বিশ্বকাপে মাশরাফিদের সেরা ক্রিকেট খেলার বার্তা রোডসের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:২৮, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪১, এপ্রিল ২৫, ২০১৯

সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন স্টিভ রোডস।বিগত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশ ৫০ ওভারের ক্রিকেটে সমীহ জাগানিয়া শক্তি। এরই ধারাবাহিকতায় আইসিসির সর্বশেষ দুটি টুর্নামেন্টের একটিতে কোয়ার্টার ফাইনাল, অন্যটিতে সেমিফাইনাল খেলেছে। তাইতো এবারের দলটি নিয়ে আশাবাদী মানুষের কমতি নেই। প্রধান কোচ স্টিভ রোডসও সেই দলেরই একজন। তাই বৃহস্পতিবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এই দলটিকে ঘিরে খুব বেশি আশাবাদী দেখা গেলো তাকে। 
রোডসের বিশ্বাস অন্যদেশগুলো যতই শক্তিশালী হোক না কেন, বাংলাদেশের বিপক্ষে তাদের জেতাটা সহজ হবে না! তবে তেমনটি করতে মাশরাফিদের সেরা ক্রিকেট খেলার বার্তা দিয়েছেন ইংলিশ এই কোচ।

শিষ্যদের প্রতি আস্থা যেমন আছে, সেই আস্থার পথে আছে নানা প্রতিবন্ধকতা। রোডস সেই দিকটাও আঙুল দিয়ে দেখালেন। কারণ তিনি যে বাস্তববাদী একজন মানুষ, ‘নিষ্ঠুর সত্য বলতে গেলে বলবো এবারের বিশ্বকাপে অনেকগুলো ভালো দল খেলবে। ওখানে বাংলাদেশের ভালো খেলাটা কিছুটা কঠিন! তবে আমি জানি বেশ কিছু দল বাংলাদেশকে সমীহ করে। তারা জানে, বাংলাদেশকে হারানো সহজ কোন কাজ নয়। জিততে হলে তাদের সেরা ক্রিকেট খেলেই জিততে হবে।’

রোডস অবশ্য অতীত থেকে প্রেরণার রসদ জোগার করছেন। সেই অতীতই আত্মবিশ্বাসী করে তুলছে তাকে, ‘গত দুটি আইসিসি ইভেন্টে আমরা নিজেদের প্রমাণ করেছি। আমি এখানে আসার আগে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে বাংলাদেশ ভালো করেছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে আমরা কঠিন কন্ডিশনেও ম্যাচ জিতেছি। আমি মনে করি আমরা এমন একটি দল, যারা কিনা যে কোন দলকে হারাতে সক্ষম।’

বাস্তববাদী রোডস অতীত আঁকড়ে পড়ে থাকতে চান না অবশ্য। বর্তমানে পা রেখেই চান সেরা ক্রিকেট খেলুক তার শিষ্যরা, ‘টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে হবে। আমরা যদি নক আউট পর্বে যেতে চাই, আমাদের নিশ্চিতভাবেই সেরা ক্রিকেটটা খেলতে হবে। ছেলেদের উদ্দেশ্যে আমার বার্তা এটাই থাকবে।’

ইংলিশ কন্ডিশনে বোলারদের জন্য কাজটা কঠিন হবে বলে মনে করেন ইংলিশ এই কোচ। সেখানকার কন্ডিশনে বেড়ে ওঠা এই কোচ তাই ভালো করেই জানেন দায়িত্বটা কার কতটুকু, ‘ইংল্যান্ডের উইকেটে বোলারাদের কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে। ওখানে উইকেট ফ্ল্যাট থাকবে। এক পাশ থেকে ভালো বোলিং করতে পারলে তো দিনটি আমাদের হয়ে যাবে। সবচেয়ে বড় কথা আমরা বড় স্কোর করতে হবে, ইংল্যান্ডে এটা করা অনেক সহজ। আউটফিল্ড দ্রুত। উইকেট সাধারণত সমতল হয়ে তাকে, ব্যাটে ভালোভাবে বল আসে। এ কারণে ইংল্যান্ডে বড় স্কোর দেখা যায়। আমাদের বিষয়টি মাথায় রেখেই পরিকল্পনা করতে হবে।’

ঢাকায় কয়েকদিনের অনুশীলনে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি যথেষ্ট হয়নি। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজকেই বিশ্বকাপ প্রস্তুতির অন্যতম মাধ্যম হিসেবে মনে করেন বাংলাদেশ হেড কোচ, ‘এখনো পুরো দল নিয়ে আমরা অনুশীলন করতে পারিনি। এই গরমের মধ্যে অনেকেই প্রিমিয়ার লিগ খেলেছে। তাদের কয়েকদিনের বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। বিশ্বকাপের আগে আমরা ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবো। ওখানেই আমরা বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতে চাই।’

ইনজুরি কাটিয়ে আইপিএল খেলতে যাওয়া সাকিবও খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। বিশ্বকাপের আগে তার ম্যাচ খেলার ঘাটতি সমস্যা হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে স্টিভ রোডস বলেছেন, ‘সাকিবের এখন সানরাইজার্সের জন্য দুই বা তিনটি ম্যাচ খেলার সুযোগ আছে। আশা করি আয়ারল্যান্ড সিরিজের আগে পুরোপুরি প্রস্তুত অবস্থায় আমরা সাকিবকে পাবো।’

/আরআই/এফআইআর/

লাইভ

টপ