X
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

তাদের তিনজনেরই বাস চালানোর লাইসেন্স নেই

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০১৮, ১৯:৫৫

অভিযুক্ত তিন বাসচালক ( বামে যুবায়ের, মাঝে মূল ঘাতক মাসুম বিল্লাহ ও ডানে সোহাগ)

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের র‌্যাডিসন হোটেলের উল্টোপাশে দুই শিক্ষার্থীকে চাপা দেওয়া সেই বাসচালক মাসুম বিল্লাহর বড় গাড়ি চালানোর লাইসেন্স ছিল না। হালকা যান প্রাইভেটকার ও ছোট মাইক্রোবাস চালনার জন্য লাইসেন্স নিয়ে তিনি বাস চালিয়ে আসছিলেন। র‌্যাবের হাতে আটক হওয়ার পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এসব কথা স্বীকার করেছেন মাসুম বিল্লাহ। মাসুম বিল্লাহ জানিয়েছেন,যাত্রী ওঠানোর জন্য প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে বাসের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তিনি শিক্ষার্থীদের চাপা দিয়েছিলেন।

এদিকে, হালকা যানের লাইসেন্স থাকার পরও বড় বাস চালানোর জন্য চালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার কারণে এই বাস কোম্পানির চেয়ারম্যান জাকির হোসেনসহ পরিচালকরাও অভিযুক্ত হতে পারেন। তারা জেনে-শুনেই প্রাইভেটকারচালকের হাতে বড় বাস তুলে দিয়েছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে মনে করছেন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল সারোয়ার বিন কাশেম বলেন,‘দুর্ঘটনার পরপরই আমরা গোপন সংবাদ ও তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় মাসুম বিল্লাহর অবস্থান জানার চেষ্টা করি। ঘটনার রাতে প্রথমে অপর দুই বাসের চালক সোহাগ ও জুবায়ের এবং তাদের এক সহযোগীকে আটক করা হয়। সোমবার বরগুনা থেকে মাসুম বিল্লাহকে আটক করা হয়। তাকে ঢাকায় আনা হয়েছে। তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।’

র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান,জিজ্ঞাসাবাদে মাসুম বিল্লাহ জানিয়েছে, সে আগে জাবালে নূর পরিবহনের চালকের সহযোগী হিসেবে কাজ করতো। গত তিন চার বছর আগে সে হালকা যানের একটি লাইসেন্স সংগ্রহ করে। এই ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে তার প্রাইভেটকার ও সর্বোচ্চ ১২ সিটের মাইক্রোবাস চালানোর অনুমতি ছিল। কিন্তু মাসুম বিল্লাহ হালকা যান চালানোর লাইসেন্স হাতে পেয়েই বাস চালানো শুরু করে।

র‌্যাব সূত্র জানায়, দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় যে তিনটি বাসের প্রতিযোগিতা করেছিল সেই অপর দুটি বাসের চালক সোহাগ ও জুবায়েরের লাইসেন্সও হালকা যানের। এই লাইসেন্স দিয়ে তাদের বাস চালানোর কথা ছিল না। সোহাগ ও জুবায়েরও আগে বাসের চালকের সহযোগী ছিল। পর্যায়ক্রমে তারাও হালকা যানের লাইসেন্স হাতে পেয়ে বাস চালানো শুরু করে।

র‌্যাবের একজন কর্মকর্তা জানান, তিনটি বাসের মধ্যে মিরপুরের কালশী থেকে প্রথমে ঢাকা মেট্রো ব-১১-৭৬৫৭ নম্বরের বাসটি নিয়ে ফ্লাইওভার পার হয়ে আসে চালক জুবায়ের। ফ্লাইওভার শেষ মাথাতেই সে বাসটিকে কিছুটা আড়াআড়ি করে রেখে যাত্রী তুলছিল। তার পেছনে পেছনেই বাস নিয়ে আসছিল মাসুম বিল্লাহ ও সোহাগ। সোহাগের ঢাকা মেট্রো ব-১১-৭৫৮০ বাসটির আগে যাবার জন্য মাসুম তার ঢাকা মেট্রো ব-১১-৯২৯৭ বাসটি নিয়ে জুবায়েরের বাসের আগে যাওয়ার চেষ্টা করে। এতেই সে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে শিক্ষার্থীদের চাপা দেয়।

র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা জানান, তিনটি বাসেরই চালকদের বড় বাস চালানোর লাইসেন্স ছিল না। তারা প্রাইভেটকার বা হালকা যান চালানোর লাইসেন্স নিয়ে গাড়ি চালাতো।

