রিয়ালের গোল উৎসব, শেষ ষোলোতে পিএসজি-জুভেন্টাস

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:৫৩, নভেম্বর ০৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৪, নভেম্বর ০৭, ২০১৯

2019-11-06T215639Z_443675042_RC2X5D9DFX9Z_RTRMADP_3_SOCCER-CHAMPIONS-MAD-GAL-REPORTচ্যাম্পিয়নস লিগে এবার গ্যালাতাসারাইকে গোল বন্যায় ভাসালো রিয়াল মাদ্রিদ। বুধবার রোদ্রিগোর হ্যাটট্রিকে তুর্কি ক্লাবকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ১৩ বারের চ্যাম্পিয়নরা। এদিন শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে প্যারিস সেন্ত জার্মেই ও জুভেন্টাস। নকআউট নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন মিউনিখও।

দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে চতুর্থ মিনিটে রিয়ালকে এগিয়ে দেন রোদ্রিগো। ইউরোপের শীর্ষ মঞ্চে প্রথম গোল করার কিছুক্ষণ পরই দ্বিতীয়বার লক্ষ্যভেদ করেন ১৮ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। মার্সেলোর ক্রস থেকে সপ্তম মিনিটে চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসে দ্রুততম জোড়া গোলের রেকর্ড গড়েন রোদ্রিগো।

এতেও ক্ষান্ত হয়নি রিয়াল। ১৩ মিনিটে তিন গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা, সের্হিয়ো রামোসের পেনাল্টি থেকে। বিরতিতে যাওয়ার আগে করিম বেনজিমা লক্ষ্যভেদ করেন রোদ্রিগোর দারুণ অ্যাসিস্টে। ৮১ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করে চ্যাম্পিয়নস লিগে রিয়ালের জার্সিতে ৫০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। রিয়াল গ্রেট আলফ্রেদো দি স্তেফানোকে পেছনে ফেলে টুর্নামেন্টে স্প্যানিশ ক্লাবটির তৃতীয় শীর্ষ গোলদাতার আসনে বসেন বেনজিমা।

2019-11-06T202403Z_452072255_RC2W5D91AVFD_RTRMADP_3_SOCCER-CHAMPIONS-PSG-BRU-REPORTকিন্তু চ্যাম্পিয়নস লিগে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে অভিষেকের রাতটা নিজের করে নেন রোদ্রিগো। ইনজুরি সময়ের চতুর্থ মিনিটে হ্যাটট্রিক করেন তিনি। বেনজিমার সঙ্গে ওয়ান-টু পাসে রাউলের পর দ্বিতীয় সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে এই কীর্তি গড়েন রোদ্রিগো।

‘এ’ গ্রুপের প্রথম দুই ম্যাচে মাত্র ১ পয়েন্ট পাওয়া রিয়াল চতুর্থ ম্যাচ শেষে ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে। মাউরো ইকার্দির ২১ মিনিটের লক্ষ্যভেদে ক্লাব ব্রুজকে ১-০ গোলে হারিয়ে এই গ্রুপ থেকে নকআউটের টিকিট কেটেছে পিএসজি। ৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট তাদের। পরের ম্যাচে রিয়ালের মাঠে নামবে ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা।

বদলি খেলোয়াড় ডোগলাস কস্তার চমৎকার গোলে শেষ মুহূর্তে জয় পেয়েছে জুভেন্টাস। ২-১ গোলে তারা জিতেছে লোকোমোতিভ মস্কোর মাঠে। এই জয়ে ২ ম্যাচ হাতে রেখে ‘ডি’ গ্রুপ থেকে শেষ ষোলোতে জুভরা।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর শক্তিশালী ফ্রি কিক লোকোমোতিভ গোলকিপার গুইলেরমে বল পা দিয়ে আটকাতে পারেননি, তাতে গোললাইনের সামনে থেকে চতুর্থ মিনিটে জুভেন্টাসকে এগিয়ে দেন অ্যারন রামজি। ৮ মিনিট পর স্বাগতিকরা সমতায় ফেরে। অ্যালেকসেই মিরানচুক তার হেড পোস্টে লাগলে ফিরতি শটে গোল করেন তিনি।

2019-11-06T194920Z_1561077199_RC2V5D93FDNM_RTRMADP_3_SOCCER-CHAMPIONS-LMO-JUV-REPORTম্যাচ ড্রর দিকেই যাচ্ছিল। তবে গনসালো হিগুয়েইনের সঙ্গে ওয়ান-টু পাসে চমৎকার গোলে জয় নিশ্চিত করেন কস্তা। ৪ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে জুভেন্টাস। একই দিন বায়ার লেভারকুসেনের মাঠে ২-১ গোলে হেরে গেছে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। ৭ পয়েন্টে দ্বিতীয় স্থানে স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

অলিম্পিয়াকোসকে ২-০ গোলে হারিয়ে ‘বি’ গ্রুপ থেকে শেষ ষোলোতে উঠেছে বায়ার্ন। ৬৯ মিনিটে রবার্ট লেভানদোভস্কি ও ৮৯ মিনিটে ইভান পেরিসিচ করেন গোল। ৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট তাদের। সন হিউং মিনের জোড়া গোলে টটেনহাম হটস্পার ৪-০ গোলে হারিয়েছে রেড স্টার বেলগ্রেডকে, ৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে তারা।

এগিয়ে থেকেও ১০ জনের ম্যানচেস্টার সিটি হোঁচট খেয়েছে আতালান্তার মাঠে। ‘সি’ গ্রুপের শীর্ষে থাকলেও ১-১ গোলের এই ড্রয়ে শেষ ষোলোর জন্য অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে সিটিজেনদের।

লেভানদোভস্কির গোল৭ মিনিটে রহিম স্টাররিংয়ের গোলে এগিয়ে যায় তারা। বিরতির পর চতুর্থ মিনিটে মারিও পাসালিচের গোল সমতায় ফেরায় স্বাগতিকদের। শেষ দিকে বড় বিপদে পড়েছিল ম্যানসিটি। গোলকিপার ক্লাউদিও ব্রাভো সরাসরি লাল কার্ড দেখলে শেষ ৯ মিনিট ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকার সামলান গোলপোস্ট। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে গোল আদায় করতে পারেনি আতালান্তা।

৪ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ম্যানসিটি। গ্রুপের আরেক ম্যাচে ৬ গোলের থ্রিলারে ৩-৩ গোলে ড্র করেছে ডায়নামো জাগরেব ও শাখতার দোনেৎস্ক। দুই দলেরই সমান ৫ পয়েন্ট। তবে গোলব্যবধানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় স্থানে শাখতার।

/এফএইচএম/

লাইভ

টপ