ছোট ছোট বিষয়গুলোতে মনোযোগ জিম্বাবুয়ের

Send
রবিউল ইসলাম, চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত : ১৫:২৩, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:২৭, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

চট্টগ্রামে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন শন উইলিয়ামস। ত্রিদেশীয় সিরিজে টানা দুই ম্যাচ হেরে কোণঠাসা জিম্বাবুয়ে। সিরিজে টিকে থাকতে তৃতীয় ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই মাসাকাদজাদের। তাই ছোট ছোট বিষয়গুলোতে মনোযোগ দিয়ে বুধবার জয় তুলে নিতে চায় তারা। দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে ঘুরে দাঁড়ানোর এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করলেন অভিজ্ঞ ব্যাটিং অলরাউন্ডার শন উইলিয়ামস।

অবশ্য কোণঠাসা এই জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে উদ্বোধনী ম্যাচটিতে ছিল এসেছিল জয়ের পথে। মোসাদ্দেক-আফিফের ৮২ রানের অতিমানবীয় জুটিটা না হলে ত্রিদেশীয় সিরিজে চালকের আসনে থাকতো তারা! সে সময়ে মিস ফিল্ডিং, ক্যাচ মিসসহ ছোট ছোট কিছু ভুল ম্যাচ থেকে ছিটকে দেয় জিম্বাবুয়েকে। আগামী দুই ম্যাচে সেসব ভুল শোধরাতেই মনোযোগ থাকবে জিম্বাবুয়ের।

সেই লক্ষ্যে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সকালে অনুশীলন করেছে জিম্বাবুয়ে। অনুশীলন শেষ সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে শন উইলয়ামস জানালেন কালকের ম্যাচটায় ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া পুরো দল, ‘এই ম্যাচ আমাদের জিততেই হবে। শুধু তাই নয়, দুটো ম্যাচই আমাদের জিততে হবে। আমরা যদি মৌলিক কাজগুলো ঠিকঠাক করতে পারি- যেমন ফিল্ডিং, বোলিংসহ ছোট ছোট বিষয়গুলো। তাহলে আমাদের দুটি ম্যাচ জয়ের ভালো সম্ভাবনা আছে।’

হেরে যাওয়া ম্যাচ দুটিতে অবশ্য প্রতিপক্ষকে একেবারে ছেড়ে কথা বলেনি জিম্বাবুয়ে। তাই পরের ম্যাচে সিদ্ধান্তগুলো সঠিকভাবে নিলে জয় তুলে নেওয়া সম্ভব বলে মনে করেন তিনি, ‘আগের দুটি ম্যাচে আমরা উভয় দলকে কঠিন সময় দিয়েছি, শেষ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়েছি। সামনের ম্যাচে সময়মতো ভালো সিদ্ধান্ত নিতে পারলে জয়ের সম্ভাবনা থাকবে।’

উল্টো দিকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে হেরে চাপে আছে বাংলাদেশ। আর এই সুযোগটাই কাজে লাগাতে চায় জিম্বাবুয়ে, ‘আমরা যদি নিজেদের কাজ মন দিয়ে করতে পারি, বাকি সব নিজে থেকে ঠিক হয়ে যাবে। তারা (বাংলাদেশ) চাপে আছে, আমরা সেটা জানি। কিন্তু আমাদের মৌলিক বিষয়গুলো ঠিকঠাক করতে হবে। আগেই বলেছি, খেলার পার্থক্য গড়ে ছোট ছোট বিষয়গুলি। আমরা যদি কিছু বোলারদের ভালো খেলতে পারি, তাহলে সবসময়ই সুযোগ আছে। অসম্ভব কিছুই নয়।’

অবশ্য এসব প্রতিকূলতার মাঝেও বাংলাদেশকে সমীহ করেন এই অলরাউন্ডার। তাই বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা যেন শটস খেলতে না পারে সেদিকে আলাদা নজর থাকবে জিম্বাবুয়ের বোলারদের, ‘অবশ্যই ওদের দলে বড় কিছু নাম আছে। তবে বোলিংয়ের সময় কোনো নামকে মনে রেখে বোলিং করি না, নিজের পরিকল্পনা অনুসরণ করে তা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করি। অবশ্যই বাউন্ডারি না দেওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ। ওদের মতো ক্রিকেটারের বিপক্ষে ফিল্ডিং দারুণ গুরুত্বপূর্ণ। ওদের যদি বাউন্ডারি থেকে বিরত রাখা যায়, তাহলে চাপ সৃষ্টি করা যাবে।’

ছোট ছোট বিষয়গুলোর সঙ্গে দলের সিনিয়রদেরও আলাদা দায়িত্ব নিতে বললেন শন উইলিয়ামস। তাহলে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব বলে মনে করেন তিনি, ‘সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে আমরা দলের মেরুদণ্ড। আমাদের দায়িত্ব ওদেরকে শেখানো। পাশাপাশি আমাদের কয়েকজন এখনও প্রত্যাশামতো পারফর্ম করতে পারিনি। সিনিয়র গ্রুপ হিসেবে আমাদেরও নিজেদের মেলে ধরতে হবে। জুনিয়রদের সামনে অনুসরণীয় কিছু করতে হবে। সিনিয়রদের মধ্যে ক্রেইগ, আমি, ব্রেন্ডন- এগিয়ে আসতে পারলে, আমাদের ভালো সম্ভাবনা আছে।’

/এফআইআর/

লাইভ

টপ