ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের সেমিফাইনালে বৃষ্টির বাধা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:০৯, জুলাই ০৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০০, জুলাই ০৯, ২০১৯

বৃষ্টিতে মাঠ ছাড়ছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররাবিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে ভারত-নিউজিল্যান্ড। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা কিউইদের স্কোর ৪৬.১ ওভারে ৫ উইকেটে ২১১।

বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল ম্যানচেস্টারে। ম্যাচের শুরু থেকে আকাশ মেঘলা থাকলেও খেলা ঠিকঠাক ‍হচ্ছিলো। তবে নিউজিল্যান্ডের ইনিংসের শেষদিকে বৃষ্টি শুরু হয়েছে, তাই বন্ধ হয়ে গেছে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের সেমিফাইনালের খেলা।

বৃষ্টির বাগড়ায় ম্যাচ বন্ধ হওয়ার সময় ব্যাট করছিলেন রস টেলর (৬৭*) ও টম ল্যাথাম (৩*)। সেমিফাইনাল ও ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে রেখেছে আইসিসি। তাই ভারত-নিউজিল্যান্ড খেলা আজ (মঙ্গলবার) আর শুরু না হলে আগামীকাল (বুধবার) আবারও হবে।

ডি গ্র্যান্ডহোমকে ফেরালেন ভুবনেশ্বর

আক্রমণাত্মক শুরু ছিল কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের। নিউজিল্যান্ডের রান তোলার গতি বাড়ার ইঙ্গিতও ছিল তাতে। যদিও দ্রুতই আউট হয়ে গেছেন কিউই ব্যাটসম্যান।

ভুবনেশ্বর কুমারের খাটো লেন্থের স্লোয়ারে ঘায়েল ডি গ্র্যান্ডহোম। ভারতীয় পেসারের বল তার ব্যাট ছুঁয়ে গেলে সহজ ক্যাচ গ্লাভসবন্দী করতে কোনও অসুবিধাই হয়নি উইকেটরক্ষক মহেন্দ্র সিং ধোনির। আউট হওয়ার আগে কিউই ব্যাটসম্যান ১০ বলে ২ বাউন্ডারিতে করেন ১২ রান।

নিশাম আউট

বিপদের মুহূর্তে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছিলেন হার না মানা ৯৭ রানের ইনিংস। সেমিফাইনালের লড়াইয়ে জিমি নিশামের কাছে আরেকটি সেই রকম ইনিংস প্রত্যাশা ছিল। কিন্তু পারলেন না তিনি। ১২ রান করে ‍আউট হয়ে গেছেন নিশাম। হার্দিক পান্ডিয়ার বলে তিনি ধরা পড়েছেন দিনেশ কার্তিকের হাতে।

হাফসেঞ্চুরি করে উইলিয়ামসনের বিদায়

ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে দলকে টেনে তুলেছিলেন কেন উইলিয়ামসন। রান তোলার গতি বাড়াতে না পারলেও প্রতিরোধ গড়েছিলেন কিউই অধিনায়ক। তার সেই প্রতিরোধ ভাঙলেন যুজবেন্দ্র চাহাল। হাফসেঞ্চুরি করে আউট হয়ে গেছেন উইলিয়ামসন।

চাহালের বাঁক খাওয়া বলটি ঠিক বুঝে উঠতে পারেননি তিনি। ব্যাটে বল ঠিক জায়গায় লাগাতে না পারায় পয়েন্টে সহজ ক্যাচ দেন রবীন্দ্র জাদেজাকে। আউট হওয়ার আগে ৯৫ বলে ৬ বাউন্ডারিতে খেলে যান ৬৭ রানের কার্যকরী ইনিংস। উইলিয়ামসনের বিদায়ে ভাঙে রস টেলরের সঙ্গে তৃতীয় উইকেটে গড়া ৬৫ রানের জুটি।

উইলিয়ামসন-টেলরের প্রতিরোধ

শুরুটা মন্দ ছিল না হেনরি নিকোলসের। যাতে ছিল বড় ইনিংসের ইঙ্গিতও। যদিও কিউই ওপেনার বেশিদূর যেতে পারেননি। ২৮ রান করে রবীন্দ্র জাদেজার বলে বোল্ড হয়ে গেছেন তিনি।

তার আউটের পর প্রতিরোধ গড়েছেন কেন উইলিয়ামসন ও রস টেলর। তাদের ব্যাটে কিউইদের রান ছাড়িয়েছে ১০০। ইতিমধ্যে হাফসেঞ্চুরিও পূরণ করেছেন অধিনায়ক উইলিয়ামসন। ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে তুলে নিয়েছেন তিনি ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৩৯তম হাফসেঞ্চুরি।

গাপটিলের আউটের পর সাবধানী কিউইরা

এবারের বিশ্বকাপটা ভুলে যেতে ‍চাইবেন মার্টিন গাপটিল! শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কিউইদের উদ্বোধনী খেলায় ব্যাট হাসলেও পরের ম্যাচগুলোতে ধারাবাহিক ব্যর্থ এই ওপেনার। ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালেও একই চিত্র। ১৪ বলে মাত্র ১ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন তিনি।

শুরুতেই ধাক্কা খায় নিউজিল্যান্ড। চতুর্থ ওভারে তারা হারায় প্রথম উইকেট। জসপ্রিৎ বুমরাহর চমৎকার বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন গাপটিল। শুরু থেকেই সংগ্রাম করা এই ওপেনারের ব্যাট ছুঁয়ে যাওয়া বল স্লিপে দারুণ ক্যাচ নেন বিরাট কোহলি। তার আউটের পর সাবধানী ব্যাটিং করছেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও হেনরি নিকোলস। তাদের প্রতিরোধে ৫০ ছাড়িয়েছে নিউজিল্যান্ডের স্কোর।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ড

সেমিফাইনালে ভারতের বিপক্ষে টস জিতেছে নিউজিল্যান্ড। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

ভারতের একাদশে একটি পরিবর্তন। কুলদীপ যাদবের জায়গায় সুযোগ ‍পেয়েছেন আরেক স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহাল। কিউইদের একাদশেও বদল একটি। পেসার টিম সাউদিকে বসিয়ে নেওয়া হয়েছে আরেক পেসার লকি ফার্গুসনকে।

ভারত একাদশ: লোকেশ রাহুল, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), ‍ঋষভ পান্ত, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), দিনেশ কার্তিক, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, ভুবনেশ্বর কুমার, যুজবেন্দ্র চাহাল, জসপ্রিৎ বুমরাহ।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকোলস, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), রস টেলর, টম ল্যাথাম (উইকেটরক্ষক), জিমি নিশাম, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, ম্যাট হেনরি, লকি ফার্গুসন, ট্রেন্ট বোল্ট।

/কেআর/

লাইভ

টপ