X
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

গোপালগঞ্জে বারি-৬ জাতের মুগ ডালের বাম্পার ফলন

আপডেট : ২৩ মে ২০১৬, ১৪:১৪

গোপালগঞ্জে বেসিনে  বারি-৬ জাতের মুগ ডালের বাম্পার ফলন হয়েছে। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট উদ্ভাবিত এ জাতের মুগডাল আবাদ করে প্রতি বিঘায় ৭ মণ  ফলন পেয়ে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছেন কৃষকরা।

ক্ষেত থেকে মসুর ওঠানোর পরই বারি-৬ জাতের মুগ ডালের  আবাদ করা যায়। মুগ কাটার পর আমন ধান আবাদ করা যায়। কৃষক একই জমিতে পরপর তিনটি ফসল ফলিয়ে লাভবান হতে পারেন। বারি মুগ-৬ আবাদ করে মাত্র ৬০-৬৫ দিনে ফলন পাওয়া যায়।

গোপালগঞ্জ বেসিন পাইলট প্রজেক্ট ,গাজীপুর ডাল গবেষণা উপকেন্দ্র, কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর এ তথ্য জানিয়েছে।

গোপালগঞ্জ বেসিন পাইলট প্রজেক্ট সূত্রে জানা গেছে, এ বছর গোপালগঞ্জ জেলায় ৭শ’ বিঘা জমিতে  বারি-৬ জাতের মুগ ডালের আবাদ করা হয়েছে।

সুকতাইল গ্রামের কৃষক গাউস আলী শেখ জানান, এ বছর তিনি ২ বিঘা জমিতে বারি-৬ জাতের মুগ ডাল আবাদ করেছেন। প্রতি বিঘায় ৭ মণ ফলন পেয়েছেন। বাজারে প্রতি মণ মুগ ডাল ১ হাজার ৬০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। সে হিসেবে প্রতি বিঘায়  সাড়ে ১১ হাজার ৪০০ টাকার মুগ উৎপাদিত হয়েছে। প্রতি বিঘায় মুগ ডাল আবাদে ৪ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। খরচ বাদে লাভ হবে ৭ হাজার ৪ শ’ টাকা।  বারি মুগ-৬ আবাদ করে মাত্র ৬০ দিনে বাম্পার ফলন পেয়েছেন তিনি। আগে তারা এ জমিতে পাটের আবাদ করতেন। পাট কাটার পর আমন ধান আবদ করতে দেরি হয়ে যেত। তিন ফসল করা সম্ভব হতো না। কিন্তু লাভজনক মুগ চাষ করলে তিন ফসল আবাদ করা যায়।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার শুকতাইল ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা রনজিৎ বিশ্বাস বলেন, গোপালগঞ্জে বেসিনে মুগডালের চাষাবাদ  আগে হতো না। কারণ এখানকার কৃষক মুগের উন্নত জাত এবং আধুনিক চাষাবাদ জানতো না।

বারি মুগ ৬ জাতের অন্যতম উদ্ভাবক ড. মো. আশরাফ হোসেন গোপালগঞ্জ বেসিন পাইলট প্রজেক্টের মাধ্যমে বীজসহ অন্যান্য উপকরণ গোপালগঞ্জের কৃষকদের মধ্যে বিনামূল্যে সরবরাহ করেন। প্রকল্প ও কৃষি বিভাগের তত্ত্বাবধানে এ জেলার কৃষক এ বছর প্রথম বারি-৬ জাতের মুগ আবাদ করে বাম্পার ফলন পেয়েছেন।

বারি-৬ জাতের মুগের অন্যতম উদ্ভাবক ড. মো.আশরাফ হোসেন বলেন, বারি মুগ-৬ অল্প সময়ে বাম্পার ফলন দেয়। এ মুগ ডালে পোকার আক্রমণ হয় না। স্থানীয় জাতের তুলনায় বারি জাতে ৩ গুণ বেশি ফলন পাওয়া যায়। মুগ ডাল তোলার পর মুগের গাছ ও পাতা মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিলে জমিতে জৈব সার তৈরি হয়। পরের ফসলের ভালো ফলন পাওয়া যায়। জমির উর্বর শক্তি সংরক্ষণ থাকে।

