নানা আয়োজনে শেষ হলো উইকিম্যানিয়া

Send
নুরুন্নবী চৌধুরী, কেপটাউন (দক্ষিণ আফ্রিকা) থেকে
প্রকাশিত : ১৮:৪৭, জুলাই ২৩, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৫, জুলাই ২৩, ২০১৮

 ​উইকিম্যানিয়ায় অংশগ্রহণকারী ৬১ দেশের সদস্যরা। ছবি: উইকিমিডিয়া কমন্স

২০১৯ সালে সুইডেনে ১৫তম উইকিম্যানিয়া সম্মেলনের ঘোষণার মধ্য দিয়ে শেষ হলো চলতি বছরের উইকিম্যানিয়া সম্মেলন। সম্মেলনের শেষ দিন ২৩ জুলাই সমাপনী পর্বে বিশেষ বক্তব্য রাখেন উইকিপিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা জিমি ওয়েলস।

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ভাবে উইকিপিডিয়া শুধুমাত্র নির্ভরযোগ্য কনটেন্ট তৈরিতেই সীমাবদ্ধ নয় এখন। নানা ধরনের ওপেন মুভমেন্ট এবং উন্মুক্ত দুনিয়ায় পথ রোধ করে এমন কার্যক্রমগুলোর ক্ষেত্রেও উইকিপিডিয়ার কর্মীরা একসঙ্গে কাজ করছে।’ পরে তিনি চলতি বছরের বর্ষসেরা উইকিমিডিয়ান হিসেবে রাশিয়ার ফরহাদ ফাতকুলিনের নাম ঘোষণা করেন। এছাড়াও বর্ষসেরা উইকিমিডিয়ান (বিশেষ সম্মাননা) হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন বাংলাদেশের সক্রিয় উইকিপিডিয়া সম্পাদক নাহিদ সুলতান এবং ইংরেজি উইকিপিডিয়া সম্পাদক জেস ওয়েড।

এ স্বীকৃতি পাওয়ার পর নাহিদ সুলতান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এটা সত্যিকার অর্থেই বড় একটা অর্জন। আশা করছি উইকিপিডিয়ার নানা বিষয়গুলো আরও বেশি ছড়িয়ে দিতে কাজ করে যেতে পারবো। ’

এর আগে সম্মেলনের শেষ দিনের প্রথম পর্বে এমআইটি ল্যাবের আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) গবেষক ড. জয় ভোলামউইনি ‘দ্য ডেঞ্জারাস অব সুপ্রিমি হোয়াইট ডেটা অ্যান্ড দ্য কোডেড গ্যাজ’ শীর্ষক বিশেষ প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এতে তিনি এআই ব্যবহারের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের তথ্য প্রকাশ এবং সেগুলোর ভিন্ন ভিন্ন ব্যবহার নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। জর্জিয়া ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি থেকে স্নাতক সম্পন্ন করা জয় অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি স্নাতকোত্তর এবং এমআইটি থেকে এআই বিষয়ে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। আর পরবর্তীতে এমআইটি মিডিয়া ল্যাবে এআই নিয়ে গবেষণা শুরু করেন। নিজের উপস্থাপনা শেষে তিনি অংশগ্রহণকারীদের নানা প্রশ্নের উত্তর দেন।

বর্ষসেরা উইকিমিডিয়ান (বিশেষ সম্মাননা) প্রাপ্ত বাংলাদেশি উইকিপিডিয়া সম্পাদক নাহিদ সুলতান। ছবি: উইকিমিডিয়া কমন্স

এছাড়া উইকিপিডিয়া জেন্ডার গ্যাপ নিয়ে বিশেষ সেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শেষ দিনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভাষা সংরক্ষণের বিশেষ উদ্যোগ ‘উইকি ট্যাংস’ নিয়েও বিশেষ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উল্লেখ করা হয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভাষা সংরক্ষণের অভাবে হারিয়ে যাচ্ছে। আর ভাষা সংরক্ষণ এবং সেগুলোকে উন্মুক্ত লাইসেন্সে ছড়িয়ে দিতে কাজ করছে উইকি ট্যাংস। বাংলাদেশেও বিভিন্ন ভাষা সংরক্ষণে উইকিট্যাং প্রকল্পটি কাজ করবে। এ বিষয়ে উইকিট্যাংসয়ের পরিচালক ডেনিয়েল বোগরে উডেল বলেন,‘ধারণা করা হচ্ছে আগামী ১৮ বছরের মধ্যে সারাবিশ্বের ৩ হাজার ভাষা হারিয়ে যাবে। আমরা সেটা চাই না। ভাষা এমন একটা জিনিস যা সংরক্ষিত থাকা উচিত।’ বাংলাদেশেও ভাষা সংরক্ষণে উইকিট্যাংকস কাজ করবে বলেও জানান ডেনিয়েল।

সমাপনী অনুষ্ঠানে আফ্রিকার ঐতিহ্যবাহী গান পরিবেশন করেছেন দেশটির একদল শিল্পী। পরে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ক্যাথেরিন মাহের সম্মেলন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন কমিটি ও সদস্যদের ধন্যবাদ জানান। তিনি বিশেষ ভাবে প্রোগ্রাম কমিটির সদস্যদের নাম উল্লেখ করেন। এ কমিটিতে বাংলাদেশ থেকে এ প্রতিবেদক সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। সম্মেলন শেষে আগামী বছরের উইকিম্যানিয়া উপলক্ষে বিশেষ প্রেজেন্টেশন করেন উইকিমিডিয়া সুইডেনের পরিচালনা পর্ষদ সদস্যরা।

/টিএন/

লাইভ

টপ