‘মাশরাফিকে নিয়ে খুব দ্রুতই সমালোচনা হচ্ছে’

Send
রবিউল ইসলাম, টন্টন থেকে
প্রকাশিত : ০০:৫১, জুন ১৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৭, জুন ১৫, ২০১৯

সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন কোর্টনি ওয়ালশ।বিশ্বকাপের তিনটি ম্যাচ দেখেই বাংলাদেশের সেরা অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজাকে নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে বিস্তর। প্রথম দুই ম্যাচে মোটামুটি বোলিং করলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে বোলিংটা ছিলো ধারহীন। সবমিলিয়ে মাশরাফিকে নিয়ে সমালোচনাটা তাই বেশিই হচ্ছে। এতো অল্পতে সবাই মাশরাফির সমালোচনায় ব্যস্ত হওয়ায় বেশ বিরক্ত পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।

উদ্বেধনী ম্যাচে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ৬ ওভার বল করে ৪৯ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকেন মাশরাফি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পরের ম্যাচে ৫ ওভার বল করে ৩২ রান দিয়েই থেমে গেছেন। বাকি ৫ ওভার আর বোলিংয়েই আসেননি। এ নিয়ে ব্যাখ্যাও দিয়েছেন ওয়ানডে অধিনায়ক। পরিস্থিতির দাবি মেটাতেই বোলিং করেননি।

তাই বলে মাশরাফির কাছ থেকে প্রভাব বিস্তার করার মতো পারফরম্যান্স আসেনি বলে মোটেও হতাশ নন ওয়ালশ। শুক্রবার সংবাদ মাধ্যমকে কোর্টনি ওয়ালশ নিজের প্রতিক্রিয়া জানালেন এভাবে, ‘মাশরাফি কেমন লড়াকু সেটা আমরা সবাই জানি। অধিনায়ক হিসেবে সব সময় সে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। ক্যারিয়ারে বহুবার ভালো বোলিং করে ম্যাচ জিতিয়েছে। হৃদয় দিয়ে সে দলকে নেতৃত্ব দেয়। আমার মনে হয় ওকে নিয়ে খুব দ্রুতই সমালোচনা হচ্ছে।’

অনুশীলনেও মাশরাফির কথাতেই স্পষ্ট হলো-সমালোচনার আঘাতে কতটা বিধ্বস্ত তিনি! ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক শর্ট ফিল্ডিং অনুশীলন করাচ্ছিলেন। মাশরাফি তার একটি মিস করতেই এক পাশ থেকে আওয়াজ এলো- ‘আন্দ্রে রাসেলের ক্যাচ ফেলে দিলেন তো! এই ক্যাচ মিসেই সেমিফাইনাল থেকে আউট আপনারা।’ মাশরাফি কাছে এসে বললেন, ‘ক্যারিয়ার থেকেই তো আউট! মাশরাফি যে অভিমান করে কথাটা বলেছেন-সেটা নিশ্চিত ভাবেই বোঝা যাচ্ছে।’

মাশরাফি ছাড়াও ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে বোলিং আক্রমণ নিয়েও কথা বলেছেন ওয়ালশ্। ইংলিশ কন্ডিশনে শুধু গতিকেই প্রাধান্য দিতে নারাজ সাবেক ক্যারিবিয়ান এই পেসার। তার মতে গতির চেয়ে প্রাধান্য দেওয়া উচিত নিয়ন্ত্রণ, ধারাবাহিকতা ও বৈচিত্র্যে। বাংলাদেশ দলে দ্রুতগতির কোন পেসার নেই। এটা ভোগাচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ওয়ালশ বলেছেন, ‘গতি অনেক সময় দরকার হয়। কিন্তু সব সময় না। কিন্তু আমার কাছে ধারাবাহিকতা, নিয়ন্ত্রণ আর প্রয়োগ বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সবচেয়ে বড় কথা ধারাবাহিক হতে হবে। সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন বোলিং বৈচিত্র্য। ছেলেরা কঠোর পরিশ্রম করছে। আশা করি সামনে ভালো কিছুই হবে।’

বাংলাদেশের পেসাররা বিশ্বকাপে বলার মতো পারফরম্যান্স দেখাত পারেননি। মাশরাফির মতো মোস্তাফিজের পারফরম্যান্স সাদামাটা। সাইফউদ্দিন অবশ্য কিছুটা ভালো বোলিং করেছেন। গত তিন ম্যাচের পারফরম্যান্সের পর রুবেলকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে রুবেল থাকতে পারেন বলে ইঙ্গিত দিলেন ওয়ালশ, ‘নির্বাচকরা এটা ভালো বলতে পারবে। তবে রুবেল ভালো অবস্থায় আছে। টিম ম্যানেজমেন্ট তাকে নিয়ে ভাবছে। সবকিছু ঠিক থাকলে হয়তো দেখা যাবে তাকে। এখনো অনেকগুলো ম্যাচ আছে। হয়তো সামনেই সুযোগ আসবে।’

 

/এফআইআর/

লাইভ

টপ