X
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীকে র‌্যাবে হস্তান্তর

আপডেট : ০৩ মার্চ ২০১৮, ২১:৩১

হামলাকারী (ছবি- ফোকাস বাংলা)  

বিশিষ্ট লেখক ও শিক্ষক ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীকে র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবি) ক্যাম্পাসে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে র‌্যাব-৯- এর তত্ত্বাবধানে সিলেট ওসমানী মেডিক্যালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেখানে চিকিৎসা শেষে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত শুরু হবে। শনিবার সন্ধ্যায় বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন র‌্যাব-৯ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহম্মেদ।

তিনি বলেন, আমরা ক্যাম্পাস থেকে হামলাকারীকে নিয়ে মেডিকেল যাচ্ছি। সেখানে চিকিৎসা দেওয়ার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত করা হবে।

মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীকে র‌্যাব নিয়ে যাচ্ছে

এদিকে শাবি ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, হামলাকারী অজ্ঞান অবস্থায় ছিল। একজন চিকিৎসক এসে তাকে চিকিৎসা দেন। এরপর তার জ্ঞান ফিরে আসে। পরবর্তী সময়ে তাকে র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এর আগে, শনিবার বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের মাথায় ছুরিকাঘাত করা হয়। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এরপর ড. জাফর ইকবালকে সিলেটের ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 

/আরজে/এমএনএইচ/

সম্পর্কিত

প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক

প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে: ডিএমপি

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:২৪

ই-কমার্স ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে জানিয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (গোয়েন্দা) একেএম হাফিজ আক্তার বলেছেন, তদন্তভার যাদের কাছে ন্যস্ত করা হয়েছে তারা বিষয়গুলো তদারকি করবেন।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এ ধরনের প্রতারণার ঘটনা যদি বেশি বেশি ধরা পড়ে, তাহলে তাদের কার্যক্রম অনেকাংশে কমানো সম্ভব হবে। কম দামে পণ্য বিক্রি করা প্রতিষ্ঠানগুলো বিশেষ করে ই-কমার্সভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলো যারা করছেন, তারা জনগণকে প্রলুব্ধ করছেন এবং জনগণও লোভে পড়ছে। প্রতারণা যারা করবেন, তারা একসময় ধরা পড়বেন আইনের আওতায় আসবেন। ভুক্তভোগীদের বলবো- লোভে না পড়ে সবকিছু বিচার বিবেচনা করে এসব বিষয়ে ইনভেস্ট করার জন্য।

হাফিজ আক্তার আরও বলেন, আমরা চাই ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মটি দেশের মধ্যে প্রসারিত হোক এবং এর সুফল অনেকে পাচ্ছে। কিন্তু যারা এই প্রতারণাগুলো করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সে কাজগুলো আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর পক্ষ থেকে আমরা করে যাচ্ছি।

/আরটি/ইউএস/
টাইমলাইন: ইভ্যালি
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:২৪
ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে: ডিএমপি
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৪৯
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২০
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪২

সম্পর্কিত

‘ধামাকা’র সেলারদের পাওনা ‘২০০ কোটি’ টাকা, সুষ্ঠু সমাধানের দাবি 

‘ধামাকা’র সেলারদের পাওনা ‘২০০ কোটি’ টাকা, সুষ্ঠু সমাধানের দাবি 

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

‘ধামাকা’র সেলারদের পাওনা ‘২০০ কোটি’ টাকা, সুষ্ঠু সমাধানের দাবি 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:১৩

মাইক্রোটেড গ্রুপের আওতাধীন ইনভ্যারিয়েন্ট টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেড পরিচালিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ‘ধামাকা শপিং ডটকম’ এর সঙ্গে লেনদেন বিষয়ে সৃষ্ট জটিলতার সুষ্ঠু সমাধান চান এর সঙ্গে সংম্পৃক্ত বিক্রেতারা। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানায় ধামাকা শপিং ডটকম সেলার অ্যাসোসিয়েশন। এ সময় তারা দাবি করেন, চলতি বছর এপ্রিল মাস থেকে ধামাকার নির্দেশিত গ্রাহকদের নিকট পণ্য সরবরাহ বাবদ সেলারদের পাওনা প্রায় ২০০ কোটি টাকা। এসময় পাঁচদিনের মধ্যে সমাধান না করলে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ারও হুঁশিয়ারি জানান তারা। 

