Vision  ad on bangla Tribune

ফেসবুককে কিনতে চেয়েছিল যেসব প্রতিষ্ঠান

দায়িদ হাসান মিলন১৬:৪২, জানুয়ারি ১৩, ২০১৬

ফেসবুক

ফেসবুক বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। বর্তমানে এর মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১৫০ কোটিরও বেশি। ডেভিড কার্কপ্যাট্রিক তার দ্য ফেসবুক ইফেক্ট বইটিতে ফেসবুক সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন।

শুরুর দিক থেকে ফেসবুক বেশ জনপ্রিয় এবং অন্যান্য কোম্পানির লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয় বলে তিনি তার বইয়ে উল্লেখ করেন। ফলে তারা ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গকে বিভিন্ন অংকের টাকার বিনিময়ে প্রতিষ্ঠানটিকে বিক্রি করে দিতে প্রলোভন দেখান। অবশ্য জাকারবার্গ বারবারই সফলতার সঙ্গে এসব প্রলোভন প্রত্যাখ্যান করেছেন।

অনেক প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন সময় ফেসবুককে কিনতে আগ্রহী ছিল। এরকম কয়েকটি প্রতিষ্ঠান হলো-

১. একেবারে শুরুর দিকে, ২০০৪ সালে ফেসবুক যখন ‘দ্য ফেসবুক ডট কম’ নামে পরিচিত ছিল তখনও এটি বেশ জনপ্রিয় ছিল। ফলে তখনই এটা কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করে নিউ ইয়র্কের একটি প্রতিষ্ঠান। শুরুর এই অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই ফেসবুককে কেনার জন্য প্রতিষ্ঠানটি ১০ মিলিয়ন ডলার প্রস্তাব করে। এসময় ফেসবুকের বয়স ছিল মাত্র ৪ মাস।

২. ফ্রেন্ডস্টার নামক প্রতিষ্ঠান ফেসবুককে কেনার চেষ্টা করেছিল। তারা বিভিন্ন প্রস্তাবও দিয়েছিল। তবে সেগুলোতে কাজ হয়নি।

৩. ২০০৪ সালের গ্রীষ্মে ফেসবুককে কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করে গুগল। এসময় গুগলের বেশ কয়েকজন এক্সিকিউটিভ ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যায়। তবে শেষ পর্যন্ত সে আলোচনা ফলপ্রসূ হয়নি।

৪. ২০০৫ সালের মার্চে ভিয়াকম নামের একটি প্রতিষ্ঠান ফেসবুককে কিনতে মরিয়া হয়ে ওঠে। এসময় তারা ফেসবুককে ৭৫ মিলিয়ন ডলার প্রস্তাব করে।

৫. ফেসবুককে কেনার চেষ্টা থেকে বাদ যায়নি ইয়াহু-ও। ২০০৬ সালে তারা ফেসবুককে কেনার জন্য বেশ আগ্রহী হয়ে উঠে। সেসময় তারা ১ বিলিয়ন ডলারের একটি প্রস্তাব দেয়। তবে ফেসবুক সেটাতে সাড়া দেয়নি। পরবর্তীতে আবারও তারা ফেসবুককে কেনার জন্য ১ বিলিয়ন ডলারের বেশি অংকের অর্থ প্রস্তাব দেয়। ফেসবুক তাতেও সাড়া দেয়নি।

এগুলো ছাড়াও মাইস্পেস, এনবিএল, এওএল, মাইক্রোসফট ইত্যাদি প্রতিষ্ঠান ফেসবুককে কিনতে বিভিন্ন সময় প্রস্তাব দেয়।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

/এইচএএইচ/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