ডাল চাষে অন্য যেকোনও ফসলের তুলনায় সেচ ও সার কম দিতে হয়। ডাল ফসল শেকড়ের গুটির মাধ্যমে বায়ুমণ্ডলে নাইট্রোজেন আবদ্ধ করে মাটির উর্বরতা বাড়ায়। অন্যদিকে, ডাল খাদ্যের গুণগত মাণ বৃদ্ধি করে। ডাল ফসল নিরাপদ খাদ্য ও নিরাপদ পৃথিবীর অন্যতম নিয়ামক। কৃষক তার নিজের ও গবাদি পশুর স্বাস্থ্যরক্ষা, মাটির উর্বরতা শক্তি বৃদ্ধির জন্য আগামীতে এই ডালের চাষ আরও বাড়াবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন ড. আশরাফ।

গোপালগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক সমীর গোস্বামী বলেন, গোপালগঞ্জে ডাল আবাদের অমিত সম্ভাবনা রয়েছে।  কৃষক বারি মুগের চাষ করে বাম্পার ফলন পেয়েছে। এ জেলার কৃষি উন্নয়ন ও উৎপাদন বাড়াতে বারি মুগ-৬ ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

আরও পড়ুন: ছুটির দিনেও চলছে হিলি স্থলবন্দরের কার্যক্রম 

/এআর/টিএন/

সম্পর্কিত

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

গাজীপুরের মেয়রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, অগ্নিসংযোগ

গাজীপুরের মেয়রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, অগ্নিসংযোগ

প্রবাসীর স্ত্রীকে ৭ দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রবাসীর স্ত্রীকে ৭ দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

শাপলা বিক্রির টাকায় চলে সংসার 

শাপলা বিক্রির টাকায় চলে সংসার 

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:১৮

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, বিদ্যালয়ে এসেই যে শিক্ষার্থীরা করোনা আক্রান্ত হয়েছে, তার প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বন্ধের সময় বিদ্যালয়ে না গেলেও আত্মীয়-স্বজনের বাসায় বা বিনোদনের জায়গায় সবখানেই যাচ্ছিলো তারা।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলীর ইউরোপিয়ান ক্লাবে বীরকন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, সুনির্দিষ্ট কিছু জায়গায় দেখেছি, শিক্ষার্থীরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। সেসব জায়গায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।  

তিনি আরও বলেন, আগামী দিনে অপরাজনীতি ও সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে বিপ্লবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করে আমাদের লড়াই-সংগ্রাম করতে হবে। এক সময় আমরা দেখেছি, আওয়ামী লীগের নেতা পুলিন দে, আতাউর রহমান খান কায়সার, এম এ মান্নান দেখেছি, বিপ্লবীদের জন্ম ও মৃত্যুদিবসে জে এম সেন হলে গিয়ে তাদের আবক্ষ ভাস্কর্যে শ্রদ্ধা জানাতেন। সেখানে আমাদের দলের শত শত নেতাকর্মী অংশ নিতেন। আওয়ামী লীগ দীর্ঘসময় ধরে বিপ্লবীদের শ্রদ্ধা জানিয়ে এসেছে। আমরা আবারও সেই ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনবো।

উপস্থিত দলীয় নেতা-কর্মীদের বিপ্লবীদের জীবনী পাঠ করার আহ্বান জানিয়ে মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও ‘কারাগারের রোজনামচা’ বইয়ে ব্রিটিশবিরোধী বিপ্লবীদের কথা লিখে গেছেন। তিনি লিখেছেন, বিপ্লবীদের জীবনী থেকে তিনি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে লড়াই-সংগ্রামের অনুপ্রেরণা ও শক্তি পেয়েছেন। সূর্যসেন, প্রীতিলতাসহ যারা সেদিন যুব বিদ্রোহে অংশ নিয়েছিলেন, তাদের সম্পর্কে আমরা জানবো ও স্মৃতি ধরে রাখবো।