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ইমন লিখিত বক্তব্যে বলেন, সেলার বা মার্চেন্ট হিসেবে প্রায় ৬৫০ জন এসএমই উদ্যোক্তা কোম্পানির চেয়ারম্যান দেশের স্বনামধন্য অর্থোপেডিক চিকিৎসক, এভারকেয়ার হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ও জয়েন্ট কেয়ার কো-অর্ডিনেটর ডা. এম আলী (মো. মোজতবা আলী) ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক জসিমউদ্দিন চিশতীর উপর আস্থা রেখে এবং প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (সিওও) সিরাজুল ইসলাম রানা, প্রধান ব্যবসা কর্মকর্তা দেবকর দে শুভ, ডিএমডি নাজিমউদ্দিন আসিফ, পরিচালক অপারেশন সাফোয়ান আহমেদ, এজিএম ও হেড অব একাউন্টস আমিনুর রহমান, ক্যাটাগরি হেড ইমতিয়াজ হাসানসহ অন্যান্যদের অনুরোধ ও উপস্থিতিতে ২০২০ সনের ডিসেম্বর হতে ধামাকা শপিং ডটকমের নির্দেশনা ও চুক্তি অনুযায়ী পণ্য সরবরাহ করে যাচ্ছিলাম। ইনভ্যারিয়েন্ট টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেডের সাথে পণ্য সরবরাহের জন্য সেলারদের সাথে চুক্তিতে স্পষ্ট লেখা ছিল যে পণ্য সরবরাহের অর্ডারের কপি (পিও) পাওয়ার পর পণ্য সরবরাহ করে বা তাদের নির্দেশিত গ্রাহকদের পণ্য দিয়ে বিল সাবমিট করার ১০ কর্মদিবসের মধ্যে ধামাকা শপিং ডটকম পাওনাকৃত অর্থ পরিশোধ করবে। কিন্তু দুঃখজনকভাবে সেই ১০ দিবস এখন ১৬০ দিনেরও বেশি সময় অতিবাহিত হয়েছে। 

সেলারদের পাওনাকৃত অর্থ উদ্ধারের জন্যে প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ও পরিচালন কর্মকর্তাদের সাথে বারবার যোগাযোগ করেও মালিক পক্ষের কারো সাথে অদ্যাবধি সরাসরি কোনও সাক্ষাৎ বা সমাধান পাওয়া যায়নি দাবি করে তিনি বলেন, সেলারদের অভিভাবক কোম্পানির চেয়ারম্যান ডা. এম আলীর সাথে সরাসরি সাক্ষাতের জন্যে তার বাসভবনে যাওয়ার পরও তিনি সেলারদের সঙ্গে দেখা করেননি এবং তার সাথে ভার্চুয়াল সভা করার জন্যে একাধিকবার আমরা ইমেইল ও হোয়াটসঅ্যাপ মারফত যোগাযোগের সর্বাত্মক চেষ্টা করার পরও কোন যোগাযোগ করতে পারিনি। আমাদের অনুরোধের কোম্পানির দুজন মালিকের মধ্যে প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক জসিম উদ্দিন চিশতী মাঝে মাঝে ভার্চুয়াল সভা ও ফেসবুকে লাইভ প্রোগ্রাম করে বারবার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কিন্তু কোনও প্রতিশ্রুতিই তিনি রক্ষা করেননি।

যুব ও এসএমই ব্যবসায়ী হিসেবে এই বিক্রেতারা শেষ সম্বল, আত্মীয় স্বজন ও ব্যাংক হতে ঋণ নিয়ে এই প্রতিষ্ঠানের সাথে ব্যবসা করে ‘আজ রাস্তার ফকির ও নিঃস্ব’ গিয়েছেন বলেও দাবি করেন জাহাঙ্গীর আলম ইমন। তিনি বলেন, ধামাকা শপিং যেন পূর্বের ন্যায় কার্যক্রম চালু করে, সে বিষয়ে সেলাররা সর্বোচ্চ ধৈর্য নিয়ে সহযোগিতা করে যাচ্ছে। সেলারদের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত কোনও সাধারণ ডায়েরিও করা হয়নি। সেলারদের পাওনাকৃত টাকার বিপরীতে অধিকাংশ সেলারগণ ধামাকা হতে ব্যাংক চেক না পাওয়ায় জসিম উদ্দিন চিশতী ও কর্তৃপক্ষের নিকট সরাসরি ও একাধিকবার ভার্চুয়ালভাবে চেক দেওয়ার আবেদন করার পরও অদ্যাবধি চেক প্রদান করা হয়নি। 

