টি-টোয়েন্টিতে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় বাংলাদেশের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:০৩, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৩, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮

টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ ও নির্বাচক হাবিবুল বাশারের সঙ্গে রণপরিকল্পনায় ব্যস্ত বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। ছবি-বিসিবিত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম তিন ম্যাচ অতি সহজে জিতে যেন উড়ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু তারপর ছন্দপতন! লিগ পর্বের শেষ ম্যাচ আর ফাইনালে শ্রীলঙ্কার কাছে পাত্তাই পায়নি টাইগাররা। এরপর টেস্ট সিরিজের শুরুটা ভালোই হয়েছিল। ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় ড্র করেছিল চট্টগ্রাম টেস্ট, তবে মিরপুরে প্রায় আড়াই দিনে বিধ্বস্ত হয়েছে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শিষ্যদের হাতে। এখন বাকি টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ২০ ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স তেমন ভালো নয়। তবু টি-টোয়েন্টিতে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় স্বাগতিকদের।

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে ‘দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা কেমন?’ প্রশ্নে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর উত্তর, ‘ঘরের মাটিতে আমি সব সময় বাংলাদেশ দলকে এগিয়ে রাখি। যদিও টেস্ট আর ওয়ানডেতে আমাদের পারফরম্যান্স আশাব্যঞ্জক ছিল না। তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিয়ে আমরা আশাবাদী, এখানে ভালো খেলেই ঘুরে দাঁড়াতে পারবো।’

টি-টোয়েন্টিতে অতীতে অনেক ব্যর্থতা থাকলেও এবার সাফল্য পেতে আত্মবিশ্বাসী মাহমুদউল্লাহ, ‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আলাদা ফরম্যাট, এটা টেস্ট আর ওয়ানডে থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। আমাদের টি-টোয়েন্টি সামর্থ্যের ওপর একটা প্রশ্নচিহ্ন আছে। এই সিরিজে ভালো করে ক্রিকেট বিশ্বকে আমরা দেখিয়ে দিতে চাই। এটা আমাদের ক্রিকেটের জন্যও জরুরি। আমি আত্মবিশ্বাসী, এই সিরিজে ভালো খেলতে পারবো।’

বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলে কখনোই সহ-অধিনায়ক ছিল না। টেস্ট দলে সাকিবকে অধিনায়ক ও মাহমুদউল্লাহকে সহ-অধিনায়ক ঘোষণার সময় বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান বলেছিলেন, তামিম টি-টোয়েন্টি দলের সহ-অধিনায়ক! কিন্তু ইনজুরির কারণে অনুপস্থিত সাকিবের জায়গায় টেস্ট সিরিজের মতো টি-টোয়েন্টিতেও বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ। এ প্রসঙ্গে তার মন্তব্য, ‘দায়িত্ব এসেছে, চেষ্টা করবো ভালোভাবে দায়িত্বটা পালন করার। টি-টোয়েন্টি শর্ট ফরম্যাটের ক্রিকেট। স্কিল কাজে লাগাতে পারলে এখানে সাফল্য পাওয়া সম্ভব।’

বিপিএলে খুলনা টাইটানসকে নেতৃত্ব দিয়ে সাফল্য পেয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। জাতীয় দলকেও সাফল্য এনে দেওয়ার প্রত্যাশা তার কণ্ঠে, ‘আমি বিশ্বাস করি, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে খেলোয়াড়দের স্বাধীনতা এবং উৎসাহ দিতে পারলে তাদের কাছ থেকে ভালো পারফরম্যান্স বের করে আনা সম্ভব। আমাদের দলে কয়েকজন নতুন মুখ আছে। চেষ্টা করবো ওদের ওপর থেকে চাপ কমিয়ে সেরাটা বের করে আনার। দলে অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ও আছে কয়েকজন। সবাই মিলে নিজেদের সেরাটা দিয়ে সফল হতে চেষ্টা করবো।’

/আরআই/এএআর/

লাইভ

টপ