ডোপ টেস্টে ব্যর্থ হয়ে নিষিদ্ধ পৃথ্বি

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:৪৩, জুলাই ৩০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৫, জুলাই ৩০, ২০১৯

পৃথ্বি শওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে গত বছর টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখেন পৃথ্বি শ। কিন্তু ইনজুরিতে ভারতের এই তরুণ সম্ভাবনাময়ী ওপেনার এখনও পরতে পারেননি রঙিন জার্সি। কোমড়ের চোটে পুনর্বাসনে থাকা পৃথ্বি আরও বড় ধাক্কা খেলেন। ডোপ টেস্টে ব্যর্থ হয়ে ৮ মাস নিষিদ্ধ হলেন ১৯ বছর বয়সী ওপেনার।

ডোপিং আচরণবিধি ভাঙায় ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব ধরনের প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটের বাইরে থাকবেন পৃথ্বি। এই শাস্তি কার্যকর হয়েছে ১৬ মার্চ থেকে। ইনজুরিতে ক্যারিবিয়ান সফর থেকে ছিটকে যাওয়া এই ওপেনার অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলতে পারবেন না। আর বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্টেও খেলা হবে না তার। নিষেধাজ্ঞার এই মেয়াদেই আইপিএলে খেলেছিলেন পৃথ্বি, দিল্লি ক্যাপিটালসের সঙ্গে। বিসিসিআই জানায়, এই সময়ের মধ্যে তার কোনও পারফরম্যান্স বা পুরস্কার যুক্ত হবে না নামের পাশে।

ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড এক বিবৃতিতে জানায়, পৃথ্বি ‘অসাবধানতাবশত একটি নিষিদ্ধ বস্তু গ্রহণ করেছে, যেটা সাধারণত কফের সিরাপে পাওয়া যায়।’ গত ২২ ফেব্রুয়ারি ইন্দোরে পাঞ্জাবের বিপক্ষে সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফি ম্যাচে বিসিসিইআইয়ের অ্যান্টি ডোপিং টেস্টিং প্রোগ্রামের অংশ হিসেবে প্রসাবের নমুনা দেন তিনি। নমুনা পরীক্ষা শেষে তাকে পাওয়া যায় টারবিউটালিনের উপস্থিতি। বিসিসিআই জানায়, টারবিউটালিন ওয়াডার নিষিদ্ধ বস্তুর তালিকায় আছে।

গত ১৬ জুলাই বিসিসিআইয়ের অ্যান্টি ডোপিং রুলস (এডিআর) ২.১ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী পৃথ্বিকে অভিযুক্ত করা হয়। এই আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ স্বীকার করেছেন ভারতীয় ওপেনার। কিন্তু তিনি দৃঢ় কণ্ঠে জানান, বুকে কফ জমে যাওয়ায় অসাবধানতাবশত ওষুধ খান তিনি।

পৃথ্বির ব্যাখ্যায় ‘সন্তোষ’ প্রকাশ করেছে ভারতের ক্রিকেট বোর্ড। তাই শাস্তির ব্যাপারে শিথিল থাকছে তারা। নিষেধাজ্ঞা নভেম্বরের মাঝামাঝিতে শেষ হলেও এই ক্রিকেটার ট্রেনিংয়ে ফিরতে পারবেন ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে। দ্য হিন্দু, ক্রিকইনফো

/এফএইচএম/

লাইভ

টপ