X
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

জাবিতে হিম উৎসব শুরু ১৭ জানুয়ারি

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:১০
image

ক্রমশ হারিয়ে যাচ্ছে প্রাণের স্পন্দন আমাদের লোকজ সংস্কৃতি। বাণিজ্যিকীকরণের কবলে পড়েছে শিল্প। বৈচিত্র্যময় সেসব সংস্কৃতি বাঁচিয়ে রাখতে এবং শিল্পের বাণিজ্যিকীকরণ রুখতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী আয়োজন করছে ‘হিম উৎসব’ এর। ‘পরম্পরায় আমরা’ নামে শিক্ষার্থীদের একটি প্ল্যাটফর্মের উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে টানা চতুর্থবারের মতো বসছে শীত বরণের এই উৎসব।

জাবিতে হিম উৎসব
১৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার থেকে ১৯ জানুয়ারি শনিবার পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বেশ কয়েকটি স্পটে বসবে উৎসবের নানা আয়োজন।  
এবারের প্রতিপাদ্য ‘সুআশায় কেটে যাক কুআশার ঘোর।’

উৎসবের বিশেষত্ত সম্পর্কে ‘পরম্পরায় আমরা’র সংগঠকরা বলেন, ‘আমরা এমন একটা সময়ে বাস করছি যখন ধীরে ধীরে হারিয়ে যাচ্ছে আমাদের লোকজ সংস্কৃতি। সংস্কৃতি, ভাষা, নিঃশ্বাসে আমাদের পরিচয়। শীতের রুক্ষতার ন্যায় এক অদ্ভুত অন্ধকার গ্রাস করে নিচ্ছে আমাদের সংস্কৃতিকে। তাই শীতের রুক্ষতাকে দূরে সরিয়ে সংস্কৃতির বিকাশ, চর্চা, উপস্থাপন এবং সংরক্ষণের জন্যই এই উৎসব।’

তিন দিনব্যাপী এবারের উৎসবে থাকছে আর্ট ক্যাম্প, পেইন্টিং ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী, শাস্ত্রীয় সংগীতানুষ্ঠান, গাজীর গান, আদিবাসী নাচ, সাপখেলা, লাঠিখেলা এবং কনসার্ট। এবারের কনসার্টটি উৎসর্গ করা হয়েছে প্রয়াত সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে।     

জাবিতে হিম উৎসব            
১৭ জানুয়ারি বিকাল তিনটায় ‘অমর একুশ’ এর পাদদেশ থেকে হিমযাত্রার মধ্য দিয়ে উৎসবের শুরু হবে। জহির রায়হান মিলনায়তন চত্বরে বিকাল সাড়ে তিনটায় সাপ খেলা ও লাঠিখেলা, সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটায় আদিবাসী নাচ, সাড়ে ছয়টায় সঙ, সাতটায় গাজীর গান এবং রয়েছে দিনব্যাপী পেইন্টিং ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী।
পরদিন শুক্রবার সকাল ১০টায় জহির রায়হান মিলনায়তন চত্বরে আর্টক্যাম্প, সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটায় সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতানুষ্ঠান এবং ক্যাফেটেরিয়া চত্বরে দিনব্যাপী পেইন্টিং ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী থাকবে। উৎসবের সমাপনি দিন শনিবার সকাল ১১টায় সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চে কনসার্টের মধ্য দিয়ে হিম উৎসবের পর্দা নামবে। রয়েছে ব্যান্ড ‘বাংলা ফাইভ’ এর অ্যালবাম ‘কনফিউশন’ এর প্রকাশনা। কনসার্টে পারফর্ম করবে বেশ কয়েকটি ব্যান্ড।

/এনএ/

সম্পর্কিত

‘প্রত্যেকের নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার রয়েছে’

‘প্রত্যেকের নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার রয়েছে’

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

‘প্রত্যেকের নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার রয়েছে’

আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৪০

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেছেন, উৎসব কোনও নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের নয়। প্রত্যেক মানুষের স্বাধীনভাবে নিজ নিজ ধর্মীয় উৎসব পালনের অধিকার রয়েছে। যারা নির্দিষ্ট ধর্মভিত্তিক রাষ্ট্রব্যবস্থা গড়ে তুলতে চায়, তাদের না বলার সময় এসেছে।

শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে চারটায় দেশের বিভিন্ন স্থানে শারদীয় দুর্গোৎসবের পূজামণ্ডপে হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুরের প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সকল সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ সংহতি জানিয়ে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। 

ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘শারদীয় দুর্গা উৎসবে যারা আক্রমণ করেছে, মানুষের ধর্মীয় অনুভূতিতে যারা আঘাত করেছে; সেই সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে ও সহিংসতার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজকের এই প্রতিবাদ সমাবেশ। 

এদেশের সব ধর্মীয় অনুষ্ঠান সকল মানুষের উৎসব উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এখানে দুর্গা উৎসব, ঈদ, বড়দিন, সরস্বতী পূজা, পহেলা বৈশাখ, বিজু কিংবা সাংরাইয়ের উৎসব— এদেশের মানুষের হাজার বছরের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের পটভূমিতে লালিত। যারা এই দেশে সহিংসতা তৈরি করতে চায়, তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার সময় আমাদের এসেছে। বাঁশের লাঠি তৈরি করে এদের প্রতিরোধ করার সময় এসেছে। যেখানেই মন্দির আক্রান্ত হবে সেখানেই বাঁশের লাঠি দিয়ে এদের প্রতিরোধ করতে হবে।

নাট্য সংসদের সাধারণ সম্পাদক দিগার মোহাম্মদ কৌশিকের সঞ্চালনায় এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন নাট্য সংসদের সভাপতি মনিরুজ্জামান মুন্না, নাট্য সংসদের সাবেক সভাপতি সামিউল হক সানি, ডিবেটিং সোসাইটির সাবেক সভাপতি রাকিব সিরাজী, শহীদুল্লাহ হল সংসদের সাবেক ভিপি হোসেইন মোহাম্মদ তুরান, জগন্নাথ হলের সাবেক জিএস কাজল দাস প্রমুখ। 

/এনএইচ/

সম্পর্কিত

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় বেরোবির ৭ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় বেরোবির ৭ শিক্ষক

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০২১, ১৫:২৭

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত পাঁচ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) রাত ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বৃহস্পতিবার বিকালে ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী রিয়াজুল ইসলাম বাঁধন ১২তম ব্যাচের সোহাগ নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে ‘তুমি’ বলে সম্বোধন করেন। এতে ১২তম ব্যাচের সোহাগ, শাফী, ওয়াকিল ও আবিরসহ কয়েকজন বাঁধনকে হলের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে নিয়ে হুমকি ও মারধর করে।

বাঁধন জানান, ‘সোহাগ ভাইয়ের নাম ধরে ডাকায় শাফী ভাই, সোহাগ ভাই, আবির ভাই ও ওয়াকিল ভাইসহ কয়েকজন আমাকে চেয়ারের সঙ্গে গামছা দিয়ে বাঁধেন। এরপর বেল্ট দিয়ে পেটাতে থাকেন। আমি অজ্ঞান হয়ে গিয়েছিলাম। পরে আমার বন্ধুরা এসে গাড়িতে তুলে দিলে আমি হল থেকে বাড়ি চলে আসি।’

মারধরের ঘটনা অস্বীকার করে ওয়াকিল বলেন, ‘তাকে (বাধন) রুমে নিয়ে মারধরের প্রশ্নই আসে না। সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় হলের বারান্দায় তাকে একটু শাসানো হয়েছিল।’ 

আবির ও সোহাগ জানান, ‘বাঁধন অনেক আগে থেকেই সিনিয়রদের সঙ্গে উগ্র আচরণ ও বেয়াদবি করছিলো। আমরা সিনিয়র হিসেবে তাকে শুধু বুঝিয়েছি। মারধরের প্রশ্নই আসে না। বরং তাকে বুঝিয়ে কোকও খাইয়েছি৷ তাকে মারধর করলে তো হলের সবাই জানার কথা।’

বাঁধনকে শাসানোর জেরে বৃহস্পতিবার রাতে ১১টার দিকে ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ১২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী শাফীকে ২০০৪ নম্বর কক্ষের দরজা আটকে মারধর করে বলে জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা। মারধরের খবর পেয়ে সহপাঠীরা কক্ষের দরজা ভেঙে শাফীকে উদ্ধার করেন।

