এত কিছুর পরও বাড়ছে ফেসবুক ব্যবহারকারী

Send
আসির আহবাব নির্ঝর
প্রকাশিত : ১৯:৫২, জানুয়ারি ৩১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৫২, জানুয়ারি ৩১, ২০১৯

ফেসবুকগত বছরটা ফেসবুকের খুব খারাপ গেছে। একের পর এক তথ্য চুরি ও ফাঁসের কেলেঙ্কারি বেকায়াদায় ফেলেছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটিকে। এ কারণে বছরজুড়ে সমালোচিতও হয়েছে তারা। সমালোচনা করে কেউ কেউ এটাকে বিষাক্ত মাধ্যমও বলেছে।
তারপরও থেমে নেই ফেসবুকের অগ্রযাত্রা। ২০১৭ সালের চেয়ে ২০১৮ সালে ফেসবুকের ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে। অর্থাৎ কোনও সমালোচনাই প্রতিষ্ঠানটির গ্রাহক কমাতে পারেনি। ফেসবুকের দেওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, ২০১৭ সালের তুলনায় ২০১৮ সালে মাসে অন্তত একবার হলেও ফেসবুকে প্রবেশ করেছে এমন ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে ৯ শতাংশ। গত বছর সব মিলিয়ে ফেসবুকের ব্যবহারকারী ছিল ২ দশমিক ৩২ বিলিয়ন।
ফেসবুকের গ্রাহক সংখ্যা সবচেয়ে বেশি বেড়েছে ভারত, ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার ব্যবহারকারীর সংখ্যা স্থিতিশীল আছে। যদিও এর আগে বলা হয়েছিল, কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্রের ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেক কমে যাবে।
এতো নেতিবাচক সব কারণে ধারণা করা হচ্ছিল ফেসবুকের আয় কমে যাবে। কিন্তু এটাও ভুল প্রমাণ হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির বার্ষিক রাজস্ব আয় বেড়েছে ৩০ শতাংশ। ২০১৮ সালে ফেসবুকের মুনাফা হয়েছে ২২ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার যা ২০১৭ সালের চেয়ে ৩৯ শতাংশ বেশি। বর্তমানে ফেসবুকের তথ্য ব্যবহার নিয়ে অনেক আলোচনা চলছে। বলা হচ্ছে, ব্যবসার স্বার্থে গ্রাহকের সব তথ্য বিজ্ঞাপনদাতাদের দিয়ে দেয় ফেসবুক। এমন আলোচনার মধ্যেই ফেসবুকের রাজস্ব আয় বৃদ্ধির খবর এলো।

অবশ্য গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে ফেসবুকের আর্থিক অবস্থা খুব একটা ভালো ছিল না। তখন গুঞ্জন ওঠে, গত দুই বছরের তুলনায় ২০১৮ সালে ফেসবুকের আয় কমে যাবে। ফলে শেয়ারের দর হারায় ফেসবুক। পরবর্তীতে বিভিন্ন রাজস্ব বিশ্লেষণকারী প্রতিষ্ঠানের পূর্বাভাসের কারণে আবারও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে প্রতিষ্ঠানটি। এদিকে চলতি বছর বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়ার কথা জানিয়েছেন মার্ক জাকারবার্গ। এ কারণে ২০১৯ সালে আয় অনেক বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

/এইচএএইচ/

লাইভ

টপ