ক্রিকেট নিয়ে স্মৃতিকাতর ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ী বার্টি

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:৫৬, জুন ০৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৭, জুন ০৯, ২০১৯

অ্যাশলে বার্টিক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়া বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রেকর্ড পাঁচবার। কিন্তু ফ্রেঞ্চ ওপেনের ট্রফি অস্ট্রেলিয়ায় গিয়েছিল ১৯৭৩ সালে। এবার সেই আক্ষেপ দূর করলেন অ্যাশলে বার্টি। মার্গারেট কোর্টের পর তার হাত ধরে ৪৬ বছর পর এই গ্র্যান্ড স্লামের স্বাদ পেলো দেশটি। আর প্রথমবার বড় কোনও টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেই ক্রিকেট নিয়ে স্মৃতিকাতর তিনি!

শুধু টেনিস কোর্টেই নয়, বার্টির অভিজ্ঞতা আছে ক্রিকেট মাঠে খেলারও। ২০১৪ সালের ইউএস ওপেন শেষে হঠাৎ করে টেনিস থেকে বিরতির ঘোষণা দেন বার্টি। র‌্যাকেট আর টেনিস বল ছেড়ে হাতে নেন ব্যাট আর শক্ত চামড়ার বল। মেয়েদের বিগ ব্যাশ লিগ খেলার ইচ্ছা থেকে যোগ দেন ব্রিসবেন হিটে। জীবনের এই ‘চমৎকার সময়ে’ ব্রিসবেন ক্লাবে খেলেছেন ৯ ম্যাচ, রান করেছেন ৬৮। কুইন্সল্যান্ড ফায়ারের হয়ে মেয়েদের জাতীয় ক্রিকেট লিগও খেলা হয়েছে তার, মাত্র ২ ম্যাচ।

ক্রিকেটের সঙ্গে ছোট্ট ক্যারিয়ার তার শেষ হয় ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে আবারও টেনিস কোর্টে ফেরার মধ্য দিয়ে। এরপর অক্লান্ত পরিশ্রম করে গেছেন র‌্যাকেট হাতে। তার ফল পেলেন শনিবার ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে। ম্যাচ শেষে ক্রিকেট নিয়ে স্মৃতিকাতর কণ্ঠ শোনা গেলো তার।

ক্রিকেট ক্যারিয়ার সম্পর্কে ২৩ বছর বয়সী বার্টি বলেছেন, ‘আমার জীবনের চমৎকার একটা সময় ছিল এটা। দারুণ কয়েকজনের সঙ্গে দেখা হয়েছে। আমি টেনিস বলে খেলেছি কি খেলিনি তাতে তাদের কিছুই যায় আসেনি। তারা আমাকে গ্রহণ করেছে এবং অ্যাশ বার্টি হিসেবেই জেনেছে। তারা আমাকে বুঝেছে। গত কয়েক দিন ধরে আমার কাছে অনেক শুভ কামনা এসেছে তাদের কাছ থেকে। ক্রিকেট দলের মেয়েদের সঙ্গে আজীবনের সখ্যতা তৈরি হয়েছে আমার।’

/এফএইচএম/

লাইভ

টপ