X
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

বিশ্বজুড়ে ‘মিয়ানমার বয়কট’-এর ডাক

আপডেট : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯:৪৭
image

মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি যখন নিজ দেশের সেনাবাহিনীর রেহিঙ্গা গণহত্যার পক্ষে সাফাই গাইতে জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালতে গেছেন; ঠিক তখন ‘মিয়ানমার বয়কট’-এর ডাক দিয়েছে ১০টি দেশের ৩০টি সংগঠন। মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর থেকে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত আইসিজেতে রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলার শুনানি হবে। সেই শুনানিকে সামনে রেখে নেপিদোর ওপর চাপ জোরালো করতেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর পূর্বপরিকল্পিত ও কাঠামোগত সহিংসতা জোরদার করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। হত্যাকাণ্ড, সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগের বাস্তবতায় জীবন বাঁচাতে নতুন করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা। এই নৃশংসতাকে ‘গণহত্যা’ আখ্যা দিয়ে গত ২০১৯ সালের ১১ নভেম্বর জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে)-এ মামলা করে গাম্বিয়া। ওই মামলার শুনানিতে অংশ নিতে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা সু চি এখন হেগ-এ অবস্থান করছেন।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, সু চি যখন হেগ-এ অবস্থান করছেন, তখন জার্মানভিত্তিক ফ্রি রোহিঙ্গা কোয়ালিশনস নামের প্ল্যাটফর্ম থেকে ‘বয়কট মিয়ানমার ক্যাম্পেইন’ শুরু করা হয়েছে। সংগঠনটির বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গণহত্যা মামলার শুনানিকে সামনে রেখে ৩০টি মানবাধিকার, শিক্ষাবিদ এবং পেশাদারদের সংগঠন মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক, কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক চাপ বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে। এর সঙ্গে যুক্ত রয়েছে ফরসি ডট কো, রেস্টলেস বিংস, ডেস্টিনেশন জাস্টিস, রোহিঙ্গা হিউম্যান রাইটস নেটওয়ার্ক অব কানাডা, রোহিঙ্গা হিউম্যান রাইটস ইনিশিয়েটিভ অব ইন্ডিয়া ও এশিয়া সেন্টারের মতো সংগঠনগুলো।

কর্মসূচি নিয়ে বয়কট রোহিঙ্গা ডট অর্গ তাদের ওয়েবসাইটে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, ‘২০১৯ সালের ৯ই ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবসে এসব সংগঠন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মিয়ানমারকে বর্জনের আহ্বান সংবলিত প্রচারণা শুরু করেছে।’ বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে সেনাবাহিনী ও রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলো নৃশংসতা, গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে। এর পক্ষে প্রত্যক্ষ ও নথিভুক্ত প্রমাণ রয়েছে। সারা বিশ্ব এর নিন্দা জানালেও হতাশার কথা, এসব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করছেন শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি।

ফ্রি রোহিঙ্গা কোয়ালিশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা নাই সান লুইন বয়কট কর্মসূচি প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন স্পষ্ট করেছে যে, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা জাতিকে নির্মূল করে দেওয়ার একটি নীতি গ্রহণ করা হয়েছে। রোহিঙ্গা অধিকারকর্মী হিসেবে আমরা মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর অধীনে ১৫ বছর গৃহবন্দি থাকা অং সান সুচির মুক্তির আন্দোলন করে এসেছি। তবে তিনি সেই অবস্থা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর শুধু খুনি সেনাবাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে চলছেন। তাই আমরা মিয়ানমারের সঙ্গে প্রাতিষ্ঠানিক ও আনুষ্ঠানিক সব সম্পর্ক ছিন্ন করতে সবার প্রতি আহ্বান জানাই।’

/বিএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত: এনডিটিভি

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০০:৫৩

কাশ্মিরের পুঞ্চ জেলার একটি জঙ্গলে গত আট দিন ধরে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সন্ত্রাসীদের লড়াই চলছে। লড়াইয়ের তীব্রতা দেখে ভারতের সেনাবাহিনী ও পুলিশের ধারণা এসব সন্ত্রাসী পাকিস্তানি কমান্ডোদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ পেয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্রের বরাতে এই খবর জানিয়েছে ভারতীয় সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি।

গত সোমবার থেকে চলা লড়াইয়ে ভারতের দুই জুনিয়র কমিশন অফিসারসহ নয় সেনা সদস্য নিহত হয়েছে। গত কয়েক বছরের মধ্যে কাশ্মিরে এটাই সবচেয়ে প্রাণঘাতী বন্দুকযুদ্ধ।

