X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

মাহি লস্ট ইন ট্রানজিশন!

আপডেট : ১৬ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:১৩
image

‘আমি আঁকি, কারণ এই কাজে নিজেকে কখনও জোর করতে হয় না। শিল্প আমাকে অভিভূত করে এবং ভাসমান আবেগ ও আমার অস্তিত্বহীন ভাবনার সমাধিতে নিজেকে হারিয়ে ফেলি। সময়ের উপলব্ধি আমার কাছে অস্পষ্ট কিন্তু সুখ পাই এই ভেবে যে আমার বর্ণগুলো মনে ধরে আছে’ – কথাগুলো তরুণ শিল্পী আফ্রিদা তানজিম মাহির। তিনি শুধু আঁকতেন, কখনও দেয়ালে কখনও চাদরে। মাহির আঁকার মধ্যে রহস্য ছিল প্রচুর। কারণ তার আঁকার বিষয় ছিল পরিবর্তনশীল আকৃতি এবং পছন্দ করতেন তাতে উত্তেজনার ঘাই দিতে।  

প্রদর্শনী 'লস্ট ইন ট্রানজিশন'

যখন অন্য সবকিছু তাকে নীরব রাখতো তখন রং তাকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ব্যস্ত রাখতো। নিরাশার চাদরে তার অভিব্যক্তি ঘটতো শুধু আঁকায়। বিষণ্ণতার রং নীল আর ক্রোধের লাল। তিনি মনে করেন সব রংই ছুঁয়েছেন কিন্তু কিছুই আঁকা হয়নি। এ কথাগুলো শিল্পীর নিজের। পৃথিবীর সব কিছু তার এক জায়গায়তেই গিয়ে মিলে যায়, যাকে মাহি নিজের স্টুডিও বলতেন। তার রংগুলো রাখা হতো জুতো রাখার জায়গার পাশেই যেখানে শূন্য ক্যানভাসগুলো থাকতো। মাহি বলতেন, ‘আমার আর্ট আমার অস্তিত্বের জানান দেয়, আমার শত না বলা গল্পের প্রতিচ্ছবি হলো আমার আর্ট।’

প্রদর্শনী 'লস্ট ইন ট্রানজিশন'

তার কাজগুলো ছিল এলোমেলো কিন্তু রহস্যজনক। তার তুলির দেয়া স্ট্রোক মানুষকে ভাবতে শেখায়। তার আঁকাতে মানুষ সহসাই রহস্যজনকভাবে হারিয়ে যেতে পারে। হয়তো আত্মপ্রেরণা থেকেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন একক প্রদর্শনী করার। শেষমেশ তাই করলেন। মোহাম্মদপুরের ইকবাল রোডের কালা কেন্দ্রে গত ১২ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে তার প্রদর্শনী। প্রদর্শনীর নাম ‘লস্ট ইন ট্রানজিশন।’ খুব সাধারণ একটি নাম রেখেছিলেন তিনি। গুণে গুণে ৪ দিন পর ১৬ জানুয়ারি সন্ধ্যায় খবর এলো মাহি আর নেই। হারিয়ে গেছেন রহস্যের গোলকধাঁধায় সবাইকে একা ফেলে। নিজের স্বপ্ন পূরণ না করে চলে গেছেন না ফেরার দেশে।

প্রদর্শনী সম্পর্কে পরদিন কথা হলো কিউরেটর ওয়াকিলুর রহমানের সাথে। তিনি জানালেন, পরিবার থেকে কিছু না বললে প্রদর্শনী আমরা চালিয়ে যাব। তিনি মনে করেন এখন সঠিক সময় না এ ব্যাপারে পরিবারের সঙ্গে কথা বলার। প্রদর্শনীতে তার ছবিগুলোকে ৭টি ব্লকে সাজানো হয়েছে। আছে নানা মিডিয়ামের আঁকা। প্রদর্শনী চলবে ২৭ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন বিকাল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত।