এ সময় চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চুসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

গণমাধ্যম নিয়ে যা বললেন নওফেল

গণমাধ্যম নিয়ে যা বললেন নওফেল

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

উপজেলা চেয়ারম্যানকে বরখাস্তের আদেশ অবৈধ ঘোষণা

উপজেলা চেয়ারম্যানকে বরখাস্তের আদেশ অবৈধ ঘোষণা

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

‘দেশকে কীভাবে এগিয়ে নেওয়া যায় সেই সাংবাদিকতা করতে হবে’

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৫৭

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, সাংবাদিকেরা জাতির বিবেক। সঠিক ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা দেশকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করে। সমাজ ও রাষ্ট্রের চোখ খুলে দেয়। তাই দেশকে কীভাবে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়, সেই বিষয়ে সাংবাদিকতা করতে হবে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে নওগাঁয় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) আয়োজিত তিন দিনব্যাপী সাংবাদিকতায় অনুসন্ধানমূলক রিপোর্টিং প্রশিক্ষণের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, কে আগে তথ্য পাবে কে আগে সংবাদ প্রকাশ করবে সেটা নিয়ে সাংবাদিকদের মধ্যে প্রতিযোগিতা থাকবে। উন্নয়নমূলক সংবাদ প্রচার তথা ব্র্যান্ডিং করে নওগাঁকে সামনে এগিয়ে নিতে সাংবাদিকরা ভূমিকা রাখবেন।

তিনি আরও বলেন, করোনাকালে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে কাজ করেছেন সাংবাদিকরা। মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে উদ্বুদ্ধ করেছেন, যা সত্যিকার অর্থে প্রশংসার দাবি রাখে। 

মাদকের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে উল্লেখ করে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, মাদক ব্যবসায়ী ও সেবীদের পক্ষে কেউ সুপারিশ করতে আসলে, মামলার চার্জশিটে সেই ব্যক্তির নাম ঢুকিয়ে দেবেন। তা সে যে দলেরই লোক হোক না কেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক মো. হারুন-অর-রশীদ, পিআইবির পরিচালক (প্রশাসন) আফরাজুর রহমান, প্রশিক্ষক পারভীন সুলতানা, নওগাঁ কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ ওহিদুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। পরে ৩৫ জন অংশগ্রহণকারী সাংবাদিকের মাঝে সনদ তুলে দেন খাদ্যমন্ত্রী।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

‘শ্রীলঙ্কাকে ঋণ দেওয়া অর্থনৈতিক সামর্থ্যের প্রমাণ’

‘শ্রীলঙ্কাকে ঋণ দেওয়া অর্থনৈতিক সামর্থ্যের প্রমাণ’

করোনাকালে একজনও না খেয়ে মারা যায়নি: খাদ্যমন্ত্রী

করোনাকালে একজনও না খেয়ে মারা যায়নি: খাদ্যমন্ত্রী

বঙ্গোপসাগরে সাড়ে চার লাখ ইয়াবাসহ আটক ৫

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৩০

বঙ্গোপসাগরের কক্সবাজার উপকূল থেকে সাড়ে চার লাখ ইয়াবাসহ পাঁচজনকে আটক করেছে র‍্যাব-১৫। এ সময় পাচার কাজে ব্যবহৃত একটি ট্রলার জব্দ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে গভীর সমুদ্র এলাকা থেকে ইয়াবাসহ তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতারা হলেন-রশিদ উল্লাহ, আমানত করিম, নাছির উদ্দিন ও ছৈয়দুর রহমান।

র‍্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে গভীর সমুদ্র এলাকায় কক্সবাজার র‍্যাব-১৫ উপ অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লিডার তানভীর হাসান ও মেজর শেখ মোহাম্মদ ইউসূফের নেতৃত্বে একটি মাছ ধরার ট্রলার চিহ্নিত করা হয়। তারপর ধাওয়া করে সেই ট্রলারে সাড়ে চার লাখ ইয়াবা পাওয়া যায়।

