X
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

মুলারের প্রতিবেদন লিখে দিয়েছে ডেমোক্র্যাটরা: ট্রাম্প

আপডেট : ২০ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৩৪

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ নিয়ে স্পেশাল কাউন্সেল রবার্ট মুলারের তদন্ত প্রতিবেদনের কঠোর সমালোচনা করেছেন দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। রবার্ট মুলারের এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, দফায় দফায় তার তদন্ত বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করেছিলেন ট্রাম্প। তবে শুক্রবার টুইটারে দেওয়া পোস্টে তিনি দাবি করেন, প্রকৃতপক্ষে মুলারের ওই প্রতিবেদন লিখে দিয়েছে ডেমোক্র্যাটরা।

ট্রাম্প বলেন, উন্মাদ মুলারের প্রতিবেদনে কিছু ব্যক্তি আমার ব্যাপারে বিবৃতিটি তৈরি করেছে। এটি ট্রাম্প বিদ্বেষী ১৮ জন ক্রুদ্ধ ডেমোক্র্যাটের লেখা, যা মনগড়া ও পুরোপুর অসত্য।

স্পেশাল কাউন্সেল রবার্ট মুলারের প্রতিবেদনে তার তদন্ত বাধাগ্রস্ত করতে ট্রাম্পের প্রচেষ্টার ১১টি ঘটনা উল্লেখ করা হয়েছে। প্রতিবেদনে ট্রাম্পের এ ধরনের কর্মকাণ্ডকে অপরাধ হিসেবে বিবেচনা করে একে বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে কংগ্রেসের প্রতি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

২০১৬ সালের নভেম্বরে মার্কিন নির্বাচনে রুশ সংযোগের বিষয়টি অনেকদিন ধরেই আলোচনার কেন্দ্রে। নির্বাচনকে প্রভাবিত করে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জেতাতে মস্কো প্রপাগান্ডা ছড়িয়েছিল এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করেছে বলে আশঙ্কা করছিলো সে দেশের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এফবিআই। সংস্থাটির পরিচালকের পদ থেকে জেমস কোমিকে বরখাস্তের পর এই তদন্ত মার্কিন প্রেসিডেন্টের দিকে মোড় নেয়। ২০১৭ সালের মে মাসে এ সংক্রান্ত তদন্তের দায়িত্ব পান সাবেক এফবিআই পরিচালক রবার্ট মুলার। মার্চে দেশটির আইনমন্ত্রীর কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) প্রায় ৪৫০ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। প্রতিবেদনটি দুই ভাগে বিভক্ত। প্রথমভাগে রয়েছে নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ সংক্রান্ত আলোচনা। আর দ্বিতীয়ভাগে রয়েছে তদন্ত ও বিচার বাধাগ্রস্ত করতে ট্রাম্প ও তার প্রচারণা শিবিরের প্রচেষ্টা।

প্রতিবেদন অনুযায়ী বিচার বাধাগ্রস্ত করার যেসব প্রচেষ্টা হয়েছে, তার মধ্যে আছে:

    মুলারকে বরখাস্ত করতে ট্রাম্পের প্রচেষ্টা।

    ট্রাম্পের নির্দেশে সাবেক এফবিআই পরিচালক জেমস কোমির বরখাস্ত হওয়া।

    মুলারের তদন্তের পর্যালোচনা ছিনিয়ে নিতে ট্রাম্পের প্রচেষ্টা।

    মুলারকে যে ট্রাম্প বরখাস্ত করার প্রচেষ্টা চালিয়েছেন তা অস্বীকার করতে হোয়াইট হাউসের কাউন্সেল ডোনাল্ড ম্যাঘানের প্রতি ট্রাম্পের নির্দেশ।

    মাইকেল ফ্লিন, পল মানাফোর্ট এবং মাইকেল কোহেনসহ দোষী সাব্যস্ত সহযোগীদের প্রতি ট্রাম্পের আচরণ।

