‘এখন ‍যেকোনও খেলোয়াড়ের দাম ১০০ মিলিয়ন ইউরো’

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:০৯, আগস্ট ২১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৯, আগস্ট ২১, ২০১৯

প্রথম ১০০ মিলিয়ন ইউরোর ‘ট্যাগ’ লেগেছিল গ্যারেথ বেলের নামের পাশে। সময় গড়ানোর সঙ্গে অর্থের প্রতিযোগিতা দিয়ে খেলোয়াড় কেনার খবর প্রায়ই শোনা যায় ইউরোপিয়ান ফুটবলে। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর মতে, এখন ‍যেকোনও খেলোয়াড়েরই দাম ১০০ মিলিয়ন ইউরো, আর সেটা বলার মতো পারফরম্যান্স না থাকার পরও!

এবারের গ্রীষ্মের দলবদলে চেলসি থেকে ১০০ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে এডেন হ্যাজার্ডকে দলে এনেছে রিয়াল মাদ্রিদ। অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ তার চেয়ে বেশি দাম ১২৫ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে এনেছে জোয়াও ফেলিক্সকে। বার্সেলোনা এই অ্যাতলেতিকো থেকেই ১২০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে সই করিয়েছে আন্তোয়ান গ্রিয়েজমানকে।

গত কয়েক মৌসুম ধরে ১০০ মিলিয়ন ইউরোর তাপ পাচ্ছে ইউরোপিয়ান ফুটবল। তবে সব খেলোয়াড়ই এত দামি কিনা, সেই প্রশ্ন তুলেছেন রোনালদো। একসময় তিনিই সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় হিসেবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে পাড়ি দিয়েছিলেন রিয়ালে। তার ৯৪ মিলিয়ন ইউরোর দলবদলে টিকে ছিল গ্যারেথ বেলের ট্রান্সফার হওয়ার আগপর্যন্ত। গত বছর রিয়াল ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দিয়েছেন পর্তুগিজ তারকা ১০০ মিলিয়ন ইউরোতে।

জুভেন্টাসে গিয়েও গোলের ধারা সচল রাখা রোনালদো এক টিভি চ্যানেলকে বলেছেন, ‘আধুনিক ফুটবলে হিসাব কষা খুব কঠিন। ক্লাবগুলো অনেক ক্ষেত্রে জুয়া খেলে, ফুটবল এখন ভিন্ন জায়গায়।’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘জোয়াও ফেলিক্সের বিষয়টি একপাশে রেখে আমি বলব, এখন যেকোনও খেলোয়াড়ের দাম ১০০ মিলিয়ন ইউরো, এমনকি সেটা হচ্ছে খেলোয়াড়ের কোনও কিছু প্রমাণ দেওয়ার আগেই।’

এবারের দলবদলে ডিফেন্ডার কেনার নতুন রেকর্ড গড়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ৮৮ মিলিয়ন ইউরোতে লিস্টার সিটি থেকে হ্যারি ম্যাগুইয়ারকে দলে ভিড়িয়েছে ‘রেড ডেভিলস’। সেই প্রসঙ্গ টেনে রোনালদো বললেন, ‘এখন একজন সেন্টার ব্যাক ও গোলরক্ষককে পেতে ক্লাব ৭০-৮০ মিলিয়ন খরচ করছে। আমি (এমন অর্থ খরচের সঙ্গে) একমত নই, যদিও আমরা এখন এর মধ্যেই বাস করছি, আর এটাকে আমাদের সম্মান দেখাতেই হবে।’ মার্কা

/কেআর/

লাইভ

টপ