`ডিজিটাল কমার্স তরুণদের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছে'

Send
টেক রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৪২, মে ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪২, মে ১৭, ২০১৯

ই-কমার্স মেলা পরিদর্শনে মন্ত্রীডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন,‘দেশে তথ্যপ্রযুক্তির অভাবনীয় অগ্রগতির ফলে ব্যবসা বাণিজ্যের প্রচলিত পদ্ধতিটি সম্পূর্ণরূপে ডিজিটাল হবে এবং সেদিনটি খুবই কাছে। আগামী দু’এক বছর পর ডিজিটাল কমার্সের আওতায় কোনটা নেই সেটা খুঁজতে হবে। বাণিজ্যের ডিজিটাল এই রূপান্তর তথা ডিজিটাল কমার্স তরুণদের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছে।’

মন্ত্রী শুক্রবার (১৭ মে) ঢাকায় জিপিওতে ডাক অধিদফতর এবং ই-কমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত দু’দিনব্যাপী ই-কমার্স মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের হাজার হাজার তরুণ-তরুণী ই-কমার্সে সংযুক্ত হয়ে এই খাতে সফলতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছেন। এই খাতের চ্যালেঞ্জের জায়গাগুলো যা ছিল তার প্রায় সবগুলোই অতিক্রান্ত হয়েছে। বড় চ্যালেঞ্জটি ছিল পণ্য গ্রাহক পর্যায়ে নিরাপদে পৌঁছানো। ডাক অধিদফতরের ৪৩ হাজার কর্মীবাহিনী এবং গ্রাম পর্যন্ত বিস্তৃত ডাক অধিদফতরের বিশাল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে সেটাও সফলভাবে অতিক্রম করা হয়েছে।’

মন্ত্রী ডিজিটাল ব্যবসার প্রসারে ট্রেড বডির একটি বড় ভুমিকা থাকে উল্লেখ করে বলেন, ‘ই-ক্যব সদসরা গ্রাহকদের সঙ্গে যাতে কোনও প্রকার প্রতারণা করতে না পারে, গ্রাহক সন্তষ্টি যাতে নিশ্চিত করা যায় এক্ষেত্রে ই-ক্যাবকে ভুমিকা রাখতে হবে।’

অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস, ডাক অধিদফতরের মহাপরিচালক সুধাংশু শেখর ভদ্র, সাবেক মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার মণ্ডল, ই-ক্যাব সভাপতি শমী কায়সার, সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াহেদ তমাল এবং দারাজের প্রধান নির্বাহী সৈয়দ মোস্তাহিদুল হক বক্তৃতা করেন।

মেলায় মোট ৮০টি স্টল স্থান পেয়েছে।

/এইচএএইচ/

লাইভ

টপ