সংবাদ সম্মেলনে বিক্রেতাদের পক্ষ থেকে বলা হয়, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে অংশীদার হওয়ার প্রবল আকাঙ্খা ও ইচ্ছে নিয়ে চাকরি না করে উদ্যোক্তা হয়ে ই-কমার্সে পণ্য সরবরাহকারী হিসেবেই ব্যবসা করার নিমিত্তে বিনিয়োগ করেছি। আমাদের স্বপ্ন এই অল্প সময়ে ও কম বয়সে ধুলিস্যাৎত না হয় সে জন্য আমরা আমাদের মা জননেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে ব্যাংক হিসাব খুলে দেওয়াসহ ধামাকা শপিং ডটকম সম্পর্কে যথাযথ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিশেষ অনুরোধ জানায় বিক্রেতারা। 

/এসও/ইউএস/

সম্পর্কিত

ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে: ডিএমপি

ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে: ডিএমপি

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

দায় মেটাতে না পারলে দেউলিয়া ঘোষণার প্রস্তুতি ছিল ইভ্যালির

দায় মেটাতে না পারলে দেউলিয়া ঘোষণার প্রস্তুতি ছিল ইভ্যালির

ইভ্যালি বিক্রির পরিকল্পনা ছিল রাসেলের

ইভ্যালি বিক্রির পরিকল্পনা ছিল রাসেলের

আশ্রয়ণ প্রকল্পে ‘দুর্নীতি ও অনিয়মের’ সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০২

মুজিব জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ভূমিহীনদের আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণে ‘দুর্নীতি ও অনিয়ম’ হয়েছে দাবি করে এর সুষ্ঠু বিচারসহ পাঁচ দফা দাবি জানিয়েছে ‘বাংলাদেশ ভূমিহীন আন্দোলন’ নামের একটি সংগঠন। আজ শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে সংগঠনটির নেতারা এসব দাবি জানান।

বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভূমিহীনদের জন্য আশ্রয়ণ প্রকল্প গ্রহণ করেছেন। এতে ভূমিহীনরা খুশি হয়েছিল। প্রয়োজনের তুলনায় ঘরের সংখ্যা অপ্রতুল হলেও কয়েক জেলায় এই ঘর ভূমিহীনদের মাঝে ইতিমধ্যে হস্তান্তর করা হয়েছে। অনেক জায়গায় প্রকৃত ভূমিহীনরা ঘর না পেয়ে প্রভাবশালীরা ঘর পেয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আবার যাদের মাঝে ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে তারা এখন সে ঘরে থাকতে ভয় পাচ্ছেন। জীবন রক্ষার আশ্রয়স্থল, এখন জীবননাশের হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে। নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার ও বরাদ্দের সিংহভাগ দুর্নীতির মাধ্যমে লুটপাট করার অভিযোগ উঠেছে। আবার প্রধানমন্ত্রী দাবি করেছেন হাতুরি-শাবল দিয়ে দুর্বৃত্তরা ঘরে ভেঙেছেন। আমরা দুর্নীতিবাজ ও দুর্বৃত্ত সকলের পরিচয় জাতির কাছে প্রকাশের দাবি জানাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দেশের ভূমিহীন অসহায় মানুষের এই প্রকল্পে কোন ধরনের দুর্নীতি-অনিয়ম দেশের ভূমিহীনরা সহ্য করবে না উল্লেখ করে বক্তারা আরও বলেন, আমরা আমাদের রাষ্ট্রীয় মৌলিক অধিকার যে কোনও মূল্যে আদায় করে নেবো।

সংগঠনটির দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে— দুর্নীতির ঘটনা তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে সুষ্ঠু বিচার, স্থানীয় সরকার নির্দলীয় করা ও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলীয় প্রতীক বাতিল করা; প্রত্যেক জেলার খাসজমি বণ্টন কমিটিতে ভূমিহীনদের প্রতিনিধিত্ব রাখা; প্রত্যেক জেলায় কল-কারখানা গড়ে তুলে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা এবং জাতপাতের নামে শ্রেণিবৈষম্য দূর করে মেহনতি জনতাকে বিভক্তিকরণ নীতি বন্ধ করা।