প্রতিবেদনের প্রথমভাগে রয়েছে নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ সংক্রান্ত আলোচনা। বহুল প্রতীক্ষিত প্রতিবেদনে এ সম্পর্কে বলা হয়েছে, রাশিয়ার পক্ষ থেকে ব্যবসায়িক সম্পর্ক তৈরি,প্রচারণায় সহায়তার প্রস্তাব,পুতিনের সঙ্গে একান্ত বৈঠকে ট্রাম্পকে আমন্ত্রণ জানানো, রুশ সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ট্রাম্পের প্রচারণা দলের বৈঠক, যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া সম্পর্কোন্নয়নে নীতিগত আলাপের প্রচেষ্টা ছিল। উইকিলিকস কর্তৃক হিলারি ক্লিনটন ও ডেমোক্র্যাটিক পার্টির ইমেইল ফাঁসেও রাশিয়ার সংযোগ পেয়েছেন মুলার।

মুলারের ‘প্রতিবেদনে ট্রাম্পের প্রচারণা দলে থাকা ব্যক্তিদের একাংশের সঙ্গে রুশ সরকারের প্রতিনিধিদের বেশকিছু সংযোগ খুঁজে পাওয়া গেছে। তবে প্রাপ্ত আলামত ট্রাম্প শিবিরকে অপরাধী প্রমাণের ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত নয়। ট্রাম্পের প্রচারণা শিবির যে রুশ সরকারের সঙ্গে নির্বাচনি হস্তক্ষেপের ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিল কিংবা এ সংক্রান্ত সহযোগিতা দিয়েছে, তা তদন্তে প্রতিষ্ঠা করা যায়নি। মুলার বলেছেন, ‘আমার যে-টুকু আইনি স্বাধীনতা ছিল,তাতে রুশ হস্তক্ষেপের সঙ্গে ট্রাম্পের প্রচারের সম্পর্ক ছিল কি না, বলা সম্ভব নয়।’

মুলার বলেছেন, ‘তদন্তকারীদের সামনে এমন কিছু কঠিন পরিস্থিতি ছিল যার ফলে সত্যিই বলা মুশকিল যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প রুশ হস্তক্ষেপ বিষয়ে তদন্তে বাধা দিয়েছিলেন কি না। কংগ্রেস চাইলে প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়ে যেতে পারে।’

/এমপি/

সম্পর্কিত

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০০:০৪

সীমান্ত বিরোধের জেরে ভারতের আসাম ও মিজোরামের সাধারণ মানুষের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬ পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। ছয়জনই আসামের নিরাপত্তা সদস্য। দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে এ নিয়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে কেন্দ্রের সহায়তা কামনা করেছেন তারা।

সোমবার আসামের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, তার রাজ্যের ৬ পুলিশ সদস্য সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন। ‘আসামের ৬ পুলিশ সদস্য মিজোরাম সীমান্তে নিহতে দুঃখ পেয়েছি। পুলিশ জওয়ানরা তাদের সাংবিধানিক সীমানা রক্ষার জন্য জীবন দিয়েছেন। নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি’।

অন্যদিকে এ ঘটনায় শোক ও নিন্দা জানিয়েছেন মিজোরামের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লালচামলিয়ানা। পুরো ঘটনায় তিনি প্রতিবেশী রাজ্য সরকারকে দায়ী করে বলেন, আসাম সরকারের অযৌক্তিক আচরণের বিরুদ্ধে নিন্দা জানাচ্ছে তার রাজ্য সরকার। মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গাও সমালোচনা করেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিভি জানিয়েছে, সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক হয় উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের। সেখানে নানা বিষয় নিয়ে অমতি শাহের সঙ্গে তাদের আলাপ হয়। এরপরই স্থানীয় সময় সোমবার মিজোরাম এবং আসামের সীমান্ত এলাকায় বিবাদে জড়ান দুই রাজ্যের মানুষ। আসামের চাচর জেলা ও মিজোরামের কোলাসিব জেলার স্থানীয় লোকজন ও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে মোতায়েন করা হয় বাড়তি নিরাপত্তা সদস্য। কিন্তু তাতেও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। সেখানে গোলাগুলির ঘটনাও ঘটে। রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৬ পুলিশ সদস্য প্রাণ হারান। তবে সাধারণ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এ নিয়ে দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। হতাহতের ঘটনায় একে অপরকে দায়ী করে অমিত শাহকে ট্যাগ করছেন তারা। এমনকি দোষীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানান।