শাফী বলেন, ‘তারা সিনিয়রদের গায়ে হাত তুলেছে। সাংগঠনিক একটা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে। দত্ত হলের ইতিহাসে যা কোনও দিন হয়নি, তারা তা করেছে। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, তারা হলে থাকার যোগ্য না। আমি তাদের বোঝাতে গিয়েছিলাম। কিন্তু তারা আমাকে মারধর করেছে। ইলিয়াস ভাই, মাজেদ ভাই (শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক) সাংগঠনিকভাবে যে সিদ্ধান্ত নেবেন, আমরা তা মেনে নেবো।’

১৩তম ব্যাচের চার শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমরা কাউকে মারধর করিনি। শুধু বন্ধুকে মারধরের কারণ জানতে ওই কক্ষে গিয়েছিলাম। কথা কাটাকাটি থেকে পরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছে, এ ঘটনায় দুই ব্যাচ মারমুখী হয়ে উঠলে শাখা ও দত্ত হল ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এসে সংঘর্ষে লিপ্ত দুই ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মারধর করে। এরপর বিচারের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদের কক্ষে নিয়ে গিয়ে সেখানেও মারধর করা হয়। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়।

এ বিষয়ে হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাফিউল আলম দীপ্ত বলেন, ‘আমি শুনেছি, দুই ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়েছে। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে সাংগঠনিকভাবে মীমাংসা করে দিয়েছি।’

শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদ বলেন, ‘১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা ১২তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের সাথে বেয়াদবি করবে, সেটা অপ্রত্যাশিত।’

কক্ষে নিয়ে বিচারের নামে মারধরের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সংগঠন অনেক বড়। আমরা একটি পরিবারের মতো। এখানে নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হলে আমরা তা সমাধান করি। আজকেও আমরা সমাধান করেছি। অপরাধের মাত্রা বুঝে সামনে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের প্রভোস্ট ড. মোহাম্মদ জুলহাস মিয়া বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত নই। যদি হলে এমন কোনও ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে তদন্ত কমিটি গঠন করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় শাবির ৫৪ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় শাবির ৫৪ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় হাবিপ্রবির ১৩ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় হাবিপ্রবির ১৩ শিক্ষক

প্রাণ ফিরছে জাবি ক্যাম্পাসে

প্রাণ ফিরছে জাবি ক্যাম্পাসে

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ২১:২২

অ্যালপার ডগার (এডি) সায়েন্টিফিক ইনডেক্সের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত চলতি বছরের বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ট্রেজারারসহ চার শিক্ষক। ১০ অক্টোবর বিশ্বসেরা গবেষকদের ১২টি ক্যাটাগরিতে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়।

তালিকায় স্থান পেয়েছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান। তিনি বাংলাদেশি গবেষকদের মধ্যে ১৭৯৩তম এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষকদের মধ্যে ১৫৩তম স্থান অর্জন করেছেন। 

অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের শিক্ষক। এ ছাড়া তালিকায় স্থান পেয়েছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের চার শিক্ষক। তাদের মধ্যে প্রথমস্থানে রয়েছেন অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন, সহযোগী অধ্যাপক মো. তোফায়েল হোসেন মজুমদার, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. খলিলুর রহমান এবং ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কাজী ওমর সিদ্দিক।

বৃহস্পতিবার অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। আরও বেশি করে গবেষণায় মনোনিবেশ করার ইচ্ছে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে বিভিন্ন প্রজেক্টে গবেষণায় বরাদ্দ রেখেছেন। তার কারণে গবেষকরা উঠে এসেছেন। আগামী আরও বেশি বরাদ্দ প্রত্যাশা করছি।

তালিকায় ১২টি ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ২০৬টি দেশের গবেষকদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ৭ লাখ ৮ হাজার ৫৬১ জন গবেষক স্থান পেয়েছেন। ১৭৯৪ জন বাংলাদেশি গবেষক এতে স্থান পেয়েছেন। সায়েন্টিফিক ইনডেক্স গবেষকদের গুগল স্কলারের রিসার্চ প্রোফাইলের গত ৫ বছরের গবেষণার এইচ ইনডেক্স, আইটেন ইনডেক্স এবং সাইটেশন স্কোরের ভিত্তিতে র‍্যাঙ্কিং প্রকাশ করেছে।