তানভীর হাসান বলেন, গত এক সপ্তাহ আগে থেকে ইয়াবা পাচারকারী চক্রের ওপর নজর রাখছিল র‍্যাব। সেই চক্রের একটি চালান আসার খবরে গভীর সমুদ্রে অভিযান চালানো হয়। অভিযান চালিয়ে সাড়ে চার লাখ ইয়াবাসহ পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনী ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

উখিয়ায় র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধ’, নিহত ১

উখিয়ায় র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধ’, নিহত ১

টেকনাফে ১০ কোটি টাকার আইস উদ্ধার

টেকনাফে ১০ কোটি টাকার আইস উদ্ধার

এক জালেই ১৫ মণ লাল কোরাল

এক জালেই ১৫ মণ লাল কোরাল

সিনহা হত্যা: গোয়েন্দা সংস্থার তদন্ত প্রতিবেদন চায় আসামিপক্ষ

সিনহা হত্যা: গোয়েন্দা সংস্থার তদন্ত প্রতিবেদন চায় আসামিপক্ষ

অন্যজনের সঙ্গে স্ত্রীর প্রেমের অভিযোগে স্বামীর 'আত্মহত্যা'

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৩৩

কুমিল্লায় অন্যজনের সঙ্গে স্ত্রীর প্রেমের সম্পর্ক থাকার অভিযোগে ক্ষোভ-অভিমানে এমরান হোসেন মুন্না (২৯) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। গত বুধবার সন্ধ্যায় নগরীর বারপাড়া এলাকায় নিজ বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাতে পুত্রবধূর বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগ এনে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছেন মুন্নার বাবা মো. মতিউর রহমান।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা কমার্শিয়াল ইনস্টিটিউটে (বর্তমানে সরকারি সিটি কলেজ) পড়তেন মুন্না ও তার স্ত্রী। দুই জন এক বছরের সিনিয়র-জুনিয়র। এ সময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর ২০১৮ সালের ২৫ জানুয়ারি বিয়ে হয়। বিয়ের বছর খানেক পর থেকেই পারিবারিক জীবনে টানাপড়েন শুরু হয়। ঢাকায় একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতেন তার স্ত্রী। এই সুবাদে বেশিরভাগ সময় ঢাকাতেই থাকতেন। কুমিল্লায় একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি শুরু করেন মুন্না। পরে চাকরি ছেড়ে কুমিল্লাতে ঠিকাদারি ব্যবসা শুরু করেন। দিন দিন তাদের সম্পর্কে ফাটল ধরে।

মুন্নার পরিবারের অভিযোগ, ঢাকায় একজনের সঙ্গে ওই নারীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর থেকে মুন্নাকে বিভিন্নভাবে মানসিক নির্যাতন করতেন তিনি। চাহিদা মতো টাকা দিতে না পারার অভিযোগে মুন্নাকে মরে যাওয়ার কথাও বলতেন। এতে আরও মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন মুন্না। গত বুধবার আত্মহত্যার প্রস্তুতি নিয়ে স্ত্রীকে ছবি পাঠান। এরপর নিজ কক্ষে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন মুন্না। পরিবারের লোকজন টের পেয়ে দরজা ভেঙে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্ত শেষে গতকাল বাদ জোহর জানাজার পর তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনয়ারুল আজিম জানান, মুন্নার পরিবার আত্মহত্যার প্ররোচণার মামলা করেছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বই ছেড়ে সংসার জীবনে ৩০ শতাংশ ছাত্রী 

বই ছেড়ে সংসার জীবনে ৩০ শতাংশ ছাত্রী 

কুবির বাস স্টাফকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো ‘অ্যাম্বুলেন্স সিন্ডিকেট’ 

কুবির বাস স্টাফকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো ‘অ্যাম্বুলেন্স সিন্ডিকেট’ 

