আরেকটি হারে হতাশ মাহমুদউল্লাহ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:০৫, জানুয়ারি ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:০৫, জানুয়ারি ১২, ২০১৯

সংবাদ সম্মেলনে হতাশার কথা জানাচ্ছেন খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহসুপার ওভারে বিজয়ী দল যেমন বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে ভেসে যায়, তেমনি পরাজিত দল নিমজ্জিত হয় হতাশার অন্ধকারে। আজ মাহমুদউল্লাহ ছিলেন দ্বিতীয় দলে। বিপিএল ইতিহাসের প্রথম সুপার ওভার ম্যাচে হেরে গেছে তার দল খুলনা টাইটানস। টানা চার ম্যাচ হেরে ভীষণ হতাশ খুলনার অধিনায়ক।

মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে স্নায়ুক্ষয়ী ম্যাচ হেরে যাওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, ‘কোনও অধিনায়কই সুপার ওভার খেলতে চাইবে না। তবু বিপিএলে প্রথম সুপার ওভারে খেলার অভিজ্ঞতা হলো। আজ দুবার জয়ের সুযোগ নষ্ট করেছি আমরা। শেষ ওভারে ১৮ রান ডিফেন্ড করা উচিত ছিল। এরপর সুপার ওভারে ১২ রান করে জেতা উচিত ছিল আমাদের। কিন্তু দুবারই আমরা ব্যর্থ হয়েছি।’

এশিয়া কাপের মতো বড় টুর্নামেন্টে শেষ ওভারে বল করেছেন মাহমুদউল্লাহ, বিপিএলে বেশ কয়েকটি ম্যাচে শেষ ওভারে বল হাতে জিতিয়েছেন খুলনাকে। অথচ আজ নিজে না করে কেন আরিফুল হকের হাতে বল তুলে দিলেন? মাহমুদউল্লাহর ব্যাখ্যা, ‘শেষ ওভারে অফস্পিন বোলিং পেলে ওদের জন্য সুবিধা হতো। আমার মনে হয়েছিল,  আরিফুলই ভালো অপশন। ও ওয়াইড ইয়র্কার করতে পারলে আমরা হয়তো জিতে যেতাম। কিন্তু দুর্ভাগ্য, আরিফুল ভালো বল করতে পারেনি।’

সুপার ওভারে তিন বিদেশিকে ব্যাটিংয়ে নামানোর কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, ‘স্টারলিং অফসাইডে খুব ভালো, মালানও ভালো ব্যাটসম্যান। আর ব্র্যাথওয়েটের পাওয়ার ব্যাটিংয়ের কথা আমরা সবাই জানি। সব দিক বিবেচনা করেই তাদের নির্বাচন করা হয়েছে। তিন নম্বরে আমিও নামতে পারতাম। কিন্তু আমার মনে হয়েছে, স্টারলিং খেললেই ভালো হবে।’  

২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে টানা চারটি ছক্কা মেরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে  ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জয় এনে দিয়েছিলেন ব্র্যাথওয়েট। আজ সুপার ওভারে শুধু প্রথম বল খেলার সুযোগ পেয়েছেন ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার। চতুর্থ বলে রান আউট ব্র্যাথওয়েট আরেকটু বেশি খেলার সুযোগ পেলে কি খুলনা জিততো? মাহমুদউল্লাহর জবাব, ‘না, আমি তা মনে করি না। আমাদের তিন ব্যাটসম্যানেরই জয় এনে দেওয়ার সামর্থ্য ছিল। অবশ্যই কার্লোসের (ব্র্যাথওয়েট) কথা আলাদা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে সে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জয় এনে দিয়েছিল। সেজন্য আজ সুপার ওভারে তাকে আগে পাঠিয়েছি। কিন্তু আমাদের পরিকল্পনা সফল হয়নি। তবে সেজন্য কাউকে দোষারোপ করা ঠিক হবে না।’

চতুর্থ ম্যাচেও হারের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে না পেরে ভীষণ হতাশ টাইটানসের অধিনায়ক, ‘আমি আজ মাঠে নামার আগে সবাইকে বলেছিলাম, একটা জয় বদলে দিতে পারে আমাদের। এবারের বিপিএলে যেভাবে খেলছি, তার চেয়ে আমাদের দলটা অনেক ভালো। কিন্তু প্রথম চার ম্যাচে আমরা ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং কোনও বিভাগেই আশানুরূপ পারফর্ম করতে পারিনি। এটা সত্যিই হতাশাজনক। এর চেয়ে হতাশার আর কিছু হতে পারে না।’

/আরআই/এএআর/

লাইভ

টপ