X
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ছাত্রলীগের কমিটি থেকে বিতর্কিতদের বাদ দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আপডেট : ১৫ মে ২০১৯, ২০:৩৪




প্রধানমন্ত্রী
ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি থেকে বিতর্কিতদের বাদ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ নির্দেশ দেন।

রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি। হামলায় জড়িত ও কমিটিতে পদ পাওয়া বিতর্কিতদের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। তদন্ত করে হামলায় জড়িত ও বিতর্কিতদের বিষয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে সেসব পদ শূণ্য ঘোষণা করা হবে।

তিনি আরও বলেন, কমিটি নিয়ে যারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন পোস্ট দিচ্ছেন ও অভিযোগ করছেন, তাদের বলবো, আপনারা সেসব তথ্য আমাদের দিন। আমরা ব্যবস্থা নেবো।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ঘোষিত কমিটিতে যারা রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কেউ প্রমাণসহ লিখিত অভিযোগ উপস্থাপন করলে তাদেরকে কমিটি থেকে বাদ দিতে আপা (প্রধানমন্ত্রী) আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন। কেউ যদি উপযুক্ত প্রমাণসহ অভিযোগ দেন তাহলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেবো। তবে এখন পর্যন্ত কেউ আমাদের কাছে কোনও অভিযোগ উপস্থাপন করেননি।
তিনি আরও বলেন, আপার (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) সঙ্গে সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ আমরা সাক্ষাৎ করেছিলাম। তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ করেছেন তাদের সমর্থনকারীদের কমিটিতে রাখা হয়নি। এর জবাবে আপা আমাদের পক্ষে কথা বলেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সাবেকদের অনুসারী ৯০ জনকে রাখা হয়েছে, যা ৩০১ সদস্যদের কমিটির জন্য অনেক বেশি।
এদিকে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের ওপর হামলার ঘটনা তদন্তের শেষ পর্যায়ে রয়েছে। আজ রাতে বা আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৬ মে) সকালের মধ্যেই তদন্তের প্রতিবেদন দফতর সেলে জমা হবে বলে জানিয়েছেন কমিটির সদস্য ও ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। এর আগে, ঘটনার দিন তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে ঘটনার দিন থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ৩০১ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটিতে অছাত্র, ছাত্রদলের কর্মী, বিবাহিত ও বিতর্কিতদের স্থান দেওয়া হয়েছে, এমন অভিযোগ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনের সময় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।

/এসআইএর/এএইচআর/আরজে/ইউআই/টিটি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৮:৪৫

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি’র সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি কোভিড পরিস্থিতিতে সরকারিভাবে ওসমানী মিলনায়তনে গতকাল মঙ্গলবার পদক প্রদান অনুষ্ঠান আয়োজনের সমালোচনা করেন।

বুধবার (২৮ জুলাই) বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে রব এ কথা জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেট  দিয়ে যখন স্বাস্থ্যবিধি পালন নিশ্চিত করতে নাগরিকদের গ্রেপ্তার ও জেল-জরিমানা করা হচ্ছে তখন পদক প্রদানের জন্য শারিরীক উপস্থিতি ও সমাবেশ অনুষ্ঠানের আয়োজন সরকারের করোনা নিয়ন্ত্রণের সকল কার্যক্রমকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে।

রব বলেন, ‘করোনার ভয়াবহ বিস্তার এবং কঠোর লকডাউনের মধ্যে এই ধরনের অনুষ্ঠান শুধু মৃত্যুঝুঁকি নয় সরকারের ঘোষিত লকডাউন পরিস্থিতির সাথেও সাংঘর্ষিক।এর মাধ্যমে জনগণের কাছে ভুল বার্তা যাচ্ছে।’

রবের মন্তব্য, করোনা মহামারিতে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের মিছিল। এই অবস্থায় ওসমানী মিলনায়তনে পদক প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা কোনক্রমেই সরকারের সুবিবেচনার বহিঃপ্রকাশ নয়। পদক কখনো জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না।

