বিশ্বকাপে ভালো করার পথ খুঁজছেন মাশরাফি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:০৫, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:১২, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯

সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বিন মুর্তজা।নিউজিল্যান্ডের মাটিতে  ২০০৭, ২০১০, ২০১৬  সালের  মতো ২০১৯ সালেও একই পরিণতি বরণ করলো বাংলাদেশ। চারটি সিরিজেই হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবলো সফরকারী দল হয়ে।  বিশ্বকাপের তিন মাস আগে এমন হার বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাস নাড়িয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।  তাই টুর্নামেন্টের আগে নিজেদের ফিরে পাওয়ার পথ খুঁজছেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

অবশ্য বিশ্বকাপের আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের ফলাফল অস্বস্তিকর হলেও সামনের দিকেই তাকাচ্ছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তার আগে আয়ারল্যান্ডে খেলা হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ। ইংল্যান্ডে খেলার আগে এমন কন্ডিশন কাজে লাগানোর পক্ষে মাশরাফি। এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘পরের টুর্নামেন্টের এখনো দুই মাস বাকি, আমাদের একটা পথ বের করতে হবে। আয়ারল্যান্ডে প্রায় একই রকম কন্ডিশন, আগেরবার তো ঘাস বেশি ছিল। অনেক সময় কন্ডিশন আমাদের পক্ষে ছিল না। কীভাবে রান করব, সেটা আমাদের বের করতে হবে। ১০ ওভার পরে ব্যাটিং করা সহজ হয়ে যায়, এটা আমাদের বুঝতে হবে।’

পর পর তিনটি ম্যাচে টপ অর্ডারের ব্যাটিং ব্যর্থতায় হতাশা আর ঢাকতে পারলেন না ওয়ানডে অধিনায়ক। সাম্প্রতিক বেশ কিছু ম্যাচ নিয়ে মূল্যায়ন করে বললেন, 'প্রথম দুই ম্যাচে না হওয়ার পর শুধু আমি না, পুরো দল ইতিবাচক ছিলাম। আমরা মনে হয় ভিন্ন কিছু করতে গিয়েছিলাম। এই উইকেটে একটু সুইং বা বাউন্স থাকবে স্বাভাবিকভাবেই। কিন্তু বেসিক খেলায় থাকাটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিলো, যেটা আমরা থাকতে পারিনি। কালকে (মঙ্গলবার) হয়তো চিন্তা করিনি, কারণ ইতিবাচক তো থাকতে হবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজে তামিম রান করেছে, কিন্তু এশিয়া কাপে ২০-২৫ রানে ৩ উইকেট গেছে, এখানেও তাই হয়েছে।’

ব্যাটিং ব্যর্থতার পাশাপাশি ফিল্ডিয়েও পুরোপুরি ব্যর্থ ছিলেন বাংলাদেশের ফিল্ডাররা। তবে ফিল্ডিংয়ের ব্যর্থতার সঙ্গে উন্নতির চেষ্টার কথাও তুলে ধরলেন মাশরাফি, 'ফিল্ডিং চাইলেই উন্নতি করা যায়। বোলিং বা ব্যাটিংয়ে একটু সময় লাগে। এখানে স্কিলের ব্যাপার আছে। ফিল্ডিংয়ে চেষ্টা করলে উন্নতি করার সুযোগ আছে, চেষ্টাটা বোঝা যায়।। হয়তো সবাই মানসিকভাবে একটু ধাক্কা খেয়েছিল। মানসিকভাবে একটু তাড়াহুড়োও ছিলো, তাই গড়বড় হয়ে গেছে। যে ফিল্ডার থাকে তারা বিভ্রান্ত হয়ে যায়। আর সব সময় একই ছন্দে তো থাকা সম্ভব নয়, ক্যাচ মিস তো হতেই পারে।’

ম্যাচ হারলেও স্বস্তির জায়গা ছিলো মিঠুন-সাব্বিরের ব্যাটে নিয়মিত রান। ৮৮ রানে ম্যাচ হারলেও সাব্বির ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পেয়েছেন। এতো হতাশার মাঝে এখান থেকে ইতিবাচক দিক খুঁজে পাচ্ছেন মাশরাফি, 'অনেক নেতিবাচক বিষয়ের মধ্যে ইতিবাচক কিছুও আছে। আমাদের লোয়ার মিডল অর্ডারে আমরা কিছু রান করেছি। মিঠুন দুই মাচে রান করেছে। সাব্বির আজকে সেঞ্চুরি করেছে, আগের ম্যাচেও ভালো করেছিল। সাইফউদ্দিন আজ ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলিংও ভালো করেছে।'

বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের সময় দশম ওভারে মুশফিকুর রহিম আউট হয়ে সাজঘরে ফিরলে টিভি পর্দায় দেখা যায় তাকে কিছু একটা বলছিলেন তামিম।  তখন মুশফিককে একটু উত্তেজিত অবস্থায় দেখা যাচ্ছিল। বিষয়টি নিয়ে ধারাভাষ্যকাররা কথা বলছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়কের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, ‘সবাই হয়ত ভুল বুঝেছে। ব্যাপারটা ছিলো একেবারে ভিন্ন, হাতে ব্যথা করছিল ওটাই দেখাচ্ছিল। কারণ ব্যাট করার সময় ওর আঙুলের নখ ফেটে গিয়েছিল। ওটাই দেখাচ্ছিল যে- ওর অনেক ব্যথা করছে, ব্যাটিং করতে কষ্ট হচ্ছিল। আমার মনে হয় সবাই যেটা বুঝেছে, সেটা ভুল।'

/আরআই/এফআইআর/

লাইভ

টপ