behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণ গণশুনানিতে অংশ নিলেন ৯৮ জন

টেক রিপোর্ট১৬:২১, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৬

গণশুনানি

মোবাইলফোন অপারেটর রবি ও এয়ারটেলের একীভূত হওয়া নিয়ে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হলো টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসিতে। বুধবার অনুষ্ঠিত এই শুনানিতে অংশ নেন ৯৮ জন।

শুনানিতে বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, মার্জার (একীভূত) বিদেশে নিয়মিত ব্যাপার। দেশে নিয়মিত নয়। এটাই প্রথম। মার্জারের জন্য আমাদের সামনে সম্পূর্ণ কোনও গাইডলাইন ছিল না। ২০০১ সালের টেলিযোগাযোগ আইনে মার্জার নিয়ে মাত্র দুই/এক লাইন রয়েছে। তিনি উল্লেখ করেন, দুটি অপারেটর এক হলেও কারও চাকরিতে কোনও প্রভাব পড়বে না।

তিনি জানান, একীভূত হলে এতে রবি তথা আজিয়াটার শেয়ার হবে ৬৮ দশমিক ৭, এয়ারটেলের ২৫ এবং এনটিটি ডোকোমোর ৬ দশমিক ৩ শতাংশ।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান বলেন, আমরা চারটি স্তরে মার্জারের কাজটি সম্পন্ন করছি। এক. আমরা দুটো স্বতন্ত্র কমিটি করেছি। তারা স্টাডি করে এর সামাজিক ও কারিগরি প্রভাব নিয়ে প্রতিবেদন দেবেন। দুই. যেসব অপারেটর মার্জারে অংশ নিচ্ছে না তাদের সঙ্গে আমরা পৃথকভাবে কথা বলেছি। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিতের জন্য আমরা কাজ করছি। তিন. গণশুনানি যা আজ অনুষ্ঠিত হলো এবং চার. আমরা বিটিআরসি থেকে একটি উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন কমিটি তৈরি করেছি তারা গণশুনানিতে আসা মতামত-সহ সব পক্ষের মতামতের ভিত্তিতে একটি প্রতিবেদন দেবেন। ওই প্রতিবেদন কমিশন বৈঠকে আলোচনা হবে। আলোচনার পরে প্রযোজ্য সুপারিশসহ তা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

গণশুনানিতে আরও উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির দুই কমিশনার এটিএম মনিরুল ইসলাম ও মো. জহিরুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান ব্রি. জে. (অব.) আহসান হাবিব খান, সচিব মো. সরওয়ার আলম-সহ আরও অনেকে।

জানা যায়, গণশুনানিতে আসা সাধারণ মানুষও মতামত দেন। তারা জানতে চান, এয়ারটেল রবি হয়ে গেলে নম্বর বদলে যাবে কি না। তাদের জানানো হয়, একীভূত হওয়ার পরে ১ থেকে ৩ বছর নম্বর বদলাবে না। তারপরে এয়ারটেল নম্বর রবিতে রূপান্তর হবে। বিভিন্ন অপারেটরের প্রতিনিধিরা স্পেক্ট্রাম (তরঙ্গ) নিয়ে প্রশ্ন করেন। জানতে চান, এতে করে ভারসাম্য নষ্ট হবে কি না। কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) গণশুনানিতে অংশ নেয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গণশুনানিতে অংশ নিতে ২৮০ জন আবেদন করেন। এরমধ্য থেকে দৈবচয়নের মাধ্যমে ১৬৫ জনকে গণশুনানিতে অংশ নিতে ই-মেইলের মাধ্যমে আমন্ত্রণ জানায় বিটিআরসি। তবে শুনানিতে অংশ নেন ৯৮ জন।

এদিকে রবি ও এয়ারটেল একীভূত হওয়ার বিষয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি বিটিআরসিতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে চার অপারেটর ইতিবাচক মত দেয়।

দুই অপারেটর এক হলে তাদের গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় ৪ কোটিতে। বর্তমানে ৫ কোটির বেশি গ্রাহক নিয়ে গ্রামীণফোন রয়েছে শীর্ষে।

/এইচএএইচ/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