মাশরাফিতে মুগ্ধ ধর্মশালার অমিত

Send
রবিউল ইসলাম, ধর্মশালা থেকে
প্রকাশিত : ১৯:৪৩, মার্চ ১১, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪৬, মার্চ ১১, ২০১৬

মাঝে ধর্মশালার অমিত।বাংলাদেশ ক্রিকেটের ভক্ত এখন পুরো বিশ্বব্যাপী। গত দেড় বছরে এটা আরও বেড়েছে। আগে সাকিবকে ঘিরেই ছিল বাংলাদেশের ক্রিকেট পরিচিতি। তবে এখন শুধু সাকিবকে ঘিরে নয়; মাশরাফি-মুস্তাফিজদের মাধ্যমে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সুনাম ছড়িয়ে পড়ছে সাড়া বিশ্বেই।
ক্রিকেট খুব একটা জনপ্রিয় নয় ধর্মশালা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। তারপরও কিছু লোক ক্রিকেটের খোঁজ খবর রাখেন। বিশ্বব্যাপী তারকা ক্রিকেটারদের নিয়ে তাদের মনের মধ্যে রোমাঞ্চ কাজ করে। তবে অদ্ভূত হলেও সত্য ভারতীয় দলে যেখানে মহাতারকার সমারোহ; সেখানে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ভক্ত খুঁজে পাওয়া দুষ্করও বটে। কিন্তু এই সম্ভাবনা মিথ্যা করে দিয়ে ধর্মশালাতে মাশরাফি এক ভক্তের সন্ধান পাওয়া গেলো। নাম তার অমিত। তিনি ধর্মশালার অপো মোবাইল ফোনের শো রুমে সেলসম্যান হিসেবে কাজ করেন। মাশরাফিতে দারুণ মুগ্ধ তিনি।

বাংলাদেশের অনেকের কাছেই মাশরাফি যেমন এখন কিংবদন্তি, অমিতের কাছেও তাই। পাহাড়ঘেরা ধর্মশালায় তাই ক্রিকেট জনপ্রিয় না হলেও অমিতের কাছে মাশরাফি রীতিমতো দূর আকাশের তারা। যে তারা ছোঁয়ার আনন্দে আত্মহারা এই ভারতীয় ‘ম্যাশভক্ত’।

ভাগ্যক্রমে বাংলাদেশ-নেদারল্যান্ডস ম্যাচে ধর্মশালার হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে এসেছিলেন অমিত। তার সুযোগ হয়েছিল সেখানে টসের সময় মাঠে উপস্থিত থাকার। মাশরাফিকে কাছে পেয়েই আবদার ধরে বসেন ছবি তোলার। মাশরাফিও না করেননি।

কথা প্রসঙ্গে দারুণ সেই অভিজ্ঞতা খুব আগ্রহ নিয়েই বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন অমিত। তিনি বলেন, ‘আপনাদের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার সঙ্গে দেখা হয়েছিল হিমাচল স্টেডিয়ামে। যেদিন নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে আপনাদের দল খেলেলো। টস করতে গিয়ে মাশরাফিকে সামনে পাই। সুযোগটা হাতছাড়া করিনি। একটি সেলফি তুলে নিয়েছি। সেলফি তোলার কথা বলতে উনিই এগিয়ে আসেন। পরে নেদারল্যান্ডস অধিনায়কও যোগ দেন।’

একটি ছবি তুলেই মাশরাফিকে অসাধারণ এক মানুষ- সার্টিফিকেট দিয়ে দিলেন ধর্মশালার এই ক্রিকেট সমর্থক। তিনি বলেন, ‘মাশরাফি অসাধারণ একজন ভালো মানুষ। খুবই আন্তরিক। তার মধ্যে কোনও অহংকার নেই। না হলে এতো বড় তারকা হয়েও সে নিজ থেকেই ছবি তুলতে এগিয়ে আসে? আমি তাকে খুবই পছন্দ করি। বলতে পারেন তার খুব বড় ভক্ত আমি। আর ছবি তোলার পর আরও বড় ভক্ত হয়ে গেছি। তার জন্য সব সময় প্রার্থনা করবো। সেই সঙ্গে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সাফল্যও কামনা করছি।’

/এফআইআর/

লাইভ

টপ