আফ্রিদা তানজিম মাহি

মাহি আজ নেই, আছে তার শিল্প এবং কিছু স্মৃতি।  

/এনএ/

সম্পর্কিত

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

নিজেই বানান চুল লম্বা করার টনিক

নিজেই বানান চুল লম্বা করার টনিক

টবে ধনেপাতার চাষ করবেন যেভাবে

টবে ধনেপাতার চাষ করবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৮

চিংড়িতে অভিজাত স্বাদ পেতে চাই পারফেক্ট রেসিপি। এ কাজে কালো গোলমরিচের গুঁড়োর সঙ্গী হতে পারে মাখন, শুকনো লংকা ও কোকোনাট মিল্ক।

 

যা যা লাগবে

  • ৫০০ গ্রাম চিংড়ি (পরিষ্কার করা)।
  • ৪টি মাঝারি আকারের পেঁয়াজ কুচি।
  • ২ টেবিল চামচ আদা কুচি।
  • আধা চা চামচ কালো গোলমরিচের গুঁড়ো।
  • ১ চা চামচ গুঁড়া মরিচ বা ঝাল বেশি চাইলে কয়েকটি শুকনো মরিচও ভেঙে রাখুন।
  • ৬ টেবিল চামচ মাখন।
  • ২ট টমেটো কুচি করে কাটা।
  • ২ টেবিল চামচ রসুন কুচি।
  • আধা কাপ কোকোনাট মিল্ক।
  • লবণ পরিমাণমতো।

 

 

প্রস্তুত প্রণালী

  • প্যানে মাখন দিয়ে গরম করুন। তাতে চিংড়ি দিয়ে কিছুটা লবণ ও গোল মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে নেড়েচেড়ে আরেকটি পাত্রে নামিয়ে রাখুন।
  • এরপর প্যানে পেঁয়াজ, টমেটো, রসুন ঢেলে নেড়েচেড়ে ভেজে নিন।
  • কোকোনাট মিল্ক, শুকনো মরিচ বা পরিমাণমতো মরিচের গুঁড়ো দিন।
  • এসময় কয়েক কোয়া রসুন কুচি ও আদা কুচি দিন।
  • মিশ্রণটি কিছুটা ঘন হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন।
  • চুলা বন্ধ করে মিশ্রণটি স্বাভাবিক তাপমাত্রায় আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।
  • মিশ্রণটিকে মিহি করে ব্লেন্ড করে নিন।
  • চুলায় অল্প আঁচে নন স্টিক প্যানে মিশ্রণটি ঢালুন। তাতে চিংড়িগুলোও দিয়ে দিন।
  • ধীরে ধীরে মিশ্রণটি চিংড়ির গায়ে লেগে আসলে বুঝতে হবে রান্না হয়ে গেছে।
  • পরিবেশন করতে হবে গরম গরম। পরিবেশনের সময় ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে দিতে পারেন।

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : কোরিয়ান বুলগগি

রেসিপি : কোরিয়ান বুলগগি

রেসিপি : মজার স্ন্যাকস আলু চিলা

রেসিপি : মজার স্ন্যাকস আলু চিলা

রেসিপি : এলাচ নারিকেলের বরফি

রেসিপি : এলাচ নারিকেলের বরফি

রেসিপি : আলু জিরার রোল

রেসিপি : আলু জিরার রোল

নিজেই বানান চুল লম্বা করার টনিক

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২১:১১

শরীরের মতো বাড়ন্ত চুলের জন্যও চাই সুষম পুষ্টি। সেটা নিশ্চিত করতে নিজেই বানিয়ে নিতে পারেন চুলের জন্য বিশেষ টনিক।

 

