এক আইপির অনেক ব্যবহার, প্রতিবার আলাদা লাইসেন্স!

এক আইপির অনেক ব্যবহার, প্রতিবার আলাদা লাইসেন্স!

Send
হিটলার এ. হালিম২১:২৬, এপ্রিল ০৩, ২০১৬


আইপি টিভিআইপি (ইন্টারনেট প্রটোকল) নম্বর দিয়ে ইন্টারনেট সেবা, আইপি টেলিফোনি, আইপি টিভিসহ বিভিন্ন ধরনের সেবা দেওয়া হয়। এক আইপির অনেক ব্যবহার হলেও প্রতিবারই নতুন ব্যবহারে আলাদা লাইসেন্স নিতে হয় এর গ্রাহককে। এর ফলে বিষয়টি দিনদিন জটিল হয়ে উঠছে ইন্টারনেট সেবাদানকারী ব্যবসায়ীদের কাছে। তাদের ভাষ্য, এক আইপি ব্যবহারের জন্য কতবার লাইসেন্স নেওয়া যায়? যদিও বিটিআরসির রেগুলেশন রয়েছে, কোনও ধরনের টেলিকম সেবা দিতে লাইসেন্স নিতে হবে কমিশন থেকে। 

আইপি সেবা ব্যবহারের জন্য লাইসেন্স নিতে হয় টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির কাছ থেকে। দেখা গেছে, কোনও ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান ইন্টারনেট সেবাদানের জন্য লাইসেন্স নেয় বিটিআরসি থেকে। ওই প্রতিষ্ঠানই যদি আইপি টেলিফোনিক সেবা দিতে চায়, তাহলে প্রতিষ্ঠানটিকে নতুন করে লাইসেন্স নিতে হয়। আবার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানটি যদি আইপি টিভি সেবা দিতে চায়, তাহলেও প্রতিষ্ঠানটিকে আবারও নতুন করে লাইসেন্স নিতে হবে। ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবি এই ভোগান্তি থেকে রক্ষা পেতে আইপি টিভি সেবা দিতে যেন লাইসেন্স না নিতে হয়, সেজন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের কাছে সম্প্রতি আবেদন পত্র পাঠিয়েছে। ওই আবেদনপত্রের অনুলিপি বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদের কাছেও পাঠিয়েছে সংগঠনটি।

আইএসপিএবির সভাপতি এম এ হাকিম এ বিষয়ে বলেন, বিটিআরসির রেগুলেশন রয়েছে আইএসপি সেবা দিতে হলে লাইসেন্স নিতে হবে। সংশ্লিষ্ট আইএপির সেবা নিয়ে কেউ যখন ভিডিও কনফারেন্স করবেন, তখন ওই প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স নিতে না হলেও আলাদা করে অনুমতি নিতে হবে। আবার আইপি টেলিফোনি সেবা দিতে চাইলে লাইসেন্স নেওয়ার পাশাপাশি সরকারের সঙ্গে রাজস্ব ভাগাভাগি করতে হবে। এগুলো খুবই সমস্যা।

জানা যায়, আইপি টিভি সেবা দিতেও লাইসেন্স নিতে হবে। এখনও লাইসেন্সিং প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। তবে ‘পলিসি’ লেভেলে কাজ চলছে। আর এ কারণেই তারানা হালিমের কাছে আবেদন পাঠিয়েছে আইএসপিএবি। এম এ হাকিম বলেন, আমরা চলতি মাসের শেষ দিকে এ বিষয়ে সবার সঙ্গে কথা বলা শুরু করব। 

/এমএনএইচ/  আপ- এপিএইচ

লাইভ

টপ