তিনি বলেন, ‘জীবন সুরক্ষার প্রশ্নে যখন রাষ্ট্রীয় সকল অনুষ্ঠান বাতিল করা হচ্ছে, সারাদেশে কঠোর লকডাউন পালিত হচ্ছে তখন 'জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস' বা পদক প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা কোনোক্রমেই রাষ্ট্রের জন্য  অতীব জরুরি কাজ হতে পারে না।’

/এসটিএস/এমএস/

সম্পর্কিত

‘আইসোলেশন ও কন্টাক্ট ট্রেসিং ছাড়া লকডাউন অকার্যকর’

‘আইসোলেশন ও কন্টাক্ট ট্রেসিং ছাড়া লকডাউন অকার্যকর’

ভোটার তালিকা নির্বাহী বিভাগে স্থানান্তর হবে অসাংবিধানিক: আবদুর রব

ভোটার তালিকা নির্বাহী বিভাগে স্থানান্তর হবে অসাংবিধানিক: আবদুর রব

রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা রাষ্ট্রের ভয়ংকর চিত্র: রব

রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা রাষ্ট্রের ভয়ংকর চিত্র: রব

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৬:৪৬

সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের উপ-দফতর সম্পাদক আকতারুল করিম রুবেলকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বুধবার (২৮ জুলাই) ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের এক জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, সংগঠনের নীতি-আদর্শ ও শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকায় আকতারুল করিম রুবেলকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হলো।

বহিষ্কারের বিষয়ে জানতে চাইলে লেখক ভট্টাচার্য বলেন, ‘রুবেলের বিরুদ্ধে মাদক সেবন, চাঁদা দাবি এবং শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের ওয়ার্ড বয়কে মারার যে অভিযোগ সেটা প্রমাণিত হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রশাসন তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছে। অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ২৬ জুলাই শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের এক ওয়ার্ড বয়ের কাছে চাঁদা দাবি করে না পেলে তাকে মারধর করে রুবেল। ভুক্তভোগী ওয়ার্ড বয়ের মামলা দায়েরের ভিত্তিতে ২৭ জুলাই তার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রুবেল নিজেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের রাজা দাবি করতেন বলে একাধিক সূত্রে জানা যায়।

 

/আইএ/

সম্পর্কিত

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

জয়ের হাত ধরেই বিশ্বকে নেতৃত্ব দিবে বাংলাদেশ: ওবায়দুল কাদের

জয়ের হাত ধরেই বিশ্বকে নেতৃত্ব দিবে বাংলাদেশ: ওবায়দুল কাদের

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৫:৪৬

আগামীর বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) রাতে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

বুধবার (২৮ জুলাই) তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫১তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নযাত্রায় সজীব ওয়াজেদ জয়: আমাদের প্রত্যাশা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তথ্য প্রযুক্তিকে পাথেয় করে একটি সমৃদ্ধ স্বদেশ বিনির্মাণে নিরন্তর কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি কোটি কোটি তরুণের স্বপ্ন সারথী, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার নেপথ্যের কারিগর। আগামীর বাংলাদেশ তার নেতৃত্বের জন্য অধীর আগ্রহে প্রতীক্ষা করছে।

ডা. মুরাদ হাসান আরও বলেন, তরুণদের তথ্য-প্রযুক্তির বিপ্লবের মাধ্যমে কর্মসংস্থান, বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সম্প্রসারণের মাধ্যমে দেশের অগ্রগতির ভিত রচনায়ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর এই দৌহিত্র। জাতির পিতার বঙ্গবন্ধুর আজন্ম লালিত স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রীকে তিনি সর্বোতভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। জয়ের চিন্তা ও কর্মধারা দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে; যা বাংলাদেশকে মর্যাদার আসনে নিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট বাকী বিল্লাহর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোজাফফর হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ চৌধুরী প্রমুখ।

/এসএমএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩:৪৯

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দলমত নির্বিশেষে সচেতনতা তৈরি করতে হবে। পাশাপাশি সরকারকে সহযোগিতা করার আহবান জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যুর হার প্রতিবেশী দেশ ভারতের চেয়ে বেশি। এমন বাস্তবতায় মানুষের জীবনের সুরক্ষাকেই সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছে সরকার।

বুধবার (২৮ জুলাই) নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। তার বাসভবন থেকে ভার্চুয়ালি বলেন তিনি।