যা যা লাগবে

  • ২০০ মিলিলিটার খাঁট নারিকেল তেল।
  • ১০০ মিলিলিটার অলিভ অয়েল।
  • ৫০ মিলিলিটার কাঠবাদামের তেল।
  • ৩০ মিলিলিটার ক্যাস্টর অয়েল।
  • জবা ফুলের শুকনো পাপড়ি ৫টি।
  • ৩০ মিলিলিটার আমলকির রস।
  • ২০টি নিম পাতা।

 

সব উপকরণ মিশিয়ে ১০ মিনিট অল্প আঁচে জ্বাল দিন। এরপর ছেঁকে নিয়ে ঠান্ডা করুন। সংরক্ষণ করুন কাচের জারে।

/এফএ/

সম্পর্কিত

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

টবে ধনেপাতার চাষ করবেন যেভাবে

টবে ধনেপাতার চাষ করবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

জিন্স-টি শার্টে ঝলমলে কারিনা

জিন্স-টি শার্টে ঝলমলে কারিনা

টবে ধনেপাতার চাষ করবেন যেভাবে

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১০:০০

ধনেপাতা এখন সবসময়ই পাওয়া যায়। তবে শীতের সময় নিজের হাতে বোনা ধনেপাতার স্বাদই যেন আলাদা। অল্প কিছু খুঁটিনাটি জানা থাকলে এটি খুব সহজেই চাষ করতে পারেন। ধনেপাতায় রয়েছে প্রচুর ক্যালসিয়াম, আয়রন, ক্যারোটিন ও বিভিন্ন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।

বারান্দায় অথবা ছাদে আলো পড়ে এমন স্থানে ধনিয়ার চাষ ভালো হয়। সারা বছর এটি জন্মালেও আশ্বিন থেকে পৌষ (সেপ্টেম্বর-ডিসেম্বর) মাস ধনিয়া চাষের উপযুক্ত সময়।

 

মাটি

সব মাটিতেই ধনিয়ার চাষ সম্ভব। তবে বেলে দোঁআশ বা এঁটেল দোঁআশ মাটি ধনিয়া চাষের জন্য বিশেষ উপযোগী। এ গাছ জলাবদ্ধতা একদমই সহ্য করতে পারে না। তাই টবে পানি নিষ্কাশনের সুবিধা থাকা জরুরি। ৭০ ভাগ মাটির সঙ্গে ৩০ ভাগ কেঁচো সার তথা ভার্মিকম্পোস্ট মিশিয়ে টবের মাটি তৈরি করে নিতে পারেন। বীজ বোনার আগে এক দিন কড়া রোদে মাটি শুকিয়ে ঝুরঝুরে করে নিলে ভালো ফল পাওয়া যাবে।

 

বীজ বপনের আগে

ধনেপাতা চাষ করতে বীজটাকে তৈরি করে নেওয়া চাই। বাজার থেকে শুকনো ধনের বীজ কিনে সেগুলোকে একদিন রোদে শুকিয়ে নিতে হবে। এতে বীজের রোগবালাই দমন হবে। অন্যদিকে অঙ্কুরোদগম ক্ষমতাও বাড়বে। বীজ শুকানোর পর এগুলোকে পাথরের টুকরো দিয়ে বা হাতের হাল্কা চাপে দুই ভাগ করে ভেঙে নিতে হবে।

মাটিতে বপনের আগে ধনিয়ার বীজ অবশ্যই পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হয়। একটি ভেজা কাপড়ে ২৪ ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে বীজ বপন করলে চারা দ্রুত গজাবে। চওড়া মুখের টব বা প্লাস্টিকের গামলায় মাটির ৩-৪ সেন্টিমিটার (দেড় ইঞ্চি) গভীরে বীজ বপন করতে হবে। এরপর প্রথম দফায় ভালো করে সেচ দিতে হবে।

 