এসময় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল আমীন, কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইদুল রহমান লুৎফর, সাধারণ সম্পাদক শেখ নাসির উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন ভূঁইয়া প্রমুখ।

/বিআই/ইউএস/

সম্পর্কিত

অবৈধ পদোন্নতির হিড়িক স্বাস্থ্য অধিদফতরে

অবৈধ পদোন্নতির হিড়িক স্বাস্থ্য অধিদফতরে

চাকরির আট বছরেই ১২ কোটি টাকার মালিক বিআরটিএ কর্মকর্তা

চাকরির আট বছরেই ১২ কোটি টাকার মালিক বিআরটিএ কর্মকর্তা

এসকে সিনহার মামলার রায় ৫ অক্টোবর

এসকে সিনহার মামলার রায় ৫ অক্টোবর

পাসপোর্ট অধিদফতরের দুই কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

পাসপোর্ট অধিদফতরের দুই কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০০

সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাজার কোটি টাকা প্রতারণা করে নেওয়া পিরোজপুরের সেই মুফতি রাগীব এহসানকে ‘সফল সমবায় পদক’ দিয়েছিলেন তৎকালীন জেলা প্রশাসক। ২০১৪ সালে ৪৩তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে এহসানের মালিকানাধীন এহসান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ধর্মীয় অনুভূতিকে কাজে লাগিয়ে সুদবিহীন মুনাফার প্রলোভন দেখাতেন এহসান। জেলা প্রশাসনের উচ্চপর্যায়েও যোগাযোগ ছিল তার। জেলা প্রশাসক স্বাক্ষরিত পদকও পেয়েছেন। একারণে সাধারণ মানুষ তাকে অন্ধবিশ্বাস করে টাকা দিয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে জানা গেছে।

৯ সেপ্টেম্বর রাতে র‌্যাব সদর দফতরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব ১০-এর একটি দল রাজধানীর শাহাবাগ থানার তোপখানা রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে রাগীব এহসান ও তার সহযোগী আবুল বাশার খানকে গ্রেফতার করে। ওই দিন বিকালেই পিরোজপুর থেকে তার দুই ভাই মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও খাইয়রুল বাশারকে গ্রেফতার করে স্থানীয় থানা পুলিশ।

হারুন অর রশীদ নামে স্থানীয় এক স্কুল শিক্ষক এহসান ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর একে একে তাদের বিরুদ্ধে পিরোজপুরে আরও অন্তত তিনটি মামলা হয়েছে। এ ছাড়া যশোরসহ অন্যান্য এলাকাতেও প্রতারণার অভিযোগে একাধিক মামলা হয়েছে বলে জানা গেছে।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান বলেন, প্রতারণার অভিযোগে এহসান ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে পিরোজপুরে মোট ৫টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় চারজনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গ্রেফতারকৃতরা এ বিপুল পরিমাণ অর্থ কোথায় রেখেছেন তাও জানার চেষ্টা চলছে।

র‌্যাব ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, প্রতারক রাগীব এহসান মোট ১৭টি প্রতিষ্ঠান চালু করেছিলেন। এসব প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ‘সুদবিহীন মুনাফা’র কথা বলে প্রতারণার ফাঁদ পেতেছিলেন। তার প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে এহসান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড হলো সবচেয়ে পুরনো। সাধারণ মানুষের ধর্মীয় অনুভূতি কাজে লাগিয়ে মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নেন তিনি।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে, প্রথম থেকেই এহসান মাল্টিপারপাস প্রতারণা করে আসছিল। কিন্তু বিষয়টি যাদের দেখভাল করার কথা, সেই জেলা সমবায় কার্যালয়ের পক্ষ থেকে এহসানকে উল্টো পদক ও সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। এগুলো দেখিয়ে সে আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে। মাল্টিপারপাস সমিতির আড়ালে এহসান রিয়েল স্টেট নামের আরেকটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমেও বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এহসান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডকে সফল সমবায় সমিতির সার্টিফিকেট দেওয়ার সময় পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক ছিলেন এ কে এম শামীমুল হক ছিদ্দিকী। জেলা সমবায় কর্মকর্তা ছিলেন মনিরুজ্জামান তালুকদার। মনিরুজ্জামান বর্তমানে এলপিআরে রয়েছেন। এ কে এম শামীমুল হক ছিদ্দিকী নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে কর্মরত। যোগাযোগ করা হলে শামীমুল হক ছিদ্দিকী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘অনেক আগের বিষয়। পুরোপুরি মনে নেই। কাকে সনদ বা পদক দেওয়া হবে তা ঠিক করে জেলা সমবায় অফিস। তারাই ভালো বলতে পারবে।’