জীবন রক্ষা না পেলে জীবিকা দিয়ে কী হবে ‑ জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, অনেকে লকডাউন শিথিলের কথা বললেও এমন সংকটকালে জীবনের সুরক্ষাকেই অগ্রাধিকার দিতে হবে। মনে রাখতে হবে, কারও কারও অবহেলায় পরিস্থিতি ক্রমে অবনতির দিকে যাচ্ছে। এ অবস্থা চলমান থাকলে অনাকাঙ্ক্ষিত বিপর্যয়ের পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের সুরক্ষায় বিশেষজ্ঞদের সাথে পরামর্শ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তার প্রতি আস্থা রাখার জন্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সকলের প্রতি আহবান জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ব্যাপকহারে সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলার পাশাপাশি ভ্যাকসিন প্রদানকেই সরকার সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, দেশে ভ্যাকসিনের কোন সংকট নেই।মানুষের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে চূড়ান্ত করা হয়েছে ভ্যাকসিন রোডম্যাপ।

দুর্যোগ ও সংকটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি জনমানুষের আস্থা রয়েছে জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী জনমানুষের আস্থা পূরণে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। করোনার এ সংকটে তিনি বিনিদ্র রজনীও যাপন করছেন।

জীবন ও জীবিকার সমন্বয় করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী সিদ্ধান্তে দেশের সামষ্টিক  অর্থনীতি অন্যান্য দেশের তুলনায় ভালো অবস্থায় রয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, দেশের উন্নয়ন-অর্জন ও সমৃদ্ধিতে যারা লাভবান হয়েছে, বিশেষ করে সমাজের ধনী শ্রেণী‑ মানুষের প্রতি এই সংকটে অন্তত কিছু সহযোগিতা নিয়ে হলেও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বিশাল রাজনৈতিক সংগঠন। কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত এ সংগঠনের বিস্তৃতি। অনেকসময় দলে অনুপ্রবেশকারীরা বিতর্কিত কর্মকাণ্ড চালায়। এসকল কর্মকাণ্ড নজরে এলে সাথে সাথেই তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

তিনি জানান, অনেক সময় শুধু সাংগঠনিক নয়। আইনগত ব্যবস্থাও নেওয়ার নজির রয়েছে। যার উদাহরণ সাম্প্রতিককালে সাহেদ, পাপিয়াসহ অনেকের ক্ষেত্রে দল অত্যন্ত কঠোর অবস্থান দেখিয়েছে।

অনেকে অনেক কথাই বলেন, কিন্তু দল ক্ষমতায় থাকাকালে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে দলের নেতাকর্মী এমনকি জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে যে কঠোরতা আওয়ামী লীগ দেখিয়েছে তা অতীতে দেশের কোন রাজনৈতিক দল দেখাতে পেরেছেন কী? ‑ প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের।

শেখ হাসিনা সরকার এবং আওয়ামী লীগ অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান ইতিমধ্যেই স্পষ্ট করেছে‑ উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, দলের অনেক সংসদ সদস্যদের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা চলমান এবং তদন্তাধীন, আবার কারও সাজাও হয়েছে।

তিনি বলেন, দল কখনো অনিয়মকারীদের প্রশ্রয় দেয়নি। ভবিষ্যতেও দিবে না।

তিনি বলেন, করোনার এ সংকটকালে আওয়ামী লীগের প্রতিটি ইউনিট অত্যন্ত সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে, কোথাও নেই কোন গতিহীনতা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কেন্দ্র থেকে তৃণমূলে সাংগঠনিক সিদ্ধান্তসমূহ অত্যন্ত দক্ষতার সাথে বাস্তবায়িত হচ্ছে। পাশাপাশি দলের উপকমিটি ও সহযোগী সংগঠনগুলো সক্রিয়তার সাথে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

