হকি ফেডারেশনের সিদ্ধান্তে মোহামেডান চ্যাম্পিয়ন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫৫, অক্টোবর ৩০, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৫, অক্টোবর ৩০, ২০১৮

প্রিমিয়ার হকি লিগের শিরোপা উঠেছে মোহামেডানের ঘরেপ্রিমিয়ার হকি লিগের ভাগ্য ঝুলেছিল অনেক দিন। কার হাতে শিরোপা উঠবে তা নিয়ে দড়ি টানাটানি কম হয়নি। কিন্তু সমাধান হয়নি সমস্যার। অবশেষে প্রায় পাঁচ মাস পর হকি ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটি চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেছে মোহামেডানকে।

গত ৭ জুন সুপার ফাইভের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল মোহামেডান ও মেরিনার্স। সেদিন মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে ড্র করলেই শিরোপা জিততো মোহামেডান। কিন্তু ৪৪ মিনিট পর এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় খেলা শেষ হয়নি। ম্যাচে তখন ১-১ সমতা ছিল। ম্যাচটা ড্র ধরে নিয়ে মোহামেডানকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেছে হকি ফেডারেশন। রানার্স-আপ হয়েছে আবাহনী, তৃতীয় মেরিনার্স। তিন দলের পয়েন্ট ৪০, ৩৯ ও ৩৭।

মঙ্গলবার নির্বাহী কমিটির সভা শেষে হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘সেদিন ম্যাচটা শেষ করার জন্য অনেক চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু দুই দলের কারণে শেষ করা সম্ভব হয়নি। তাই ম্যাচের ফল ১-১ ধরে পয়েন্ট টেবিল করা হয়েছে। টেবিল অনুযায়ী মোহামেডান চ্যাম্পিয়ন, আবাহনী রানার্স-আপ ও মেরিনার্স তৃতীয় হয়েছে। সেদিন যারা ম্যাচ শেষ হতে দেননি, তাদের চিহ্নিত করে শাস্তি দেওয়া হবে। তাদের জরিমানা সহ কঠিন শাস্তি হতে পারে। এ বিষয়ে ডিসিপ্লিনারি কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে।’

সেই ম্যাচের প্রথমার্ধে ভারতীয় খেলোয়াড় গুরজিন্দার সিংয়ের গোলে এগিয়েছিল মোহামেডান। ৪৪ মিনিটে মেরিনার্সের সমতাসূচক গোলকে কেন্দ্র করে বাধে গণ্ডগোল। রেজাউল করিম বাবুর লং বল থেকে শফিউল আলম শিশির ফ্লিক করে গোল করেন, গোলের বাঁশিও বাজান আম্পায়ার। কিন্তু শিশিরের স্টিকে বল লাগেনি দাবি করে রিভিউ নেয় মোহামেডান। এরপর দুই পক্ষের তর্ক-বিতর্কের মাঝে মাঠ ছেড়ে চলে যান দুই বিদেশি আম্পায়ার।

অবশ্য কিছুক্ষণ পরই কর্মকর্তাদের অনুরোধে মাঠে ফিরে আসেন তারা। অনেক দেন-দরবারের পর মেরিনার্সের পক্ষে আবার গোলের বাঁশি বাজে। এরপর দুই দলকে ওয়ার্ম-আপ করার জন্য ১০ মিনিট সময় দেন আম্পায়াররা। এ সময় মোহামেডান ফের গোল বাতিলের দাবি জানালে আবার বাধে গোলমাল। ১৮ মিনিট পেরিয়ে যাওয়ায় মেরিনার্স আর খেলতে রাজি হয়নি। প্রায় দেড় ঘণ্টা টানাপোড়েনের পর দুই আম্পায়ার আবার মাঠ ছেড়ে চলে যান। এরপর আর খেলা হয়নি, তাই শিরোপা নির্ধারণও হতে পারেনি। অবশেষে অনেক জল ঘোলা হয়ে শিরোপা উঠলো মোহামেডানের ঘরে।

/টিএ/এএআর/

লাইভ

টপ