/এএম/

সম্পর্কিত

বিশ্বসেরা গবেষকের তালিকায় ইবির ১৭ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকের তালিকায় ইবির ১৭ শিক্ষক

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

কুবির সেই ২ শিক্ষকের বিরুদ্ধে নেওয়া সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি

কুবির সেই ২ শিক্ষকের বিরুদ্ধে নেওয়া সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি

রাবিতে শিক্ষককে চাকরিপ্রত্যাশী যুবকের গুলি করার হুমকি

রাবিতে শিক্ষককে চাকরিপ্রত্যাশী যুবকের গুলি করার হুমকি

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৮

এদেশের সব উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি - বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) জগন্নাথ হলের পূজামণ্ডপ পরিদর্শন শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি এবং এদের দোসররা হিন্দু সম্প্রদায়ের শারদীয় দুর্গাপূজার সময় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি করে দেশে শান্তি বিনষ্টের পাঁয়তারা চালাচ্ছে। এ মহলটি কারা, কারা এদের পৃষ্ঠপোষক, তাদেরকে আমরা চিনি। এদেশের সকল উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা হচ্ছে বিএনপি। তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় আজকের এই সাম্প্রদায়িক শক্তি মাথা চাড়া দিয়ে ওঠেছে, তারা দুঃসাহস দেখাচ্ছে। গত ১২ বছর শেখ হাসিনার শাসনামলে দেশের কোথাও কোনও বিশৃঙ্খলা হয়নি। অথচ এইবার কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গা কতগুলো দুঃখজনক ঘটনা ঘটে গেছে। বিষয়টির তদন্ত চলছে। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। তাদের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থান, আওয়ামী লীগের অবস্থান অত্যন্ত কঠোর। এখন থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে কোনও সহিংসতা, বিশৃঙ্খলা কাউকে করতে দেওয়া হবে না। আমরা কাউকে আক্রমণ করব না, কিন্তু আক্রান্ত হলে আমরা পাল্টা জবাব দেব। এসময় তিনি নেতাকর্মীদের ঠাণ্ডা মাথায় সকল পরিস্থিতি মোকাবিলা করার পরামর্শ দেন।

তিনি আরও বলেন, কাল দশমী, বিসর্জনের দিন। কালকেও তারা আক্রমণ চালাতে পারে, আমি সরকারের পাশাপাশি আমাদের নেতাকর্মীদের বলব, আপনাদের সতর্ক পাহারায় থাকতে হবে। কারণ এই অপশক্তি এবং তাদের যে পৃষ্ঠপোষক, বিএনপি ‑ তারা আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে, নির্বাচনে হেরে, ষড়যন্ত্রের চোরাগলি বেছে নিয়েছে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য। তারা আজ বাংলাদেশের স্থিতি নষ্ট করতে চায়, শান্তি বিনষ্ট করতে চায়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অতিমারির কারণে যে স্থবিরতা ছিল তা এবার অনেকটা কেটে গেছে, করোনা অনেকটা নিয়ন্ত্রণে। তবে এটা সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে এসেছে দাবি করার কোনও কারণ নেই। কোনওভাবেই শৈথিল্য প্রদর্শন করা যাবে না। আমি ইচ্ছে করেই অফিসে যাই, বিশ্ববিদ্যালয়ে চক্কর দেই। অনেক দিন এখান দিয়ে যেতে পারেনি বলে মনটা বেদনায় ভরে উঠতো। খুবই স্মৃতিকাতর হয়ে পড়ি। ১৯৭৫ সালের পর সকল লড়াই সংগ্রামের সকল প্রস্তুতিমূলক সভাগুলো এই জগন্নাথ হলে করেছি।

জগন্নাথ হল নিয়ে নিজের স্মৃতির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখানেই আমরা দুঃসময়ে আশ্রয় নিয়েছি, দুঃসময়ে বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিশোধ নিতে কর্মসূচি প্রস্তুত করেছি।