/পিএইচসি/এমএস/

সম্পর্কিত

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

জয়ের হাত ধরেই বিশ্বকে নেতৃত্ব দিবে বাংলাদেশ: ওবায়দুল কাদের

জয়ের হাত ধরেই বিশ্বকে নেতৃত্ব দিবে বাংলাদেশ: ওবায়দুল কাদের

‘সুপারিশ’ বন্ধ না হলে আ.লীগে বিতর্কিতদের সংখ্যা বাড়বেই

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৭:৪১
ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগে গত একযুগ ধরেই চলছে বিতর্কিত ও অনুপ্রবেশকারীদের বিভিন্ন পর্যায়ে নেতৃত্বে আসার বিতর্ক। দলের মধ্যে জেঁকে বসা এমন নেতারা একেকজন একেকটা বিতর্কের জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন। আর সেই বিতর্কের আলোচনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছাপিয়ে গণমাধ্যমে চলে আসার পর তড়িঘড়ি করে অব্যাহতি কিংবা বহিষ্কারের মধ্য দিয়ে পরিস্থিতি ‘সামলাতে’ হচ্ছে আওয়ামী লীগকে। কিন্তু এমন ব্যক্তিদের দলে প্রবেশ রোধে স্থায়ী কোনও কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হয় না। ফলে ফাঁকফোকর দিয়ে এ ধরনের অনুপ্রবেশ চলতেই থাকে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও তৃণমূল নেতারা বলছেন, অনুপ্রবেশকারী কিংবা বিতর্কিতরা দল ও দলের সহযোগী সংগঠনে পদ পাওয়ার একমাত্র কারণ ‘সুপারিশ’। দলের প্রভাবশালী নেতাদের এই সুপারিশ করা বন্ধ করতে হবে। প্রভাবশালী নেতারা না জেনে, না বুঝে কারও জন্য সুপারিশ করা বন্ধ না করলে বিতর্কিত ও অনুপ্রবেশকারীরা সংগঠনের বিভিন্ন স্তরে ঢুকবেই। এটা কোনওভাবেই থামানো যাবে না।

আওয়ামী লীগ সংশ্লিষ্টদের অনেকের অভিযোগ, বর্তমানের রাজনীতিতে দলের চেয়ে ব্যক্তিগত শক্তি কীভাবে বাড়ানো যায়- সবার মধ্যে সেই প্রতিযোগিতা থাকে। আর এই প্রতিযোগিতার কারণেই আওয়ামী লীগে বিতর্কিতরা ঢুকে পড়ার সহজ সুযোগ পায়।

দলটির নেতারা বলছেন, আগে আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে কারও সুপারিশে আমরা কাউকে নেতা ‘বানাবো’ নাকি ‘বানাবো না’। সুপারিশে নেতা বানালে দলে বিতর্কিতরা জায়গা পাবেই। ঠেকানো যাবে না তা। রাজনীতিতে বাধার সম্মুখীন হবেন দলের আদর্শিক ও ত্যাগী নেতারা। যদি ‘সুপারিশে নেতা বানাবো না’- এই সিদ্ধান্ত সংগঠনের সর্বস্তরে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয় অনুপ্রবেশকারী বা বিতর্কিতরা দলে ঢোকার কোনও সুযোগই আর পাবে না।

আওয়ামী লীগের নেতারাই স্বীকার করেন, দলে ঢুকে যারা সরকারের ও আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে তাদের অধিকাংশই নেতাদের কারও না কারও সুপারিশে আওয়ামী লীগে পদ পেয়েছেন। এমনকি করোনা মহামারিকালে করোনার ভুয়া পরীক্ষা করে ব্যাপক আলোচিত ও বিতর্কিত শাহেদও আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক উপকমিটির সদস্য হয়েছিলেন আওয়ামী লীগ নেতাদের সুপারিশেই।

এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ফজলুর রহমান ফারুক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, রাজনীতিতে একটা ‘ব্যাড প্র্যাকটিস’ চালু হয়েছে, দলের চেয়ে ব্যক্তির শক্তি কীভাবে বাড়ানো সম্ভব। এমপি হলে তিনি চান ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখতে। তাই তার জনবল লাগবে। নেতা হলে তিনিও চান তার পকেটের লোক দরকার। এই দরকারের অশুভ প্রতিযোগিতায়  বিতর্কিতরা সুযোগ পেয়ে যান আওয়ামী লীগে প্রবেশের। শুধু তাই নয়, এসব বিতর্কিতরাই কোনও না কোনও অপচেষ্টায় বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিও হয়ে যাচ্ছেন। তাদের নেতিবাচক কর্মকাণ্ড আওয়ামী লীগকে করে তোলে বিব্রত।