পিরোজপুরের জেলা সমবায় কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম জানান, তিনি সাত মাস আগে পিরোজপুরের জেলা সমবায় কার্যালয়ে যোগ দিয়েছেন। এর মধ্যেই রাগীবকে একাধিকবার গ্রাহকদের অর্থ ফেরত দিতে তাগাদা দিয়েছিলেন। আগের বিষয়গুলো তার জানা নেই।

/এফএ/আপ-এনএইচ/

সম্পর্কিত

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০৪

চীনের সিনোফার্মের তৈরি করোনা প্রতিরোধী টিকার আরও ৫০ লাখ ডোজের একটি চালান দেশে পৌঁছেছে। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ২টার দিকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে চালানটি ঢাকার হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়।

ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি জানান, স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারা গতকালের চালানের টিকাগুলো গ্রহণ করে কোল্ড স্টোরেজে সংরক্ষণের জন্য পাঠিয়ে দিয়েছেন।

এ নিয়ে সব মিলিয়ে সিনোফার্মের মোট প্রায় আড়াই কোটি পেলো বাংলাদেশ। এর আগে গত ১০ সেপ্টেম্বরও (শুক্রবার) ৫৪ লাখ ডোজ টিকাসহ একটি বড় চালান দেশে আসে।

সিনোফার্মের ৩ কোটি ডোজ টিকা কিনতে চুক্তি করেছে সরকার। এছাড়া কোভ্যাক্স সহায়তা থেকেও বাংলাদেশ সিনোফার্মের টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ।

চীন সরকারের উপহার হিসেবে ১২ মে ৫ লাখ ডোজ টিকা আসে বাংলাদেশে। সিনোফার্মের টিকার ওটাই ছিল প্রথম চালান। পরে ১৩ জুন উপহার হিসেবে আরও ৬ লাখ ডোজ টিকা আসে।

উপহারের এই ১১ লাখ ডোজ টিকা আসার পর জুলাই মাসে সিনোফার্মের টিকার আরও ছয়টি চালান আসে। এর মধ্যে ৩ জুলাই রাতে ১০ লাখ ডোজ, ৪ জুলাই সকালে ১০ লাখ ডোজ, ১৭ জুলাই রাত পৌনে ১২টায় ১০ লাখ ডোজ এবং ওইদিনই দিবাগত রাত ৩টায় আরেকটি ফ্লাইটে ১০ লাখ ডোজ টিকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। এরপর মাসের শেষদিকে ২৯ এবং ৩০ জুলাই আরো ৩০ লাখ ডোজ টিকা এসেছে। পরের মাসে ১০ আগস্ট ১৭ লাখ ডোজ, ১২ আগস্ট ১৭ লাখ ডোজ, ১৩ আগস্ট ১০ লাখ ডোজ এবং ২০ লাখ ডোজ টিকা এসেছে। 

চলতি মাসে গত ১০ সেপ্টেম্বর সিনোফার্মের টিকার প্রথম চালান দেশে আসে। ৫৪ লাখ টিকার ওই চালানই এখন পর্যন্ত দেশে সিনোফার্মের টিকার সবচেয়ে বড় চালান।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দিয়ে সারাদেশে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু করে সরকার। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা ছাড়াও চীনের সিনোফার্ম, যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার-বায়োএনটেক এবং মডার্নার টিকা প্রয়োগ করা হচ্ছে।

/জেএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক

প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

সর্বশেষ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ৬০ জনের চাকরির সুযোগ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ৬০ জনের চাকরির সুযোগ

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে: ডিএমপি

ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে: ডিএমপি

সবচেয়ে দুষ্প্রাপ্য ফুল

সবচেয়ে দুষ্প্রাপ্য ফুল

‘ধামাকা’র সেলারদের পাওনা ‘২০০ কোটি’ টাকা, সুষ্ঠু সমাধানের দাবি 

‘ধামাকা’র সেলারদের পাওনা ‘২০০ কোটি’ টাকা, সুষ্ঠু সমাধানের দাবি 

© 2021 Bangla Tribune