মিজোরামের আইজল, কোলাসিব ও মামিতে জেলার সঙ্গে আসামের চাচর, হাইলাকান্দি ও করিমগঞ্জ জেলার ১৬৪ কিলোমিটারের বেশি সীমান্ত রয়েছে। সীমান্ত এলাকা নিয়েই দুই রাজ্যের বাসিন্দাদের মধ্যে বিরোধ রয়েছে দীর্ঘদিনের।

/এলকে/

সম্পর্কিত

পাকিস্তান বর্ডার ক্রসিং নিয়ে তালেবান ও আফগান সরকারের পাল্টাপাল্টি দাবি

পাকিস্তান বর্ডার ক্রসিং নিয়ে তালেবান ও আফগান সরকারের পাল্টাপাল্টি দাবি

ভারত-চীনের মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা নেই: জয়শঙ্কর

ভারত-চীনের মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা নেই: জয়শঙ্কর

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে সম্মত হয়েছে আদিবাসী মুসলিমরা: আসামের মুখ্যমন্ত্রী

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে সম্মত হয়েছে আদিবাসী মুসলিমরা: আসামের মুখ্যমন্ত্রী

বেশি সন্তান জন্ম দিলে মিলবে ১ লাখ রুপি পুরস্কার

বেশি সন্তান জন্ম দিলে মিলবে ১ লাখ রুপি পুরস্কার

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৩০

আফগানিস্তানের ন্যাশনাল আর্মি ও সীমান্ত পুলিশের অন্তত ৪৬ জন সদস্যকে আশ্রয় দিয়েছে পাকিস্তান। রবিবার তাদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর আন্ত-বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আফগান সেনাবাহিনীর কমান্ডার ৫ কর্মকর্তাসহ ৪৬ জন সেনা সদস্যের জন্য আশ্রয় ও সহযোগিতা চান। পাকিস্তান-আফগানিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্তে নিরাপত্তা পরিস্থিতির কারণে তারা তাদের সামরিক ফাঁড়ির নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখতে পারেননি।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী আরও জানায়, এই বিষয়ে আফগানিস্তানের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তথ্য ও প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পাদনের জন্য যোগাযোগ করছে।

বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, যথাযথ প্রক্রিয়া শেষে এই সেনা ও কর্মকর্তাদের আফগান সরকারের কাছে সম্মানজনক উপায়ে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে ১ জুলাই আরও ৩৫ জন আফগান সেনা পাকিস্তানে আশ্রয় নিয়েছেন বলে আইএসপিআর-এর বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। যথাযথ প্রক্রিয়ায় পরে তাদের আফগান সরকারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

সূত্র:ডন

/এএ/

সম্পর্কিত

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

১৬০ ফুট উঁচু থেকে পড়ে টিকটকার তরুণীর মৃত্যু

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৫২

টিকটক ভিডিও বানাতে গিয়ে ১৬০ ফুট উচ্চতা থেকে পড়ে চীনের এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। নিজের ভিডিও রেকর্ড করার সময় ক্রেন থেকে পড়ে মারা যান ২১ বছর বয়সী তরুণী জিয়াও কিউয়েমি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম সানের খবরে বলা হয়েছে, চীনের কুজহু শহরে নিজের ভিডিও বানাতে ক্রেন থেকে ভিডিও করছিলেন এই টিকটক তারকা। ক্যামেরার সামনে কথা বলছিলেন জিয়াও। হঠাৎ ওই ক্রেন থেকে থেকে পড়ে যান তিনি। মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে তার পরিবার জানায়, ভিডিও’র সময় অসচেতনার কারণেই পড়ে যায় সে।