এসময় তিনি পূজার আয়োজক কমিটি ও উপস্থিত সকলকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানান।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, এই উৎসবটির জন্য হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা তো বটেই, সমস্ত বাঙালিরা অপেক্ষায় থাকে।

/এমএস/

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় বেরোবির ৭ শিক্ষক

আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ১৮:০০

অ্যালপার ডগার (এডি) সায়েন্টিফিক ইনডেক্সের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) সাত জন শিক্ষকের নাম স্থান পেয়েছে।  

তারা হলেন—বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আবু রেজা মোহাম্মদ তৌফিকুল ইসলাম রিপন, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান, পরিসংখ্যান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. শাহজামান, ইইই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ফেরদৌস রহমান, ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. নুর আলম সিদ্দিক, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আপেল মাহমুদ এবং পরিসংখ্যান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সিদ্দিকুর রহমান।

সম্প্রতি এডি সায়েন্টিফিক ইনডেক্সের ওয়েবসাইটে দেখা যায়, ‌তালিকায় বিশ্বের ২০৬টি দেশের ১৩ হাজার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাত লাখ আট হাজার ৪৮০ জন গবেষকের নাম এসেছে। এতে বাংলাদেশের এক হাজার ৭৯১ জন রয়েছেন।

তালিকায় স্থান পাওয়া বেরোবির অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিসটেমস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আপেল মাহমুদ বলেন, এই তালিকায় অর্ন্তভুক্ত হওয়া গর্বের বিষয়। এর মাধ্যমে আমরা রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়কে দেশে-বিদেশে পরিচিত করতে পেরেছি। গবেষণা যত সমৃদ্ধ হবে বিম্বব্যাপী এর সুনাম তত বেশি ছড়িয়ে পড়বে।

পরিসংখ্যান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এই প্রাপ্তি আমাকে গবেষণায় আরও বেশি মনোযোগী হতে অনুপ্রেরণা ও উৎসাহ যোগাবে।

এডি সায়েন্টিফিক ইনডেক্সে ১২টি ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ২০৬টি দেশের গবেষকদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। গবেষকদের গুগল স্কলারের রিসার্চ প্রোফাইলের গত ৫ বছরের গবেষণার এইচ ইনডেক্স, আইটেন ইনডেক্স এবং সাইটেশন স্কোরের ভিত্তিতে র‌্যাংকিংটি প্রকাশ করেছে সায়েন্টিফিক ইনডেক্স।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

‘প্রত্যেকের নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার রয়েছে’

‘প্রত্যেকের নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার রয়েছে’

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘প্রত্যেকের নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার রয়েছে’

‘প্রত্যেকের নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালনের অধিকার রয়েছে’

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

সিনিয়রের নাম ধরে ডাকায় কুবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির ৪ শিক্ষক

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য ঠিকানা বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় বেরোবির ৭ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় বেরোবির ৭ শিক্ষক

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

যবিপ্রবিতে ‘এ’ ইউনিটে আসন পড়েছে ৬ হাজার শিক্ষার্থীর

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন জবি শিক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাসেই টিকা নিতে পারবেন জবি শিক্ষার্থীরা

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির কোষাধ্যক্ষ ড. আসাদুজ্জামান

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় কুবির কোষাধ্যক্ষ ড. আসাদুজ্জামান

বিশ্বসেরা গবেষকের তালিকায় ইবির ১৭ শিক্ষক

বিশ্বসেরা গবেষকের তালিকায় ইবির ১৭ শিক্ষক

প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় এমপিওভুক্তির দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো শাহবাগে শিক্ষকরা

প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় এমপিওভুক্তির দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো শাহবাগে শিক্ষকরা

সর্বশেষ

রাশিয়ায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

রাশিয়ায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

ওমানে বিশ্বকাপে নামছে বাংলাদেশ, দেশে বসে থাকছেন না মুমিনুল-শান্তরাও

ওমানে বিশ্বকাপে নামছে বাংলাদেশ, দেশে বসে থাকছেন না মুমিনুল-শান্তরাও

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

দিনাজপুরে বজ্রাঘাতে ২ জনের মৃত্যু

দিনাজপুরে বজ্রাঘাতে ২ জনের মৃত্যু

© 2021 Bangla Tribune