উত্তেজনায় ঠাসা বিশ্বকাপের প্রত্যাশা মাশরাফিদের

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:৩৮, মে ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৫৫, মে ২৬, ২০১৯

সাবেক ক্রিকেটার থেকে শুরু করে বিশ্লেষক— সবারই প্রত্যাশা ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে হতে যাচ্ছে ‘উপভোগ্য বিশ্বকাপ’। অন্য সব বিশ্বকাপের চেয়ে এবার ব্যাটসম্যানদের দাপট নাকি আরও বেশি থাকবে। তো অংশ নিতে যাওয়া ১০ দলের প্রত্যাশা কেমন? বৃহস্পতিবার হয়েছে সব দলের অধিনায়কের সঙ্গে মুক্ত আলোচনা। সেখানে কম-বেশি সবাই জানিয়েছেন, উত্তেজনাকর বিশ্বকাপের কথা।

একফ্রেমে বিশ্বকাপের ১০ অধিনায়কমাশরাফি মুর্তজা (বাংলাদেশ অধিনায়ক)

আমাদের দলটা (অভিজ্ঞ-তারণ্যের) দারুণ মিশেলের। সম্ভবত আগের সব বারের তুলনায় ভালো। দলে বেশ কিছু তরুণ খেলোয়াড় এসেছে, আমরা তাদের ব্যাপারেও উত্তেজিত। উপভোগ্য একটি বিশ্বকাপের প্রত্যাশা আমাদের।

অ্যারন ফিঞ্চ (অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক)

আমাদের দলে আছে বিশ্বকাপ জেতা ছয় খেলোয়াড়। আশা করছি, তারা সামনের চলার পথে আমাদের সাহায্য করবে। যদিও এটা অন্য একটি টুর্নামেন্ট। আশা করছি দুর্দান্ত একটি টুর্নামেন্ট হতে যাচ্ছে।

এউইন মরগান (ইংল্যান্ড অধিনায়ক)

বিশ্বকাপে অংশ নিতে যাওয়া দলগুলো বিশ্বের সেরা ১০ দল। অসাধারণ একটি প্রতিযোগিতা হতে যাচ্ছে। আর আমার মনে হয়, আমরা দারুণ কিছু ক্রিকেট দেখতে পাবো। সত্যিই মুখিয়ে আছি খেলার জন্য।

বিরাট কোহলি (ভারত অধিনায়ক)

১০ দলের প্রত্যেকটি ভারসাম্যপূর্ণ ও খুব শক্তিশালী। আর সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, আমরা প্রত্যেকেই সবার সঙ্গে একবার করে খেলবো, যেটা সবার জন্য হবে আরও চ্যালেঞ্জিং। আমার মতে, এটাই হলো এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে ভালো দিক। আমি তো দেখছি এবার মানুষজন অন্যতম সেরা বিশ্বকাপের সাক্ষী হতে যাচ্ছেন।

সরফরাজ আহমেদ (পাকিস্তান অধিনায়ক)

প্রত্যেক দলের ভারসাম্য খুব ভালো, তাছাড়া সবাই ভালো দল। সবাইকে আমি শুভকামনা জানাই। আমার মতে, দর্শকরা গ্রেট কিছু ক্রিকেট দেখতে পাবে এখানে। ইংল্যান্ডে পাকিস্তানের পারফরম্যান্স খুবই ভালো। তাই আমি খুব আত্মবিশ্বাসী, আমরা ভালো করব।

কেন উইলিয়ামসন (নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক)

চারদিকে র‌্যাংকিং, ফেভারিট, আন্ডারডগ নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। তবে আমার মতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো দলগুলোর অবস্থান, প্রত্যেকটি দলই দারুণ ভারসাম্যপূর্ণ। যার যেদিন, সেদিন যে কোনও কিছু ঘটতে পারে। আর এই কারণেই এবারের প্রতিযোগিতা হতে যাচ্ছে উত্তেজনাকর।

ফাফ দু প্লেসি (দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক)

নতুন একটি টুর্নামেন্টে নামতে অপেক্ষায় থাকতে পারছি না। উত্তেজনাটা আরও বেশি হওয়ার কারণ হলো, প্রত্যেক দল প্রত্যেকের বিপক্ষে একবার করে মুখোমুখি হবে বলে। আমার মনে হয়, দুর্দান্ত একটি টুর্নামেন্ট হতে যাচ্ছে।

দিমুথ করুণারত্নে (শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক)

আমরা ভালো ছন্দে আছি, তাছাড়া আমাদের ভালো অভিজ্ঞতাও আছে ইংল্যান্ডে (খেলার)। তাই চেষ্টা করব ভালো করার এবং নিজেদের সেরাটা দেওয়ার। কন্ডিশনের সঙ্গে মানিতে নিতে আমরা আগেভাগেই চলে এসেছি, আশা করি ভালো কিছু করতে পারব।

জেসন হোল্ডার (ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক)

বাছাই পর্বে কঠিন পরিশ্রম করে আমরা এখানে (বিশ্বকাপ) এসেছি। এর মানে হলো, এখানে এসেছে বিশ্বের সেরা ১০ দল, যারা নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিতে যাচ্ছে। উত্তেজনাকর বিশ্বকাপ যেই জিতুক, তারা ট্রফির দাবিদার।

গুলবাদিন নাইব (আফগানিস্তান অধিনায়ক)

আফগানিস্তানে শান্তি ফিরেছে, যেখানে ক্রিকেট বড় একটি অংশ জুড়ে আছে। দর্শকদের সামনে নিজেদের সেরাটা দিতে মুখিয়ে আছি। এখানে বিশ্বের সেরা ১০ দল এসেছে, আর সেখানে আমরা আফগানিস্তানকে প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে গর্বিত।

/কেআর/

লাইভ

টপ