পরিচর্যা

মাটি শুকনো থাকলে দুই-একদিন পর পর পানি দিতে হবে। কিন্তু গাছের গোড়ায় কখনই পানি জমতে দেওয়া যাবে না। অনেক সময় পাখি ধনেপাতা পাতা খেয়ে ফেলে। সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। পিঁপড়ার উপদ্রব হলে প্রাথমিকভাবে সাবান পানি ছিটিয়ে দেখতে হবে। এতে কাজ না হলে পাইরিফস বা পাইরিবান অথবা সেভিন ডাস্ট ছিটিয়ে দিতে হবে।

সাধারণত চারা গজাতে এক সপ্তাহ থেকে দশ দিন সময় লাগে। গাছ পুরোপুরি বড় হতে এক মাসও লেগে যায়।

ধনিয়া চাষে সাধারণত বাড়তি সারের প্রয়োজন হয় না। গাছ বেশি বড় হয়ে গেলে সেই গাছের পাতার স্বাদ কমে যায়। তাই গাছ মাঝারি আকারে আসলেই পাতা তুলতে হবে।

/এফএ/

সম্পর্কিত

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

নিজেই বানান চুল লম্বা করার টনিক

নিজেই বানান চুল লম্বা করার টনিক

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

জিন্স-টি শার্টে ঝলমলে কারিনা

জিন্স-টি শার্টে ঝলমলে কারিনা

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫৪

ট্রেন্ডি ফার্নিচার ও লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশো’র ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হলেন দেশের জনপ্রিয় দুই তারকা বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ও অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন।

আসবাব শিল্পে প্রতিনিয়ত নতুন কিছু উপহার দেওয়ার প্রত্যয়ে কাজ করে চলেছে ইশো। পণ্যের নকশা, গুণগত মান ও কারিগরি দক্ষতার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী নিজেদের অবস্থান পোক্ত করছে প্রতিষ্ঠানটি। এ কারণেই ইশোর সঙ্গে নির্দ্বিধায় যুক্ত হয়েছেন এ দুই তারকা। ট্রেন্ডি কালেকশন এনে প্রতিষ্ঠানটি বরাবরই গ্রাহকদের নতুন কিছু উপহার দিয়েছে। তেমনই একটি ফিচার এআর, যা গ্রাহকদের জন্য সম্পূর্ণ নতুন। 

ইশোর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রায়ানা হোসেন বলেন, ‘সাকিব ও বাঁধনকে পাশে পেয়ে আমরা আনন্দিত। আমাদের ভিশন ও ব্র্যান্ডের প্রতি তারা দুজনই আস্থাশীল। দুই তারকাই তাদের ব্যক্তিগত ক্যারিয়ারে ট্রেন্ড-সেটার। এই অংশীদারিত্বের মাধ্যমে দেশের প্রতিটি ঘরে ইশো পণ্য পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য বাস্তবায়িত হবে বলে আমি আশাবাদী।’

সাকিব আল হাসান বলেন, ‘স্বল্পসময়ের মধ্যেই ইশো অনলাইন বিক্রিতে এক নম্বর ফার্নিচার ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছে। এ থেকে বোঝা যায় তারা কেন অনন্য এবং ভবিষ্যৎ কেমন হবে। আমি নিজেও ইশোর ভক্ত। পছন্দের ব্র্যান্ডে যুক্ত হতে পেরে আনন্দিত।’

আজমেরী হক বাঁধন বলেন, ‘ইশোর সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমি আনন্দিত। এর কিছু কারণও রয়েছে। তাদের পণ্যগুলো অন্য ব্র্যান্ডের নেই। আর ব্যক্তিগতভাবে আমি এগুলে পছন্দ করি। ইশো দেশের মানুষের আসবাবপত্র বাছাইয়ে পছন্দ ও রুচি পরিবর্তনে সক্ষম হয়েছে।

/জিএম/এফএ/

জিন্স-টি শার্টে ঝলমলে কারিনা

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৪২

দুই সন্তানের মা হলেও কারিনা কাপুর ওরফে বেবোর মাঝে হালফ্যাশনে ঘাটতি খুঁজে পাবে না কেউ। যখনই কারিনা কোনও অনুষ্ঠান বা টুকটাক কাজে বাইরে বের হন, তখনই তাকে বেশ স্টাইলিশ দেখা যায়।

