটি এবং অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি করে ম্যাচ খেলেছিল সফরকারীরা। রানের হিসাবে ১৬৭ রানে এবং উইকেটের হিসাবে ৯ উইকেটে হারের রেকর্ড রয়েছে বাংলাদেশের।

তবে আশার কথা, ‘অপয়া’ পি সারা ওভাল ও রানগিরি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। পরিসংখ্যানকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে টাইগাররা ম্যাচ জিতেছে ওই দুই ভেন্যুতে। চলতি সিরিজে শততম টেস্ট ও সিরিজের প্রথম ওয়ানডে জয়ের মধ্য দিয়ে আগের ব্যর্থতার ইতিহাস পরিবর্তন করে দিয়েছেন মাশরাফিরা। এখন সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে বাংলাদেশ আগের ইতিহাস বদলাতে পারে কিনা, তা দেখার অপেক্ষা। 
বাংলাদেশের এক সময়ের ‘পোস্টার বয়’ মোহাম্মদ আশরাফুল কনিষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে টেস্ট সেঞ্চুরি করেছিলেন সিংহলিজেই। পরবর্তীতে ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে নিন্দিত ও বহিষ্কৃত হন তিনি। যদিও ২০০১ সালের ৮ সেপ্টেম্বর এই সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে মাত্র ১৭ বছর বয়সে তার অভিষেকে টেস্ট সেঞ্চুরির রেকর্ডটা এখনও অমলিন। 

এই ভেন্যুতে তিনশ প্লাস রানের ঘটনা আছে দুটি ম্যাচে। আর ২৮০-এর বেশি রান আছে বেশ কয়েকটি। এতেই বোঝা যাচ্ছে, সিংহলিজের এ মাঠ হাই স্কোরিং। ১৯৮২ সালে প্রথম ওয়ানডের পর এখানে সর্বশেষ ওয়ানডে হয়েছে ২০১১ সালে। ৫৯ ওয়ানডেতে এই মাঠে রান হয়েছে ২১ হাজার ৭২৫। ওভার প্রতি রান ৪.৬৮। তাই মাশরাফি সবকিছুর জন্যই প্রস্তুত, ‘এটা ভালো উইকেট, শুনেছি ২৭০-২৮০ এখানে গড় স্কোর। আমাদের চেষ্টা থাকবে শ্রীলঙ্কাকে তিনশ রানের নিচে আটকে রাখার।’

দলের সবচেয়ে সিনিয়র ক্রিকেটার হলেও নানা সময়ে ইনজুরির কারণে শ্রীলঙ্কা সফরে আসা হয়নি মাশরাফির। তাই এই মাঠে তার খেলার অভিজ্ঞতা নেই। সব মিলিয়ে এসএসসিতে অনভিজ্ঞ দলই মাঠে নামবে!

যদিও মাশরাফি এত কিছু ভাবছেন না। সিংহলিজে নিজেদের সেরাটা দিয়েই জয় পেতে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ অধিনায়ক, ‘এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি ম্যাচ। আমরা নিজেদের সেরা চেষ্টা করবো। আশা করি, পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারব।’

শনিবার বাংলাদেশের জন্য ম্যাচটি সহজ হচ্ছে না। দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া শ্রীলঙ্কা যে কোনও মূল্যে জিততে চাইবে। শ্রীলঙ্কা দলের ম্যানেজার গুরুসিংহের কথায় তেমনই আভাস, ‘আমাদের দলের অবস্থা ভালো। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আমরা ভালো খেলেছি। ব্যাটসম্যানরা দায়িত্ব নিয়ে খেলে ৩১১ করেছে। এই মুহূর্তে তাদের আত্মবিশ্বাস খুব ভালো। তবে সবাই জানে কালকে নতুন ম্যাচ। নতুন ভাবে শুরু করতে হবে। এসএসসির উইকেট অসাধারণ। ওখানে হালকা ঘাস রয়েছে। সব মিলিয়ে আমার বিশ্বাস, রোমাঞ্চকর ম্যাচ হবে।’

এই ধারাতেই প্রায় একযুগ পর সেই মাঠে আরও একটি ইতিহাস গড়ার হাতছানি বাংলাদেশের সামনে। শনিবার স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে হারাতে পারলে প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজে জয়ের স্বপ্ন পূরণ হবে বাংলাদেশের। কোটি কোটি ভক্তের নজর এখন সেদিকেই!

/এফআইআর/

লাইভ

টপ