গত মঙ্গলবার কাজ শেষে বেশিরভাগ সহকর্মী যখন বাসায় ফিরে গেছে তখনই টিকটক ভিডিও বানানোর চেষ্টা করেন তিনি। স্থানীয় সময় বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে ফোনটি হাতে ধরা অবস্থায় মাটিতে পড়তে দেখা যায় তাকে। জিয়াও ওই টাওয়ারের ক্রেন অপারেটরের দায়িত্বে ছিলেন।

এই তরুণী টিকটকার চীনে বেশ সুপরিচিতি। সংবাদমাধ্যমে এসছে, তার বহু ফলোয়ার রয়েছে। জীবন ঝুঁকিতে ফেলে অনেককেই টিকটক ভিডিও বানাতে দেখা যায়। এতে দুর্ঘটনায় পড়ে মৃত্যু হয়।

চলতি মাসে হংকংয়ের প্রভাবশালী তারকা সোফিয়া চেউং ছবি তোলার সময় জলপ্রপাত থেকে পড়ে মারা যান।

/এলকে/

সম্পর্কিত

চীনে আগুনে পুড়ে ১৪ জনের মৃত্যু

চীনে আগুনে পুড়ে ১৪ জনের মৃত্যু

১৫৫ কিলোমিটার বেগে চীনে আঘাত হানছে টাইফুন 'ইন-ফা'

১৫৫ কিলোমিটার বেগে চীনে আঘাত হানছে টাইফুন 'ইন-ফা'

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ওমরাহ পালনে আর বাধা নেই

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২২:১৭

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বিদেশি মুসল্লিদের সৌদিতে ওমরাহ হজ পালনে নিষেধাজ্ঞা ছিল। তবে এবার তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে সৌদি সরকার। আগামী ১০ আগস্ট থেকে সৌদিতে ওমরাহ পালন করতে পারবেন বিদেশি মুসল্লিরা। রবিবার সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায়।

করোনা মহামারির মধ্যে সীমিত পরিসরে হজ পালনে সফল হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি। সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় ধীরে ধীরে কঠোর বিধিনিষেধে শিথিলতা আনছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় সৌদিতে ওমরাহ পালনে বিদেশিদের ওপর সাময়িক যে নিষেধাজ্ঞা ছিল তা তুলে নেওয়া হয়েছে। ওমরাহ পালনে বিদেশ থেকে আসা প্রত্যেক মুসল্লিকে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং স্বাস্থ্য নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে। 

১৪৪৩ হিজরি সনের ১ মহররম অর্থাৎ আগামী ১০ আগস্ট থেকে ওমরাহ পালনে ইচ্ছুক মুসল্লিরা সৌদিতে প্রবেশ করতে পারবেন। মক্কা ও মদিনার পবিত্র দুই মসজিদ পরিচালনাকারী পর্ষদের প্রধান আবদুল রহমান আল সুদাইস ওমরাহ পালনকারী ও মুসল্লিদের গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষগুলোকে দ্রুত প্রস্তুতি শেষ করার তাগিদ দেন।
তবে, সৌদির নাগরিক ও বাসিন্দারা রবিবার (২৫ জুলাই) থেকেই ওমরাহ পালন করতে পারছেন বলে জানায় কর্তৃপক্ষ।

/এলকে/এমওএফ/

সম্পর্কিত

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

১৬০ ফুট উঁচু থেকে পড়ে টিকটকার তরুণীর মৃত্যু

১৬০ ফুট উঁচু থেকে পড়ে টিকটকার তরুণীর মৃত্যু

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২১:৪৭

যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি)-এর ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে ১৯৭২ সালের একটি পূর্বাভাস সত্যি হতে চলেছে। ওই সময় বলা হয়েছিল, আগামী দুই দশকে মানবসমাজ পতনের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যাবে। প্রায় অর্ধশতাব্দী পুরনো এই পূর্বাভাসটি এখন আবার আলোচনায় এসেছে নতুন একটি গবেষণার পর। ওই গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, এমআইটি’র পূর্বাভাস সত্যি হতে পারে।

