ক্রীড়াপ্রেমীদের মিলনমেলা ‘স্পোর্টস হাব’

Send
রবিউল ইসলাম
প্রকাশিত : ২১:০৫, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:১৫, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭

অনুষ্ঠানে নাফিসা কামাল এবং তাহমিদ আজিজুল হক রাজধানীর কৃষিবিদ ইনিস্টিটিউশন অডিটরিয়ামে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো স্পোর্টস বিজনেস কনফারেন্স ‘স্পোর্টস হাব’। অনুষ্ঠানে ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিরা নিজেদের ভাবনা তুলে ধরেছেন উপস্থিত দর্শকের সামনে। তাদের বক্তব্যে যেমন উঠে এসেছে সাফল্যগাথা, তেমনি ব্যর্থতাও।

ব্যর্থতা প্রসঙ্গে সবচেয়ে বিব্রত হয়েছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) সহ-সভাপতি তাবিথ আউয়াল। সবার প্রায় একই প্রশ্ন, দেশের ফুটবলের এমন দুরবস্থা কেন? ফুটবলের পুনর্জাগরণে কী করা উচিত জানতে চাইলে তাবিথ আউয়ালের আক্ষেপভরা মন্তব্য, ‘আমাদের কোনও তারকা ফুটবলার নেই, যাকে দেখে মানুষ ফুটবল খেলা দেখতে আসবে। সবার আগে আমাদের কয়েকজন তারকা তৈরি করতে হবে। আমার বিশ্বাস, অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ফুটবল দলেও ক্রিকেটারদের মতো তারকা দেখা যাবে।’

ইমেগো স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের উদ্যোগে দেশের বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ ব্যক্তি, ক্রীড়াবিদ, ক্রীড়া সংগঠক, ক্রীড়াক্ষেত্রে বিনিয়োগকারী শীর্ষ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান, ক্রীড়া সাংবাদিক, ক্রীড়াপ্রেমীদের এক সূতোয় গাঁথার প্রচেষ্টাই স্পোর্টস হাব। প্রথম আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক ছিল টিভিএস অটো বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যভিত্তিক কোম্পানি পেনহিল লজিস্টিকস। 

বক্তব্য রাখছেন খালেদ মাহমুদ সুজনক্লাব অ্যান্ড ফ্র্যাঞ্চাইজি ম্যানেজমেন্ট, স্পোর্টস মার্কেটিং, অবসরের পর একজন ক্রীড়াবিদের ভিন্ন ক্যারিয়ার, ক্রিকেটের অগ্রযাত্রা, তৃণমূল পর্যায়ের ফুটবল, বাংলাদেশের হকি, ক্রীড়া সাংবাদিকতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন অতিথিরা। অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা থাকলেও শারীরিক অসুস্থতার কারণে আসতে পারেননি বিসিবির পরিচালক ও খুলনার টাইটানসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ইনাম আহমেদ।  

ক্রিকেট নিয়ে আলোচনা করতে মঞ্চে ওঠেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও বিসিবির পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন। মঞ্চে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে তার ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্সের ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। খেলোয়াড়ি জীবন থেকে শুরু করে চাকরি ও কোচিং নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছেন সুজন। ক্রিকেট যে এখন অনেক ‘নির্ভরযোগ্য পেশা’, সে কথা জানিয়ে তিনি বলেছেন, ‘অবসরের পর কোচিং, আম্পায়ারিং, ট্রেনার কিংবা ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার সুযোগ হয়েছে। বর্তমান সময়ে ক্রিকেটারদের আর্থিক অবস্থা অনেক ভালো। খেলোয়াড়ি জীবন শেষে যারা ক্রিকেটের সঙ্গে কাটাতে চান, তাদের সামনে অনেক সুযোগ রয়েছে বলে আমি মনে করি।’

অনুষ্ঠানের শুরুতে মঞ্চে ওঠেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের চেয়ারপারসন নাফিসা কামাল এবং রাজশাহী কিংসের প্রধান নির্বাহী তাহমিদ আজিজুল হক। বিপিএলে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর মুনাফার বিষয়ে কথা বলেন তারা। আগামী বছর কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের শেয়ার ছাড়ার ব্যাপারে আশাবাদী নাফিসা কামাল, ‘আমরা সমর্থকদের আরও কাছাকাছি আনতে চাই। আমরা চাই, তারা আমাদের দলের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে থাকুক। আশা করি, আগামী বছর কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে শেয়ার মার্কেটে নিবন্ধন করাতে পারবো।’

‘স্পোর্টস প্রেজেনটেশন’ অংশে উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল টোয়েন্টি ফোরের স্পোর্টস এডিটর দিলু খন্দকার, এনটিভির স্পোর্টস এডিটর নাসিমুল হাসান ও ডেইলি স্টারের স্পোর্টস রিপোর্টার মাজহারউদ্দিন অমি। তারা নিজেদের মূল্যবান অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেওয়ার পাশাপাশি একটি খবর নিখুঁতভাবে দর্শক-পাঠকের কাছে উপস্থাপন বিষয়ে আলোকপাত করেছেন, বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরও দিয়েছেন।

একজন দর্শকের প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন তাবিথ আউয়ালবায়ার্ন মিউনিখ, বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, আর্জেন্টিনা ও শচীন টেন্ডুলকারের ভক্তদের উল্লাস নিয়ে কয়েকটি ভিডিও চিত্র দেখানো হয় অনুষ্ঠানে। ছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটভক্তদের নিয়ে দুটি ভিডিও চিত্র।

স্পোর্টস মার্কেটিং বিষয়ে আলোচনা করেন অ্যাডকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজিম ফারহান চৌধুরী, এশিয়াটিক ৩৬০ ডিগ্রি’র নির্বাহী পরিচালক ইরেশ জাকের এবং ম্যাকমের প্রধান নির্বাহী রাবেথ খান।

দেশের প্রথম স্পোর্টস মার্কেটিং সামিটের দিনব্যাপী আয়োজনের শেষে ছিল পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘স্পোর্টস বিজনেস আইডিয়া কম্পিটিশন’। এই প্রতিযোগিতার বিচারকের দায়িত্বে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সহ-সভাপতি মাহবুব আনাম।

ছবি-সাজ্জাদ হোসেন 

/আরআই/এএআর/

লাইভ

টপ