তিনি বলেন, উপর থেকে চাপিয়ে দিয়েও নেতা বানানোর সংস্কৃতি ভীষণভাবে লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এসব ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করে কেন্দ্রকে বন্ধ করতে হবে। তা না হলে বিতর্কিতদের দলে ঢুকে পড়ার সুযোগ থেকেই যাবে।

সম্প্রতি ‘আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামের একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করে হঠাৎ বিতর্কের মুখে পড়েছেন ব্যবসায়ী থেকে রাজনীতিতে আসা আলোচিত-সমালোচিত হেলেনা জাহাঙ্গীর। তিনি আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপকমিটিতে সদস্যও। সমালোচনার মুখে পড়ে অবশ্য সদ্য উপকমিটির সদস্য পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তার পদ পাওয়ার পেছনেও অন্যতম কারণ সুপারিশ। আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকী গত রবিবার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীর মহিলা বিষয়ক উপকমিটিতে সদস্য পদ পেয়েছেন আমাদের দলের প্রভাবশালী কয়েকজন নেতার সুপারিশে। ওই উপকমিটির সদস্য সচিব চুমকীর দাবি, হেলেনা জাহাঙ্গীরের জন্য আমার কাছে নেতাদের সুপারিশের রেকর্ড রয়েছে।

এর আগে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কমিটির সদস্য পদে স্থান পেয়েছেন জারা মাহাবুব। তার বাবা কাইয়ুম রেজা চৌধুরী যুদ্ধাপরাধী মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সালাহ উদ্দিন কাদের চৌধুরীর সাফাই সাক্ষী ছিলেন। জারা মাহাবুব পদ পাওয়ায় সমালেচনার ঝড় উঠেছে সারাদেশে। উনি কীভাবে জেলার সদস্য পদ পেয়েছেন জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল
হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমাদের দলের সভাপতিমণ্ডলির এক সদস্যের সুপারিশে পদ দিতে হয়েছে জারা মাহাবুবকে। এস এম কামাল সভাপতিমণ্ডলির ওই সদস্যের নাম বলতে রাজি হননি। ওই জেলায় হাবিবুর রহমান মজনু পদ পয়েছেন সুপারিশে। মজনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে, মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি আলবদর বাহিনীর সদস্য ছিলেন।

সম্প্রতি চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে পদ দেওয়া হয়েছে বিতর্কিত নেতা হুমায়ুন কবিরকে। তিনি ২০১৬ সালে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যঙ্গ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দেন। এমনকি পোস্টে বিএনপি-জামাত নেতাদের প্রশংসাও করেছিলেন তিনি। বিএনপির রাজনীতি করা হুমায়ুন কবিরের বিরুদ্ধে দলীয় নেতাকর্মীকে মারধর করার অভিযোগও আছে। তবুও আওয়ামী লীগের একটি সহযোগী সংগঠনের শীর্ষ পদ দেওয়া হয়েছে তাকে। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জোবায়ের বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এক নেতার সুপারিশে তাকে নেতা বানানো হয়েছে।

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক রবিন হাসান রকিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়। এর কিছু দিন আগে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক রায়হান রনিকে পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়। ছাত্রলীগের শীর্ষ এক নেতা নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এক নেতা ও স্থানীয় প্রভাবশালী দুই জন নেতার সুপারিশে দুই জনকে নেতা বানাতে বাধ্য হয়েছি।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগ নেতাদের সুপারিশে সংগঠনের বিভিন্ন স্তরে নেতার তালিকাটা আরও অনেক দীর্ঘ।

আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলির সদস্য কাজী জাফরউল্যাহ বলেন, সুপারিশে নেতা হওয়ার সংখ্যা আওয়ামী লীগে বেড়েই চলেছে। ব্যক্তিগত বলয় গড়ে তুলতে যাচাই-বাছাই ছাড়া সংগঠনের বিভিন্ন স্তরে আওয়ামী লীগে পদ পেয়ে যাচ্ছেন অনেকেই। পরে তাদের বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে সরকারের ও দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।

