কেভিতোভার হামলাকারীর ৮ বছরের জেল

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:১৫, মার্চ ২৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:১৯, মার্চ ২৭, ২০১৯

সার্জারির পর ব্যান্ডেজ হাতে কেভিতোভা

ছুরির আঘাত সয়েও কোর্টে অদম্য ভঙ্গিতে ছুটে চলেছেন পেত্রা কেভিতোভা। দুর্বৃত্তের আঘাতে ক্ষত-বিক্ষত হয়েছিলো তার বাম হাত। তার ওপর হামলা চালানো সেই দুর্বৃত্তকে ৮ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে চেক প্রজাতন্ত্রের একটি আদালত।

হামলার ঘটনা বেশ পুরনো। ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শুরুর কয়েক সপ্তাহ আগে চেক প্রজাতন্ত্রে নিজের বাড়িতেই ভয়ঙ্কর এই আক্রমণ হয়েছিল তার ওপর।

কেভিতোভার ফ্ল্যাটে হামলা চালানো রাডিম জোন্ড্রা বয়লার পরীক্ষার অজুহাতে সেখানে গিয়েছিলেন। আর তখনই কেভিতোভাকে পেছন থেকে আটকে গলার কাছে ছুরি ধরে বসেন। সেই পরিস্থিতি থেকে নিজেকে ছাড়াতে গিয়ে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে বাম হাত ক্ষতবিক্ষত হয়ে যায় কেভিতোভার।

অবশ্য নিজের ওপর আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জোন্ড্রা। বোরনোর আঞ্চলিক আদালতে তাকে ৮ বছরের সাজা প্রদান করা হয়েছে। ইতোমধ্যে কেভিতোভার ঘরে অবৈধ অনুপ্রবেশের কারণে সাজা ভোগ করছেন।

সেই হামলায় কেভিতোভার বাম হাতের পাঁচটি আঙুলই বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশঙ্কা জেগেছিল। সবচেয়ে  ক্ষতি হয় তর্জনি। আঙুলগুলো বাঁচাতে প্রয়োজন হয় সূক্ষ্ণ সার্জারির। চিকিৎসকরা স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, কেভিতোভার বাঁ হাতে র‌্যাকেট নেওয়ার সম্ভাবনা মাত্র ১০ শতাংশ! কিন্তু এর ৫ মাস পরই কোর্টে ফেরে নিজেকে প্রমাণ করেন তিনি।

হামলা প্রসঙ্গে কেভিতোভা জানিয়েছিলেন, হামলাকারী থেকে নিজেকে বাঁচাতে অর্থ দেওয়ার কথা বলেছিলেন। গত মাসে আদালতে বলেছিলেন, ভয়ঙ্কর এই হামলায় পুরো ঘরেই রক্ত ছড়িয়ে ছিলো!

/এফআইআর/

লাইভ

টপ