তরুণ কৃতি শিক্ষার্থীদের এডএক্সেলের সম্মাননা

Send
তারুণ্য রিপোর্ট১৭:৫৩, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৬

IMG_5030সম্মাননা

আন্তর্জাতিক জিসিএসই এবং এ লেভেলস ২০১৫ সালের পরীক্ষায় অসামান্য ফলাফল অর্জন করায় এ বছর চারটি ক্যাটাগরিতে ৫৮৯ জন শিক্ষার্থীকে এডএক্সেল পুরস্কার প্রদান করা হয়। 

শনিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) এই পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। যুক্তরাজ্যের সর্ববৃহৎ পুরস্কারদাতা সংস্থা এবং পিয়ারসন একাডেমিক অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানটি ১৫০০ জনেরও বেশি অংশগ্রহণ করেন যাদের মধ্যে ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবক ও বিশিষ্ট অতিথি উপস্থিত ছিলেন। এ বছর চারটি ভিন্ন ক্যাটাগরিতে ৫৮৯ জনকে এডএক্সেল হাই এচিভার` পুরস্কার প্রদান করা হয়। এর মধ্যে ৩৮২ জন ছাত্রছাত্রী আন্তর্জাতিক - জিসিএসইতে (পূর্বে ও লেভেলস নামে পরিচিত) ৭ `এ` গ্রেড অর্জন করেন। ৭৫ জন ছাত্রছাত্রী ৪ `এ` গ্রেড অর্জন করেন। ৬১জন ছাত্রছাত্রী পৃথক বিষয়ে ওয়ার্ল্ড হাইয়েস্ট নম্বর অর্জন করে। ৭১ জন ছাত্রছাত্রী আন্তর্জাতিক প্রাথমিক এবং নিম্ন মাধ্যমিক পাঠ্যক্রমে` ‘বেস্টপারফর্মিং স্কুল স্টুডেন্টস’, কান্ট্রি হাইয়েস্ট এবং‘ওয়ার্ল্ড হাইয়েস্ট’ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার লাভ করেন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বিশেষ অতিথি হিসেবে ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক, বারবারা উইখহ্যম, পরিচালক ব্রিটিশ কাউন্সিল এবং ডেভিড ক্রোদার, পরিচালক, আন্তর্জাতিক পণ্য এবং গ্লোবাল পার্টনারশিপ পিয়ারসন কোয়ালিফিকেশন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, এই অনুষ্ঠানটি সংগঠিত করার জন্য পিয়ারসন এডএক্সেল এবং ব্রিটিশ কাউন্সিল কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, এই মেধাবী শিক্ষার্থীদের অসামান্য কৃতিত্বের স্বীকৃতি তাদের ভবিষ্যৎ গবেষণা ও কর্মজীবনে একটি মহান অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে, যার মাধ্যমে আমাদের দেশ লাভবান হতে পারে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের দেশে আরো বিজ্ঞানী, ডাক্তার এবং গবেষক প্রয়োজন। যারা বাংলাদেশের অর্থনীতিকে গড়ে তুলতে সাহায্য এবং জীবনের মান পরিবর্তন করতে পারেন।

অ্যালিসন ব্লেক সব পুরস্কারপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানান এবং আশ্বাস দেন যে, যুক্তরাজ্য সরকার সব সময় চেষ্টা করছে যুক্তরাজ্যের যোগ্যতার সর্বোচ্চ মান বজায় রাখার যাতে যুক্তরাজ্যের যোগ্যতাকারীরা তাদের ক্যারিয়ার গড়তে এবং তাদের দেশ ও সমাজের জন্য ভাল অবদান রাখতে পারে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ একটি অন্যতম দেশ যেখানে একটি বিশাল সংখ্যক শিক্ষার্থী এডএক্সেল যোগ্যতায় উত্তীর্ণ হওয়ার জন্য অংশ নেয় এবং প্রতি বছর তাদের মধ্যে অনেক হার্ভার্ড, কেমব্রিজ, এমআইটি, লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জ ইত্যাদি মর্যাদা পূর্ণ সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়নরত। পুরো অনুষ্ঠানটির সমন্বয় করে প্রচারণ কমিউনিকেশন লিমিটেড।

/এফএএন/

লাইভ

টপ