ঢাকায় আবার তরুণ ফুটবলারদের টুর্নামেন্ট

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:০৫, এপ্রিল ১৭, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:১৫, এপ্রিল ১৭, ২০১৮

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীপেশাদার ফুটবল লিগে বয়সভিত্তিক দল থাকা বাধ্যতামূলক। বয়সভিত্তিক দল নিয়ে আলাদা লিগ হওয়ারও নিয়ম আছে। তবে এই নিয়ম মানা হয় না তেমন।

পেশাদার লিগের ১০টি আসর হলেও মাত্র দুটি বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে পেরেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। প্রথমটি হয়েছিল ২০১৩ সালে অনূর্ধ্ব-১৬ ফুটবলারদের নিয়ে, পরের বছরই অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবলারদের অংশগ্রহণে হয়েছিল আরেকটি টুর্নামেন্ট। এরপর দীর্ঘ বিরতি। প্রায় সাড়ে তিন বছর পর তরুণদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠবে ঢাকার ফুটবলাঙ্গন। আগামী ২৬ এপ্রিল শুরু হবে অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবল প্রতিযোগিতা।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ১২টি ক্লাবই এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে।  ‘এ’ গ্রুপে আছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব।  ‘বি’ গ্রুপে খেলবে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, রহমতগঞ্জ ও বিজেএমসি। চট্টগ্রাম আবাহনী, আরামবাগ ও মোহামেডান পড়েছে `সি’ গ্রুপে। আর `ডি’ গ্রুপের তিন দল ঢাকা আবাহনী, মুক্তিযোদ্ধা ও ফরাশগঞ্জ। চার গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স-আপ উঠবে কোয়ার্টার ফাইনালে। ফাইনাল হবে ১২ মে।

টুর্নামেন্টের দুই ভেন্যু বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ও কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়াম। চ্যাম্পিয়ন পাঁচ লাখ আর রানার্সআপ দল পাবে তিন লাখ টাকা। এছাড়া অংশগ্রহণ ফি হিসেবে প্রতিটি দল পাবে দুই লাখ টাকা করে।  

মঙ্গলবার এ উপলক্ষে বাফুফে ভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে ফুটবল ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেছেন, ‘বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার কারণে সময় মতো বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতা করা সম্ভব হয় না। লিগ পদ্ধতিতে খেলা হলে প্রতিটি দল অনেক বেশি ম্যাচ পেতো, কিন্তু তা হচ্ছে না। তবে আমার বিশ্বাস, আগামীবার লিগ পদ্ধতিতে খেলা  হবে।’

ঢাকার ফুটবলে পাতানো খেলার সমস্যা অনেক পুরোনো। বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে বয়স নিয়ে কারচুপির অভিযোগও প্রায়ই ওঠে। সালাম মুর্শেদী তাই আগেই সাবধান করে দিলেন ১২টি ক্লাবকে, ‘আমাদের নিয়ম আগের মতোই থাকবে। পাতানো খেলা কিংবা বয়স নিয়ে কোনও ছাড় দেওয়া হবে না।’

/টিএ/এএআর/

লাইভ

টপ