behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

পাকিস্তান সিরিজের ম্যাচ মিরপুরে!

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট২৩:৪৮, এপ্রিল ২১, ২০১৭

শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের বর্তমান চিত্রমিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে চলছে সংস্কার কাজ। তবে আগামী জুন অথবা জুলাইয়ের মধ্যে মাঠ খেলার উপযোগী হবে যাবে বলে আশাবাদী বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান হানিফ ভূঁইয়া। তার বিশ্বাস, পাকিস্তান সিরিজের আগেই আউটফিল্ড ও পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা সংস্কার করে এবং নতুন ঘাস লাগিয়ে মাঠটি তৈরি করা সম্ভব। জুলাইয়ে পাকিস্তানকে ঘরের মাঠে স্বাগত জানাবে বাংলাদেশ।

শুক্রবার বিসিবির পরিচালক ও গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান হানিফ ভূঁইয়া বলেছেন, ‘মিরপুরে খেলা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আমরা পাকিস্তান সিরিজের কথা মাথায় রেখেই কাজ করছি। তবে নতুন মাঠে খেলানোর ব্যাপারে আইসিসি কিংবা পাকিস্তানের কোনও মতামত থাকলে সেটা ভিন্ন কথা। সব মিলিয়ে আমি আশাবাদী।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘কোনও কারণে মিরপুরে খেলা না হলে আমাদের অন্য মাঠ যেমন সিলেট স্টেডিয়াম, ফতুল্লা, চট্টগ্রাম রেডি আছে। আমি চাইলে খুব কম সময়ের মধ্যে এসব ভেন্যুতে ম্যাচ আয়োজন করতে পারব।’

পুরো মাঠের ঘাস তুলে ফেলা হয়েছেবিশ্বের অনেক মাঠের আউটফিল্ড সংস্কারের কাজ করে ল্যাবো স্পোর্টস। এ প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ক্যাথ ম্যাকলফি পর্যবেক্ষণ করে গেছেন মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়াম। তার সুপারিশ পাওয়ার পর বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন শিক্ষকের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করে কর্মপ্রণালী নির্ধারণ করেছেন।

অস্ট্রেলিয়ান ওই প্রতিষ্ঠানের সুপারিশেই আউটফিল্ডের ঘাস তুলে সেখানে ৬ ইঞ্চির মতো সিলেটের মোটা বালু ফেলা হয়েছে। তার ওপর বারমুডা (দুর্বা) ঘাস রোপণ করতে হবে। সেই রোপণ প্রক্রিয়া শিগগিরি শুরু হবে বলে জানালেন হানিফ ভূঁইয়া, ‘ঘাসের চারা বড় হওয়ার জন্য যতটা দরকার, ততটা সময় পাওয়া যায় না। এই কারণে আমরা বিরতির সময়টাকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করছি। আশা করি, অল্প কিছুদিনের মধ্যে মাঠের অবস্থা পরিবর্তন হয়ে যাবে।’

পুরো মাঠের সংস্কার অস্ট্রেলিয়ান কোম্পানির তত্ত্বাবধানে হলেও পিচের কাজ প্রধান কিউরেটর গামিনি ডি সিলভা করবেন। ইতোমধ্যে সেন্টার পিচ দুই থেকে তিন ইঞ্চি খুঁড়ে টপ ড্রেসিং করেছেন তিনি। পুরো মাঠ খাঁ-খাঁ করলেও পিচের মধ্যে সবুজ আমেজ।

হানিফ ভূইয়ার আশা, জুলাইয়ের মধ্যে পুরো মাঠ খেলার উপযুক্ত হয়ে উঠবে, ‘মিরপুরে প্রতিদিন ১০০ জন শ্রমিক কাজ করছেন। আশা করি কিছু দিনের মধ্যে ঘাস লাগিয়ে জুলাইয়ের মধ্যে মাঠ তৈরি করে ফেলতে পারব। পাকিস্তান সিরিজের আগেই শেরে বাংলা স্টেডিয়াম খেলার উপযোগী হয়ে যাবে।’

/আরআই/এএআর/

ULAB
Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