গত বুধবার তথা ২০ অক্টোবর সকালে শ্যুটিংয়ের কাজেই হয়তো বের হয়েছিলেন। সকালের নীরবতার মাঝেও পাপারাজ্জিদের হাত থেকে রক্ষা পাননি। তাদের ক্যামেরাবন্দি কারিনাকে দেখা গেছে সকালের চায়ের পেয়ালা হাতে নিয়ে বের হতে। এগিয়ে যাচ্ছিলেন নিজের গাড়ির দিকে।

ডার্ক ব্লু ডেনিম জিন্স ও ন্যুড পিংক টি শার্টে কারিনা (ছবি: পিংকভিলা)

স্লিভলেস টি শার্ট পরেছিলেন বেবো। ডার্ক ব্লু ডেনিম জিন্স আর  ন্যুড পিংক টি শার্টে বেশ আবেদনময়ী লাগছিল বটে। চোখে বরাবরের মতো ছিল সানগ্লাস। আর পায়ের হিলজোড়া যেন গ্ল্যামারটাকেও তুলে দিয়েছিল খানিকটা।

দুপাশে খোলা চুল আর মেকআপ ছাড়া কারিনাকে দেখে কে বলবে ৪১ পেরিয়েছেন তিনি!

 

সূত্র: পিংকভিলা

/এফএ/
সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

শুকনো মরিচে মাখন চিংড়ি

নিজেই বানান চুল লম্বা করার টনিক

নিজেই বানান চুল লম্বা করার টনিক

টবে ধনেপাতার চাষ করবেন যেভাবে

টবে ধনেপাতার চাষ করবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইশোর সঙ্গে সাকিব-বাঁধন

জিন্স-টি শার্টে ঝলমলে কারিনা

জিন্স-টি শার্টে ঝলমলে কারিনা

রেসিপি : কোরিয়ান বুলগগি

রেসিপি : কোরিয়ান বুলগগি

ফুলেল লেহেঙ্গায় অনন্য ক্যাটরিনা

ফুলেল লেহেঙ্গায় অনন্য ক্যাটরিনা

বারান্দায় বাগান করার আগে জেনে রাখুন

বারান্দায় বাগান করার আগে জেনে রাখুন

বুকের বাঁ পাশে চিনচিনে ব্যথা, হার্টের কিছু হয়নি তো?

বুকের বাঁ পাশে চিনচিনে ব্যথা, হার্টের কিছু হয়নি তো?

ইউরিন ইনফেকশন : উপসর্গ, কারণ ও প্রতিকার

ইউরিন ইনফেকশন : উপসর্গ, কারণ ও প্রতিকার

সর্বশেষ

ভারতে আতশবাজির দোকানে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ৫

ভারতে আতশবাজির দোকানে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ৫

পশ্চিম তীরে অবৈধ ইহুদি বসতি, কঠোর প্রতিবাদ যুক্তরাষ্ট্রের

পশ্চিম তীরে অবৈধ ইহুদি বসতি, কঠোর প্রতিবাদ যুক্তরাষ্ট্রের

সিরিয়া ও ইরাকে দু’বছর সামরিক মিশন বাড়ালো তুরস্ক

সিরিয়া ও ইরাকে দু’বছর সামরিক মিশন বাড়ালো তুরস্ক

রাঙামাটিতে নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণ গেলো ইউপি সদস্যের

রাঙামাটিতে নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণ গেলো ইউপি সদস্যের

সাতক্ষীরায় ১০ সাংবাদিক পেলেন মিডিয়া ফেলোশিপ

সাতক্ষীরায় ১০ সাংবাদিক পেলেন মিডিয়া ফেলোশিপ

© 2021 Bangla Tribune