  অভিযুক্ত দুই বাসচালকের দুই সহকারী রিপন ও এনায়েত

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের একজন কর্মকর্তা জানান, হালকা যানের লাইসেন্স দিয়ে যাত্রীবাহী বড় বাস চালিয়ে দুর্ঘটনা ঘটলে তার লাইসেন্স নাই বলেই গণ্য করা হবে। এক্ষেত্রে লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালিয়ে দুর্ঘটনা ঘটলে আইন অনুযায়ী যেরকম শাস্তি হওয়া উচিত তাই হওয়ার কথা।

পুলিশের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন,দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় ক্যান্টনমেন্ট থানায় যে মামলা দায়ের করা হয়েছে সেখানে বেপরোয়া যান চালিয়ে মৃত্যু ঘটানোর অভিযোগ এনে দণ্ডবিধির ২৭৯ এবং ৩০৪ (খ) ধারার সংযুক্ত করা হয়েছে। এক্ষেত্রে লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানো গণ্য করা হলে তার শাস্তির পরিমাণ পড়বে। একই সঙ্গে লাইসেন্সবিহীন থাকার পরও গাড়িচালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার কারণে তার নিয়োগকর্তাও অভিযুক্ত হবেন।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চাপা দেওয়া বাসচালক মাসুম বিল্লাহর বাবার নাম আব্দুল বারেক। তাদের গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার কলাপাড়া থানাধীন উত্তর কানাইয়া এলাকায়। ঢাকার মিরপুরে সে পরিবার নিয়ে থাকতো।

চার জন কারাগারে, রিমান্ড শুনানি ৬ আগস্ট

এদিকে সোমবার দুই বাসচালক সোহাগ ও জুবায়ের এবং তাদের দুই সহযোগী এনায়েত ও রিপনকে পুলিশে সোপর্দ করার পর তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠায় ক্যান্টনমেন্ট থানা পুলিশ। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ক্যান্টনমেন্ট থানার এসআই  রিয়াদ আহমেদ মুখ্য মহানগর আদালতের হাকিম এইচ এম তোহার আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। কিন্তু আদালত শুনানির জন্য আগামী ৬ আগস্ট তারিখ নির্ধারণ করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত রবিবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে বিমানবন্দর সড়কের র‌্যাডিসন হোটেলের বিপরীতে কালশী থেকে বিমানবন্দরগামী জাবালে নূর পরিবহনের একাধিক বাস প্রতিযোগিতা করে যাত্রী তুলতে গিয়ে পথচারী ও শিক্ষার্থীদের চাপা দেয়। এতে শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী দিয়া খানম মিম ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আব্দুল করিম রাজীব নিহত হয়। এছাড়া আরও অন্তত ১২ শিক্ষার্থী আহত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এঘটনায় সেদিন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা শতাধিক গাড়ি ভাঙচুর করে। এরপর সোম ও মঙ্গলবার শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয় ঢাকা উত্তরে। এ ঘটনায় ক্যান্টনমেন্ট থানায় নিহত মিমের বাবা জাহাঙ্গীর ফকির বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

/টিএন/

সম্পর্কিত

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২৩

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সরকারি সফর শেষে শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দেশে ফিরেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। সফরকালে তিনি মার্কিন সেনাবাহিনী এবং পাপুয়া নিউ গিনি ডিফেন্স ফোর্স কর্তৃক যৌথভাবে আয়োজিত ইন্দো-প্যাসিফিক আর্মি চিফস কনফারেন্সে অংশ নেন।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম খান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩ দিনব্যাপী আয়োজিত এই কনফারেন্সের অংশ হিসেবে প্রথম দিনে তিনি মার্কিন সেনাবাহিনীর ২৫তম ইনফ্যান্ট্রি ডিভিশনের সক্ষমতা এবং মার্কিন আর্মি প্যাসিফিক কমান্ড কর্তৃক পরিচালিত একটি লাইভ ফায়ার মহড়া অবলোকন করেন । 

আর্মি চিফস কনফারেন্সের দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ‘দ্যা চেঞ্জিং ফিজিক্যাল এনভায়রনমেন্ট অফ ল্যান্ড অপারেশন’ এবং ‘দ্যা ইভলবিং হিউম্যান এনভায়রনমেন্ট অফ ল্যান্ড অপারেশন’ বিষয়বস্তু দুটির ওপর অনুষ্ঠিত প্লেনারিতে অংশ নেন। 

কনফারেন্সের শেষ দিনে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ মার্কিন আর্মি প্যাসিফিক কমান্ডের কমান্ডিং জেনারেল, জেনারেল চার্লস্ এ. ফ্লিনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। এছাড়াও ইন্দোনেশিয়ান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আন্দিকা পেরকাসা; দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল নাম ইয়ং শিনসহ বেশ কয়েকটি দেশের উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

মেক্সিকোর স্বাধীনতার ২০০ বছর উদযাপনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্যারেড

মেক্সিকোর স্বাধীনতার ২০০ বছর উদযাপনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্যারেড

পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন সেনাপ্রধান

পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন সেনাপ্রধান

কঙ্গোলিজ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিলো বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা

কঙ্গোলিজ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিলো বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা

সেনাবাহিনী-সন্ত্রাসী গুলিবিনিময়, আটক ৪

সেনাবাহিনী-সন্ত্রাসী গুলিবিনিময়, আটক ৪

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২০

দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৪ কোটি ৯৫ লাখ ৮৫ হাজার ৮০ ডোজ। এর মধ্যে ৩ কোটি ৬৭ লাখ ৪ হাজার ৩২ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই মুহূর্তে ১ কোটি ২৮ লাখ ৪১ হাজার ২৪ ডোজ টিকা মজুত  আছে। এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২ কোটি ২১ লাখ ৫১ হাজার ৬০৫ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৪৫ লাখ ৯৫ হাজার ৪২৭ জন। আজ মোট দেওয়া হয়েছে ৫ লাখ ১ হাজার ৪১ ডোজ টিকা। 

এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্য মতে, আজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ২২৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ২২০ জনকে। 

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ এবং দ্বিতীয় ডোজ কাউকে দেওয়া হয়নি।

এছাড়া সিনোফার্মের টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ৮৬ হাজার ৫৪২ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৯০ হাজার ৫১৬ জন।  

মডার্নার টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৪ হাজার ২৪৮ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১২ হাজার ২৮৮ জনকে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৪ কোটি ২৩ লাখ ৭১ হাজার ৫৪১ জন। 

 

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৬

রাজধানীর দারুস সালাম থানা এলাকা থেকে সিআইডির ভুয়া ইন্সপেক্টর পরিচয় দেওয়া একজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) দারুস সালাম থানা পুলিশ। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতারকৃতের নাম মো. হাবিবুল্লাহ তালুকদার অভি। তার বাড়ি ঢাকার সাভারে।

এ সময় তার কাছ থেকে স্পেশাল ডিশন সিবি হরনেট-১৬০আর মোটরবাইক, একটি ওয়াকিটকি, একটি পাসপোর্ট একটি পোকো মোবাইল সেট জব্দ করা হয়।

দারুস সালাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জামাল হোসেন বলেন, শুক্রবার দারুস সালাম থানার গাবতলি তিন রাস্তার মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ বক্সের পাশে পুলিশ সার্জেন্ট ও টহল পুলিশের সমন্বিত তল্লাশি চৌকিতে একজন মোটর আরোহীকে থামার সিগন্যাল দেওয়া হয়। চালক মোটরবাইক থামালে কর্তব্যরত অফিসার গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাইলে সে নিজেকে সিআইডির পুলিশ ইন্সপেক্টর হিসেবে পরিচয় দেন। তখন পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে বাইক নিয়ে দ্রুত চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১১

কাঁধের একটি ব্যাগ আর একটি কার্টন নিয়ে বিমানবন্দরে এসেছিলের  স্বপন মাতব্বর। তিনি যাবেন সৌদি আরবের দাম্মামে। তবে তার সৌদি আরব যাওয়া হয়নি।  শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিমানবন্দরে ব্যাগেজ স্ক্যানিংয়ের সময় তার কার্টনে ধরা পড়ে ইয়াবা। তাকে ইয়াবাসহ আটক করা হয়।

জানা গেছে, সৌদিগামী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-৪০৪৯ ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন স্বপন। বোর্ডিং শেষে চেক ইন ব্যাগেজ স্ক্যানিং এর সময় তার সঙ্গে থাকা একটি কার্টনে ইয়াবা শনাক্ত হয়। কার্টনের কার্বন পেপারে মুড়িয়ে আলাদা লেয়ার করে ২২ হাজার ৪৯০ পিস ইয়াবা লুকানো ছিল।

সূত্র জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে স্বপন মাতব্বর জানিয়েছেন, তার বাড়ি মাদারীপুরে। সৌদি আরবে থাকা পরিচিত একজন তাকে অনুরোধ জানিয়েছিলেন তার ভাইয়ের কাছ থেকে একটি সবজিসহ কার্টন নিয়ে আসার জন্য। 

বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ-উল আহসান বলেন, বিমানবন্দরে ডি সারিতে স্ক্রিনার নুরুজ্জামান ও ইউনুস আলী ওই যাত্রীর ব্যাগ স্ক্যানিং করেন। এরপর তার ব্যাগ তল্লাশি করে ইয়াবা আটক করেন তারা। আটক যাত্রীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

