অ্যান্টিগার মতো উইকেটের আশা ওয়ালশের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:২৮, জুলাই ১১, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৫, জুলাই ১১, ২০১৮

বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।কাল বৃহস্পতিবার জ্যামাইকাতে দ্বিতীয় টেস্টে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। জ্যামাইকার এই ভেন্যুতে বহু স্মৃতি জড়িয়ে আছে বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশের। এই শহরে খেলে জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন ওয়ালশ। বাংলাদেশ দল তাদের বোলিং কোচের বেড়ে ওঠার শহরে প্রথমদিনের মতো অনুশীলন শেষ করেছে। অনুশীলন শেষে বোলিং কোচ জানালেন, তার ঘরের মাঠে বাংলাদেশ দল ঘুরে দাঁড়াবে বলেই বিশ্বাস। তিনি আরও মনে করেন, অ্যান্টিগার মতো সবুজ উইকেট হবে জ্যামাইকাতেও।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় শুরু হবে জ্যামাইকা টেস্ট। অ্যান্টিগাতে নিজেদের ভুলগুলো শুধরে জ্যামাইকাতে বাংলাদেশ কী করবে? সেটা দেখার অপেক্ষায় গোটা বাংলাদেশ।অ্যান্টিগার মতো অনেকটা জ্যামাইকার উইকেট। ওয়ালশের জন্মস্থানেই যখন দ্বিতীয় টেস্ট। সেখানকার উইকেট সম্পর্কে তার জানা আছে বেশ ভালোভাবে, ‘জ্যামাইকাতেও অ্যান্টিগার মতো উইকেট আশা করছি। এই মুহূর্তে নিজের জন্মস্থানে ফিরে ভালো লাগছে। টেস্ট ম্যাচটির জন্য মুখিয়ে আছি। এখানেও আশা করছি উইকেটে ঘাস থাকবে, বাউন্স থাকবে।’

অ্যান্টিগাতে ব্যাটসম্যানদের দুই ইনিংসের ব্যর্থতার পর ইনিংস ব্যবধানে হার মানতে হয় বাংলাদেশকে। মাত্র আড়াই দিনেরও কম সময়ে বাংলাদেশ হেরে গেছে। অ্যান্টিগা টেস্টের এই দুঃস্বপ্ন জ্যামাইকাতে ভোলার সুযোগ সাকিবদের সামনে। ওয়ালশের আশা তার শিষ্যরা এখানে ভালো করবে, ‘প্রথম টেস্টে আমরা প্রত্যাশা মতো ভালো করিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ খুব ভালো খেলেছে তাই জিতেছে। এখানে আরও একটি টেস্ট শুরু হবে এবং এটা নতুনভাবে শুরু হবে। আমাদের সুযোগ আছে ঘুরে দাঁড়ানোর। আশা করি, আমরা  আমাদের সাধ্যমতো খেলার চেষ্টা করব। আশা করি আগের চেয়ে ভালো খেলতে পারব। এমন কন্ডিশনে এটি বড় এক পরীক্ষা। সবাই জানে দেশের বাইরে আমাদের রেকর্ড ভালো নয়। আমরা সেই জায়গাগুলো ভালো করার চেষ্টা করব।’

অ্যান্টিগায় পেসারদের জন্য মনের মতো উইকেট থাকার পরও রুবেল-রাব্বি-রাহীরা উইকেট থেকে সুবিধা আদায় করতে পারেননি। ওয়ালশের আশা জ্যামাইকাতে তার দলের পেসাররা উইকেটের সুবিধা কাজে লাগাতে পারবে, ‘আমাদের আরও মনোযোগী হতে হবে। ধারাবাহিকভাবে ভালো বোলিং করতে হবে। আমাদের ফাস্ট বোলারদের আরও একটি ভালো সুযোগ আসছে। স্যাবাইনা পার্কে কীভাবে বল করতে হয় সেই সম্পর্কে ছেলেদের ধারনা দেব। আশা করি এখানে পেসাররা তাদের পরিকল্পনার বাস্তবায়ন করতে পারবে।’

বাংলাদেশ দ্বিতীয় টেস্টে মুখোমুখি হবে জ্যামাইকার স্যাবাইনা পার্কে। এই মাঠের একটি প্রান্তের নামকরণ করা হয়েছে ওয়ালশের নামে। এই মাঠে খেলতে খেলতেই তারকা পেসার হয়েছেন। তাই মাঠের সবকিছু তার চেনা। অ্যান্টিগার দুঃস্বপ্ন ভুলতে জ্যামাইকায় কোর্টনি ওয়ালশের অভিজ্ঞতা কাজে দেবে। আপাতত এমন বিশ্বাস নিয়ে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করতে হবে ক্রিকেট ভক্তদের।

/আরআই/এফআইআর/

লাইভ

টপ