ব্যাটসম্যান থেকে লেগস্পিনার বিপ্লব

Send
রবিউল ইসলাম, চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত : ১৯:৪৫, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:২৭, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯

জাতীয় দলের অনুশীলনে বিপ্লবত্রিদেশীয় সিরিজের চট্টগ্রাম পর্ব শুরু হওয়ার ঠিক আগে হঠাৎ পাঁচ ক্রিকেটারকে নেওয়া হয় বাংলাদেশ দলে। যেখানে আমিনুল ইসলাম বিপ্লবের নাম দেখে অনেকেই অবাক হয়েছিলেন। ইদানীং কোথাও ভালো খেলেননি, ছিলেন না আলোচনাতেও। পরে অবশ্য জানা যায়, একজন লেগস্পিনারের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে বিপ্লবকে দলে নিয়েছেন নির্বাচকরা। বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান হিসেবে খেললেও জাতীয় দলে তিনি এসেছেন লেগস্পিনিং অলরাউন্ডার হিসেবে।

বাংলাদেশের ৬৫ নম্বর ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হলো বিপ্লবের। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক না হলেও ১৯টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ এবং দুটি ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে তার। বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবে বেশ সফলও তিনি।

২০১৫ সালে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৭ দলের সঙ্গে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিবিএ) সিরিজে ব্যাট হাতে দারুণ সময় কেটেছিল বিপ্লবের। সেই সিরিজে তিনটি সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। শেষ ম্যাচে ৯৬ রান করে আউট না হলে সংখ্যাটা হতে পারতো চার। এরপর অনূর্ধ্ব-১৮ ক্রিকেটে ৭ ম্যাচে ৫৫০ রান করার পাশাপাশি ১৬টি উইকেট নিয়ে একটি টুর্নামেন্টে সেরা খেলোয়াড়ও হয়েছিলেন।

তবে বয়সভিত্তিক ক্রিকেট পেরোনোর পর বল করার তেমন সুযোগ পাননি। ১৯টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে লেগব্রেক বোলিংয়ে বিপ্লবের শিকার মাত্র তিন উইকেট। তবু তাকে দলে নেওয়ার কারণ বোলিং। গত মাসে দায়িত্ব নেওয়ার পর জাতীয় দলের প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো একজন লেগস্পিনার খুঁজছিলেন। হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের কোচ সাইমন হেলমটের দৃষ্টি আগে থেকেই ছিল বিপ্লবের ওপর। হেলমটই বাংলাদেশের কোচকে বুঝিয়েছেন বিপ্লব এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য প্রস্তুত।   

এ ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের সঙ্গে থেকে বিপ্লবের বোলিংয়ের ধার অনেকটাই বেড়েছে। কোচ এবং অধিনায়ক দলে একজন লেগস্পিনার চেয়েছিলেন। তাদের প্রত্যাশা পূরণ করে আমরা বিপ্লবকে দলে নিয়েছি। বিপ্লবের ব্যাটিংয়ের হাতও ভালো। তাকে স্পিনিং অলরাউন্ডার হিসেবে নেওয়া হয়েছে।’

বিপ্লবের বাবা আব্দুল কুদ্দুস সিএনজি অটোরিকশার চালক। ছেলেকে বড় ক্রিকেটার হিসেবে গড়ে তোলার আশায় ছোটবেলায় বিপ্লবকে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন বিখ্যাত কোচ ওয়াহিদুল গনির একাডেমিতে। মোহাম্মদ আশরাফুলের কোচের তত্ত্বাবধানে ২০০৮ সালে পল্লীমা ক্রিকেট একাডেমিতে ক্রিকেট দীক্ষা শুরু। ২০১২ সালে বিকেএসপিতে ভর্তি হওয়া বিপ্লব বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের ধাপ পেরিয়ে সুযোগ পান বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলে। আর এখন তিনি জাতীয় দলে। যদিও ব্যাটসম্যান নয়, লেগস্পিনার হিসেবে! লাল-সবুজ জার্সিতে অভিষেকটাও ভালো হয়েছে বিপ্লবের। আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৪ ওভারে মাত্র ১৮ রানের বিনিময়ে দুই উইকেট নিয়েছেন তিনি। 

/আরআই/এএআর/

লাইভ

টপ