/সিএ/এমআর/

সম্পর্কিত

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:০৩

ট্রান্সফ্যাটের ক্ষতিকর প্রভাব এবং ট্রান্সফ্যাটমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে প্রক্রিয়াধীন ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা দ্রুততম সময়ের মধ্যে চূড়ান্ত করার তাগিদ দিয়েছেন সাংবাদিকরা।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) গ্লোবাল হেলথ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটর (জিএইচএআই)-এর সহায়তায় বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) ভবনের শহীদ ডাক্তার শামসুল আলম খান মিলন সভাকক্ষে ‘ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা: অগ্রগতি ও করণীয়’ শীর্ষক সাংবাদিক  কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী সাংবাদিকরা এ তাগিদ দেন। 

অ্যাডভোকেসি ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান) আয়োজিত কর্মশালায় প্রিন্ট এবং অনলাইন মিডিয়ায় কর্মরত ২৯ জন সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালায় প্রজ্ঞা’র পক্ষ থেকে মূল উপস্থাপনা তুলে ধরেন ট্রান্সফ্যাট নির্মূল প্রকল্পের টিমলিডার হাসান শাহরিয়ার এবং প্রকল্প সমন্বয়ক মাহমুদ আল ইসলাম শিহাব।

এ সময় প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ইপিডেমিওলজি অ্যান্ড রিসার্চ বিভাগের অধ্যাপক ডা. সোহেল রেজা চৌধুরী, ব্রাক ইউনিভার্সিটির অ্যাসোসিয়েট সায়েন্টিস্ট আবু আহমেদ শামীম, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ’র (বিএফএসএ) সদস্য মঞ্জুর মোর্শেদ, জিএইচএআই’র বাংলাদেশ কান্ট্রি লিড রূহুল কুদ্দুস উপস্থিত ছিলেন।

প্রজ্ঞার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রজ্ঞা জানিয়েছে, খাদ্যে উচ্চমাত্রার শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাটের কারণে প্রতিবছর পৃথিবীতে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ হৃদরোগে মৃত্যুবরণ করেন। ডব্লিওএইচও’র প্রতিবেদন অনুযায়ী ট্রান্সফ্যাটঘটিত হৃদরোগে মৃত্যুর সর্বাধিক ঝুঁকিপূর্ণ ১৫টি দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম থাকলেও ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণের খসড়া নীতিমালাটি এখনো চূড়ান্ত করতে পারেনি সরকার। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ২০২৩ সালের মধ্যে বিশ্বের খাদ্য সরবরাহ শৃঙ্খল থেকে ট্রান্সফ্যাট নির্মূলের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে এবং এলক্ষ্যে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ (বিএফএসএ) ‘খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্স ফ্যাটি এসিড নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা, ২০২১’ প্রণয়নে কাজ করছে।

কর্মশালায় আবু আহমেদ শামীম বলেন, ডালডা বা বনস্পতি ঘি এবং তা দিয়ে তৈরি বিভিন্ন খাবার, ফাস্টফুড ও বেকারি পণ্যে ট্রান্সফ্যাট থাকে। অধ্যাপক ডা. সোহেল রেজা চৌধুরী বলেন, “আমাদের গবেষকদল ঢাকার ডালডা নমুনার ৯২ শতাংশে ডব্লিউএইচও সুপারিশকৃত ২% মাত্রার চেয়ে বেশি ট্রান্সফ্যাট (ট্রান্স ফ্যাটি এসিড) পেয়েছেন, যা অত্যন্ত উদ্বেগজনক।

মঞ্জুর মোর্শেদ জানিয়েছেন, খাদ্য মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যেই খসড়া প্রবিধানমালাটি চূড়ান্ত করতে ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে। আমরা আশা করছি দ্রুততম সময়ের মধ্যে এটি চূড়ান্ত হবে।

রূহুল কুদ্দুস বলেন, ‘ট্রান্সফ্যাট নির্মূলের অর্থনৈতিক গুরুত্বও অনেক। আমাদের প্রক্রিয়াজাত খাদ্যপণ্যের রফতানি বাজার দিন দিন বাড়ছে। ট্রান্সফ্যাটমুক্ত পণ্য তৈরি করতে না পারলে আমরা আন্তর্জাতিক বাজার হারাবো এবং দেশ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

 

/এসআই/এফএএন/

সম্পর্কিত

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

রাসেলের মুক্তি দাবি

রাসেলের মুক্তি দাবি

নির্বাচন কমিশন গঠনে আইনের দাবি

নির্বাচন কমিশন গঠনে আইনের দাবি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক

প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

সর্বশেষ

আফগান মেয়েদের স্কুল থেকে বাদ দেওয়া উচিত না: ইউনিসেফ

আফগান মেয়েদের স্কুল থেকে বাদ দেওয়া উচিত না: ইউনিসেফ

পুতিনের সঙ্গে বসছেন এরদোয়ান

পুতিনের সঙ্গে বসছেন এরদোয়ান

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

চবিতে দুই শিক্ষার্থীকে হেনস্তার অভিযোগ

চবিতে দুই শিক্ষার্থীকে হেনস্তার অভিযোগ

© 2021 Bangla Tribune