একটি অ্যাংলো-ডাচ বহুদেশীয় পেশাদার সার্ভিস নেটওয়ার্ক কেপিএমজি ইন্টারন্যাশনালের গায়া হ্যারিংটন এই নতুন গবেষণাটি সম্পাদন করেছেন। তার মতে, তিনি গবেষণা চালিয়েছেন এমআইটি’র পূর্বাভাস প্রমাণ বা অস্বীকার করার জন্য। তিনি জনসংখ্যা, শিল্পোৎপাদন, প্রজননের হার, জনসংখ্যার মাত্রা ও খাদ্য উৎপাদন ইত্যাদিসহ ১০টি গুরুত্বপূর্ণ ভ্যারিয়েবল নিয়ে গবেষণা করেন।

হেরিংটন উপসংহারে পৌঁছেছেন যে ২০৪০ সালের মধ্যে বিশ্ব সত্যিকার অর্থে ‘সর্বাত্মক সামাজিক পতন’ প্রত্যক্ষ করতে পারে। তার গবেষণার তথ্য এমআইটি’র পূর্বাভাসের নির্দিষ্ট দুটি মূল দৃশ্যের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সামঞ্জস্যপূর্ণ। এই দুটি হলো- প্রচলিত বাণিজ্য ও বিস্তৃত প্রযুক্তি।

হেরিংটনের প্রতিবেদনটি ইয়েল জার্নাল অব ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইকোলজিতে প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, প্রচলিত বাণিজ্য ও বিস্তৃত প্রযুক্তিতে এক দশকের মধ্যে বা এখন থেকে প্রবৃদ্ধি থেমে যেতে পারে। প্রচলিত উপায়ে বাণিজ্য পরিচালনা অর্থাৎ প্রবৃদ্ধি চলমান রাখা সম্ভব নয়।

কেপিএমজি’র গবেষকের গবেষণাটি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে বিস্তৃতভাবে প্রকাশিত হয়েছে। এসব সংবাদমাধ্যমের মধ্যে রয়েছে ভাইস, দ্য ডেইলি মেইল ও লাইভসায়েন্স। প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটেও গবেষণা প্রতিবেদনটি পাওয়া যাচ্ছে।

১৯৭২ সালের পূর্বাভাসে এমআইটি’র গবেষকরা ১২টি ক্ষেত্রে ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধি অসম্ভব হতে পারে উল্লেখ করেছিলেন। প্রাকৃতিক সম্পদ খুব দুর্লভ হয়ে পড়ার কারণে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে। এছাড়া ব্যক্তিগত কল্যাণ সাধনও হ্রাস পাবে। ওই বছরের সবচেয়ে বেশি বিক্রীত বই দ্য লিমিটস টু এক্সপানসন-এ এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছিল। এতে একপর্যায়ে আসন্ন ‘বিপর্যয়’ সম্পর্কে বলা হয়েছিল, পৃথিবীজুড়ে জীবনমানের অবনতি ঘটবে কয়েক দশক ধরে এবং একপর্যায়ে তা মানবজাতির ‘ইতি’ ঘটাবে। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

 

/এএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

করোনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ভুল পথে যাচ্ছে: ড. ফাউচি

করোনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ভুল পথে যাচ্ছে: ড. ফাউচি

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

সর্বশেষ

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

শেষ মুহূর্তে হাসপাতালে আসায় মৃত্যু বাড়ছে

শেষ মুহূর্তে হাসপাতালে আসায় মৃত্যু বাড়ছে

টিকা দিতে কারিগরি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

টিকা দিতে কারিগরি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

১৬০ ফুট উঁচু থেকে পড়ে টিকটকার তরুণীর মৃত্যু

১৬০ ফুট উঁচু থেকে পড়ে টিকটকার তরুণীর মৃত্যু

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

করোনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ভুল পথে যাচ্ছে: ড. ফাউচি

করোনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ভুল পথে যাচ্ছে: ড. ফাউচি

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

টিকা নিয়ে উপহাস করা মার্কিনির করোনায় মৃত্যু

টিকা নিয়ে উপহাস করা মার্কিনির করোনায় মৃত্যু

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

© 2021 Bangla Tribune