ফেসবুক লাইভে এসে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

ফেসবুক লাইভে এসে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

কুমিল্লায় হচ্ছে ১১০০ উপানুষ্ঠানিক প্রাথমিক বিদ্যালয়

কুমিল্লায় হচ্ছে ১১০০ উপানুষ্ঠানিক প্রাথমিক বিদ্যালয়

ছাত্রাবাস থেকে পাবিপ্রবি ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:১৯

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পাবিপ্রবি) এক ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার নাম তাহমিদুর রহমান জামিল (২২)। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার শাহীবাগ এলাকার বজলার রহমানের ছেলে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার দিকে পাবনা শহরের একটি ছাত্রাবাস থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় কক্ষ থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করা হয়।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, শহরের শালগাড়িয়া মেরিল বাইপাস এলাকার সাফল্য ছাত্রাবাসে থাকতেন জামিল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর তার কোনও সাড়া-শব্দ পাননি সহপাঠীরা। পরে কক্ষের দরজা খুলে তাকে ফ্যানের হুকের সঙ্গে ব্যাগের বেল্ট গলায় পেঁচানো অবস্থায় ঝুলতে দেখে থানায় খবর দেন তারা। পরে পুলিশ পৌঁছে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে।

তিনি আরও জানান, জামিলের কক্ষ থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করা হয়েছে। সেখানে ‘বাবা-মা ক্ষমা করো, গুড বাই’ এ রকম কিছু কথা লেখা রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের মাধ্যমে পরিবারের কাছে তার লাশ হস্তান্তর করা হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, আরএমপির ৬ সদস্য বরখাস্ত

মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, আরএমপির ৬ সদস্য বরখাস্ত

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির ৩ শীর্ষ নেতার আত্মসমর্পণ

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির ৩ শীর্ষ নেতার আত্মসমর্পণ

হাটে টোল বেশি নেওয়ায় লাখ টাকা জরিমানা

হাটে টোল বেশি নেওয়ায় লাখ টাকা জরিমানা

সাবেক প্রধান শিক্ষককে হত্যার আসামি গ্রেফতার

সাবেক প্রধান শিক্ষককে হত্যার আসামি গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

গাজীপুরের মেয়রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, অগ্নিসংযোগ

গাজীপুরের মেয়রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, অগ্নিসংযোগ

প্রবাসীর স্ত্রীকে ৭ দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রবাসীর স্ত্রীকে ৭ দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

শাপলা বিক্রির টাকায় চলে সংসার 

শাপলা বিক্রির টাকায় চলে সংসার 

সাউন্ডবক্স বাজিয়ে কেরোসিন ঢেলে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা!

সাউন্ডবক্স বাজিয়ে কেরোসিন ঢেলে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা!

কাঁচপুরে শ্রমিকদের ওপর লাঠিচার্জ-রাবার বুলেট

কাঁচপুরে শ্রমিকদের ওপর লাঠিচার্জ-রাবার বুলেট

করোনার উপসর্গে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু

করোনার উপসর্গে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু

ফেসবুক লাইভে এসে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

ফেসবুক লাইভে এসে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

মহাসড়ক অবরোধ করে ওপেক্স সিনহা গ্রুপের শ্রমিকদের বিক্ষোভ

মহাসড়ক অবরোধ করে ওপেক্স সিনহা গ্রুপের শ্রমিকদের বিক্ষোভ

শরীয়তপুরে সাংবাদিকের ওপর হামলার প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি

শরীয়তপুরে সাংবাদিকের ওপর হামলার প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি

সর্বশেষ

সাইক্লিং নিরাপদে ১০ সুপারিশ

সাইক্লিং নিরাপদে ১০ সুপারিশ

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে সাইকেল র‌্যালি

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে সাইকেল র‌্যালি

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

‘বিদ্যালয়ে এসে করোনা আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়া যায়নি’

ঢাকায় ‘জলবায়ু অবরোধ আন্দোলন’ কর্মসূচি

ঢাকায় ‘জলবায়ু অবরোধ আন্দোলন’ কর্মসূচি

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি

© 2021 Bangla Tribune