তিনি বলেন, পদ দিতে আমাদের সবাইকে সবাইকে সচেতন হতে হবে। যাকে পদ দিচ্ছি বা যার জন্য সুপারিশ করছি- ওই ব্যক্তি দলের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ; সেই বিবেচনাবোধ থাকলে পরে ওই ব্যক্তিকে অব্যাহতি বা বহিষ্কার করার দরকার পড়ে না।  

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বাংলা ট্রিবিউনকে গত রবিবার রাতে বলেন, প্রত্যেক সুযোগসন্ধানী অনুপ্রবেশকারী কোনও না কোনও নেতার সুপারিশেই পদ পাচ্ছেন। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের অধিকাংশ নেতাই সহজ, সরল ও গণমুখী। ফলে চতুর ব্যক্তিরা টার্গেট নিয়ে কারও না কারও আস্থা অর্জন করে সুপারিশ করাচ্ছেন, আমরাও করছি।

স্বপন বলেন, আরেকটি সমস্যা হচ্ছে, বঙ্গবন্ধুর অবিনাশী আদর্শিক রাজনীতির চর্চার পরিবর্তে ‘ভাই লীগ’-এর উত্থানের ফলে রাজনীতিতে আবর্জনা জায়গা দখল করছে। এখনই সাবধান না হলে আরও ভয়াবহ পরিণতি হবে বলেও সতর্ক করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এই নেতা।
/এফএএন/

সম্পর্কিত

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

সর্বশেষ

রাজধানীতে কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

রাজধানীতে কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

অ্যাসাঞ্জের নাগরিকত্ব বাতিল করলো ইকুয়েডর

অ্যাসাঞ্জের নাগরিকত্ব বাতিল করলো ইকুয়েডর

পাহাড়ি ঢলে সড়ক বিলীন

পাহাড়ি ঢলে সড়ক বিলীন

চট্টগ্রামে করোনা থেকে সুস্থ নারী ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত

চট্টগ্রামে করোনা থেকে সুস্থ নারী ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত

ঢাকায় সরকারি আইসিইউ বেড ফাঁকা মাত্র ৯টি

ঢাকায় সরকারি আইসিইউ বেড ফাঁকা মাত্র ৯টি

একদিনে ঢাকা বিভাগে শনাক্ত ৮২৭১ জন

একদিনে ঢাকা বিভাগে শনাক্ত ৮২৭১ জন

ছাগল ধর্ষণ নিয়ে পাকিস্তানে তোলপাড়

ছাগল ধর্ষণ নিয়ে পাকিস্তানে তোলপাড়

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের এডিপির ৪৪টি প্রকল্পের অগ্রগতি ৯৫ ভাগ

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের এডিপির ৪৪টি প্রকল্পের অগ্রগতি ৯৫ ভাগ

চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের শঙ্কা, আশ্রয়কেন্দ্রে ৩ শতাধিক মানুষ

চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের শঙ্কা, আশ্রয়কেন্দ্রে ৩ শতাধিক মানুষ

জ্বালানি ১০৪ আর বিদ্যুৎ ৯৭ ভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করেছে

জ্বালানি ১০৪ আর বিদ্যুৎ ৯৭ ভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করেছে

রাজশাহীতে বিক্রি হয়নি ৭৩ হাজার কোরবানির পশু

রাজশাহীতে বিক্রি হয়নি ৭৩ হাজার কোরবানির পশু

করোনা কবলিত মালয়েশিয়ায় বিধিনিষেধ শিথিলে ক্ষোভ

করোনা কবলিত মালয়েশিয়ায় বিধিনিষেধ শিথিলে ক্ষোভ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

‘সুপারিশ’ বন্ধ না হলে আ.লীগে বিতর্কিতদের সংখ্যা বাড়বেই

‘সুপারিশ’ বন্ধ না হলে আ.লীগে বিতর্কিতদের সংখ্যা বাড়বেই

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

জাসদকে চীনের ক্ষমতাসীন দলের উপহার  

জাসদকে চীনের ক্ষমতাসীন দলের উপহার  

টিকা আমদানি জোরদার করার দাবি

টিকা আমদানি জোরদার করার দাবি

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

© 2021 Bangla Tribune