ভিএআরের সিদ্ধান্তকে নিষ্ঠুর বললেন গার্দিওলা

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:৪১, এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪১, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

পেপ গার্দিওলা৭ গোলের থ্রিলার জিতেও চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে যাওয়া হলো না ম্যানচেস্টার সিটির। টটেনহাম হটস্পারের বিপক্ষে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) দুটি সিদ্ধান্তই গেলো তাদের বিরুদ্ধে, যাকে নিষ্ঠুর বললেন কোচ পেপ গার্দিওলা।

মাত্র ২১ মিনিটের মধ্যে ৫ বার বল ঢুকেছে ম্যানসিটি ও টটেনহামের জালে। বিরতির পর সের্হিও আগুয়েরোর গোলে দুই লেগের অগ্রগামিতায় এগিয়ে যায় সিটিজেনরা। কিন্তু এরপরই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয় ভিএআর।

হ্যান্ডবলের অভিযোগে টটেনহামের ফের্নান্দো লরেন্তের গোলটি যাচাই করতে হয় ভিএআরে। সিদ্ধান্তটা ছিল স্পারদের পক্ষেই। ওই লক্ষ্যভেদে অ্যাওয়ে গোলের সুবিধা নিয়ে এগিয়ে যায় স্পাররা। এরপর ইনজুরি সময়ের চতু্র্থ মিনিটে রহিম স্টারলিং গোল করলে সেমিফাইনালে ওঠার উল্লাসে ফেটে পড়েছিল ম্যানসিটি। কিন্তু ভিএআরের ব্যবহারে আগুয়েরোর অফসাইডের সিদ্ধান্তে সেটা বাতিল হয়।

শেষ আট থেকে বিদায়ে ম্যানসিটির কোয়াড্রুপল মিশন থেমে গেলো। চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে এভাবে ছিটকে পড়া কোনোভাবে মানতে পারছেন না গার্দিওলা, ‘প্রথম ২০ মিনিটে স্কোর ছিল ৩-২। ২০ মিনিটে ৫ গোল মোটেও স্বাভাবিক নয়। আমরা আমাদের গোল করেছিলাম, কিন্তু তারপর ভিএআর বাকি কাজ করলো।’

এই দুটি সিদ্ধান্ত নিয়ে ম্যানসিটি কোচের বক্তব্য, ‘হ্যান্ডবল হয়েছিল ইঞ্চি ব্যবধানে। অন্যটা (স্টারলিংয়ের বাতিল গোল) ছিল অফসাইড। আমি ভিএআরকে সমর্থন দেই, কিন্তু একপাশ থেকে হয়তো ফের্নান্দো লরেন্তের গোল ছিল হ্যান্ডবল, হয়তো রেফারির পাশ থেকে নয়। এটা ছিল নিষ্ঠুর। সেমিফাইনালের খুব কাছে ছিলাম আমরা, উদযাপনের ‍মুহূর্তে এমন সিদ্ধান্ত।’

স্পারদের কাছে এই হারে ব্যথিত গার্দিওলা। এটা মেনে নেওয়া কষ্টের স্বীকার করলেন কাতালান কোচ। তবে সামনের এফএ কাপ ফাইনাল ও প্রিমিয়ার লিগ শিরোপায় এখন চোখ রাখতে চান তিনি, ‘লিগে ও এফএ কাপ ফাইনাল সহ অনেক ম্যাচ আছে সামনে। আজ ছিল খুব কষ্টের, আগামীকালও থাকবে। কিন্তু তারপর আমরা প্রিমিয়ার লিগে লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিবো।’ গোল ডটকম

/এফএইচএম/

লাইভ

টপ