কানাডায় শুরু হলো ক্রিয়েটিভ কমন্স সামিট

Send
নুরুন্নবী চৌধুরী, টরন্টো (কানাডা) থেকে
প্রকাশিত : ১৮:৩৭, এপ্রিল ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৪৬, এপ্রিল ১৪, ২০১৮

ক্রিয়েটিভ কমন্সের (সিসি) বার্ষিক সম্মেলনে বক্তারাবিভিন্ন ধরনের সৃজনশীল লাইসেন্স দেওয়ার অলাভজনক প্রতিষ্ঠান ক্রিয়েটিভ কমন্সের (সিসি) বার্ষিক সম্মেলন শুরু হলো। কানাডার টরন্টোর ডেলটা টরন্টো হোটেলে শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) এর উদ্বোধন করেন ক্রিয়েটিভ কমন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রায়ান মার্কলে। চলবে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত।

এবারের সম্মেলনে থাকছে ১৯২টি বিভিন্ন সেশন। এর মধ্যে রয়েছে ১১০টি বিশেষ সেশন, তিনটি মূল আলোচনা ও বিভিন্ন বিষয়ে আলাদা সেশন।
প্রথম দিনেই ছিল বিভিন্ন ধরনের সেমিনার ও কর্মশালা। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য— সিসি নেটওয়ার্ক স্ট্র্যাটেজি, শিক্ষা বিষয়ক কনটেন্টের জন্য কপিরাইট বিষয়ের প্রয়োজনীয়তা, হিউমেন্স অব দ্য কমন্স, গ্যালারি, লাইব্রেরি, আর্কাইভস, মিউজিয়াম (জিএলএএম) রাইটস, থ্রিডি প্রিন্টিং এবং ওপেন ইনোভেশন, শিক্ষা, লাইব্রেরি ও সরকারের জন্য সিসি সার্টিফিকেশন ইত্যাদি।

ক্রিয়েটিভ কমন্সের সিইও রায়ান মার্কলে বলেন, ‘সারাবিশ্বে উন্মুক্ত লাইসেন্সকে ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ করে যাচ্ছে সিসি। এ বিষয়ে সহযোগিতা করছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের স্থানীয় কমিউনিটির সদস্যরা। বিভিন্ন খাতে শিক্ষা নিয়ে উন্মুক্ত কন্টেন্টের বিষয়ে বিশেষ নীতিমালা তৈরিতেও কাজ করছি আমরা।’

সম্মেলনের প্রথম দিনে বিশেষ কি-নোট উপস্থাপন করেন উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ক্যাথেরিন মাহের। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বাংলাদেশে যাওয়ার ইচ্ছে আছে। হয়তো কোনও সম্মেলন উপলক্ষে আপনাদের দেশে যাবো।’

বিশেষ আলোচনায় মুক্ত কনটেন্ট, এর ব্যবহার ও নীতিমালার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন উন্মুক্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান মজিলার নির্বাহী পরিচালক মার্ক সারমেন, উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ক্যাথেরিন মাহের ও সিসি’র প্রধান নির্বাহী রায়ান মার্কলে।

ক্রিয়েটিভ কমন্সের (সিসি) বার্ষিক সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীরাসম্মেলনে বাংলাদেশে ওপেননেস কার্যক্রম ও কীভাবে ওপেন পলিসি এই কাজে সহায়তা করতে পারে, সেই বিষয়ে ছিল বিশেষ আয়োজন। এ আলোচনা পরিচালনা করেন উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেসের ডিন অধ্যাপক মোস্তফা আজাদ কামাল। চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে এই সম্মেলনে তার পাশাপাশি যোগ দিয়েছেন এই প্রতিবেদক।

প্রথম দিনের আয়োজনে সবশেষে ছিল নারীদের উন্মুক্ত লাইসেন্সের বিশেষ উদ্যোগ ‘আনকমন ওমেন’-এর বিশেষ অনুষ্ঠান। এ ধরনের কাজে নারীদের নেতৃত্ব ও অ্যাডভোকেসি করার বিষয় নিয়ে কথা বলেন সম্মেলনে আসা নারীরা।

সম্মেলন স্থলে ‘উইকি লাভস মনুমেন্টস ২০১৭’র সেরা ১০টি ছবির বেশ কয়েকটির প্রদর্শনী হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশেরও একটি ছবি। ক্রিয়েটিভ কমন্স সামিট বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে https://summit.creativecommons.org/ ঠিকানায়।

/জেএইচ/

লাইভ

টপ