সোহানকে পেয়ে রোমাঞ্চিত মাশরাফি

Send
রবিউল ইসলাম, খুলনা থেকে
প্রকাশিত : ১৯:৫২, জানুয়ারি ১৫, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৫৭, জানুয়ারি ১৫, ২০১৬

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ৪৯তম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে শুক্রবার অভিষেক হয় নুরুল হাসান সোহানের। এই উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান তার অভিষেক ম্যাচেই প্রশংসা কুড়িয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফির। সেই সঙ্গে মাশরাফি বলেছেন সোহানের মতো ক্রিকেটার পেয়ে তিনিও খুব রোমাঞ্চিত। সোহান কিপিংয়ে দুটি রান আউটের পাশাপাশি ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ব্যাট হাতে অপরাজিত থাকেন ৭ রানে।26

মাশরাফি বলেন, ‘সোহানের কিপিং তো আউটস্ট্যান্ডিং। মুশিও খুব ভালো। তবে সোহান প্রথম ম্যাচ, ভালো করেছে। কিপিংয়েও দারুণ রিল্যাক্সড ছিল। সামনে এসে কিপিং করেছে। ওর স্ট্রেংথগুলোয় সে আপ টু দ্য মার্ক ছিল।’

পুরো সময় সতীর্থদের সতেজ রাখতে একজন উইকেট কিপারে ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। এ প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, ‘নুরুল এখনও অনেক তরুণ। কম বয়সে সুযোগ পেয়েছে, এখন অবশ্যই ওর সেই তাড়না আছে। মাঠে ছুটোছুটি করে সবাইকে সক্রিয়া রাখা, এই ব্যাপারগুলি ওর কাছ থেকে আমরা আশা করি। ওকে এজন্যই দলে নেওয়া হয়ছে। ওর যেটা কাজ ছিল সেটা ঠিকমতোই করতে পেরেছে। আশা করি এটা ধরে রেখে ভবিষ্যতে বাংলাদেশের জন্য আরও ভালো কিছু করবে।’

ব্যাটসম্যান হিসেবে কেমন করেছেন সোহান? এ প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, ‘ওই সময় তার যা করা উচিত ছিল সেটা সে খুব ভালোভাবেই করতে পেরেছে। সাকিব ছিল স্ট্রাইকে, সোহানের কাজ ছিল স্ট্রাইক রোটেট করা। সে তাই করেছে। এমন সময়ে রিল্যাক্সড থাকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ওকে দেখে মনে হয়েছে খুব রিল্যাক্সড ছিল। তবে প্রথম ম্যাচেই বিচার করা কঠিন। তবে তার মতো ক্রিকেটারকে পেয়ে আমি রোমাঞ্চিত।’

তবে মুশফিককে সরিয়ে সোহানকে কিপিংয়ে আনার সিদ্ধান্ত সহজ ছিলো না বলে জানান মাশরাফি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মুশফিক শেষ ৮-১০ বছর ধরে সব ধরনের ক্রিকেটে কিপিং করছে। হয়তবা কোনও ম্যাচে মুশফিক আবার কিপিং করবে। সবসময় একই থাকবে না।’

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে আল আমিন হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমানের বোলিং নিয়ে সন্তুষ্টি ঝরেছে মাশরাফির কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘আল আমিন চাকিংয়ে ধরা পড়ার আগে আমাদের সেরা টি-টোয়্টে বোলার ছিল, গত বিশ্বকাপেও ছিল। ডেথ ওভারে বরাবরই সে সেরাদের একজন। মুস্তাফিজ তো বরাবরই আনপ্লেয়েবল।'

/এমআর/

লাইভ

টপ