তবে এই বন্দুকযুদ্ধে কোনও সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়। কেননা এখন পর্যন্ত কোনও মরদেহ উদ্ধার হয়নি। ৮-৯ কিলোমিটার জঙ্গল এলাকায় লড়াই চলছে। এলাকাটি শক্ত নিরাপত্তা বেস্টনিতে ঘিরে রাখা হয়েছে।

সন্ত্রাসী গোষ্ঠীটির সঙ্গে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর প্রথম লড়াই শুরু হয় গত ১০ অক্টোবর রাতে। সেদিনই এক জুনিয়র কমিশন অফিসারসহ ৫ সেনা সদস্য নিহত হয়। নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছাকাছি এলাকায় অবস্থিত পুঞ্চ জেলার ডেরা ওয়ালি গলিতে এই লড়াই চলে।

ওই ঘটনার পর বৃহস্পতিবার নার খাস জঙ্গলে সন্ত্রাসীদের খোঁজে তল্লাশি অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনী। সে সময় দুই সেনা নিহত এবং আরও দুই জন নিখোঁজ হয়। দুই দিন পর জোরালো তল্লাশির পর তাদেরও মরদেহ পাওয়া যায়।

সেনাবাহিনী এবং স্থানীয় পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, সন্ত্রাসী দলটি যেভাবে ক্ষয়ক্ষতি করতে সক্ষম হয়েছে আর বিগত আট দিন ধরে হাজার হাজার নিরাপত্তা সদস্যের চোখ এড়াতে সক্ষম হয়েছে তাতে মনে হচ্ছে তারা পাকিস্তান সেনাবাহিনীর এলিট কমান্ডোদের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত।

গ্রুপটিতে পাকিস্তানি কমান্ডো থাকতে পারে বলেও ধারণা করছে ভারতীয় বাহিনী। ‘তবে কাউকে হত্যা করা গেলেই কেবল নিশ্চিত হওয়া যাবে,’ বলেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা।

ধারণা করা হচ্ছে এই মুহূর্তে সন্ত্রাসীদের কোনঠাসা করে ফেলা গেছে। আর সেনাবাহিনীর প্যারা কমান্ডো এবং হেলিকপ্টারের সহায়তায় খুব শিগগিরই এই প্রাণঘাতী লড়াইয়ের অবসান ঘটানো যাবে বলে আশা করছে ভারতীয় বাহিনী।

 

/জেজে/

সম্পর্কিত

ভারতের কাছে ৫০ কোটি ডলার ঋণ চাইলো শ্রীলঙ্কা

ভারতের কাছে ৫০ কোটি ডলার ঋণ চাইলো শ্রীলঙ্কা

অতিবৃষ্টি ও বন্যায় বিপর্যস্ত কেরালা, নিহত ১৮

অতিবৃষ্টি ও বন্যায় বিপর্যস্ত কেরালা, নিহত ১৮

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৫৬

তালেবান আফগানিস্তানের বৈধ সরকার। তবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যদি তাদের স্বীকৃতি না দেয়, তাহলে লাভবান হবে জঙ্গিগোষ্ঠী দায়েশ (আইএস)। তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সির সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেছেন তালেবান সরকারের অন্তর্বর্তীকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি।

গত শুক্রবার কান্দাহারের শিয়া মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় আইএস দায় স্বীকারের পর তালেবানের পক্ষ থেকে এমন মন্তব্য এলো। ওই বিস্ফোরণে অন্তত ৪৭ জন নিহত এবং আরও ৭০ জন আহত হয়।

আমির খান মুত্তাকি বলেন, তালেবান সরকারের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি এবং আন্তর্জাতিক সহায়তা আফগানিস্তানের অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

কাবুলে ক্ষমতার পালাবদলের পর যুক্তরাষ্ট্রে জমা থাকা আফগানিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ জব্দ করে বাইডেন প্রশাসন। ওয়াশিংটনের এমন পদক্ষেপের সমালোচনা করেন আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যেভাবে আফগানিস্তানের রিজার্ভ আটকে দিয়েছে সেটি আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকারের লঙ্ঘন।

তিনি বলেন, এই অর্থ কেন আটকে দেওয়া হয়েছে? আফগানদের অপরাধ কী? তারা কী করেছে?

/এমপি/

সম্পর্কিত

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২৩:১৭

তাইওয়ান প্রণালীতে একটি মার্কিন ও একটি কানাডীয় যুদ্ধজাহাজ চলাচল করেছে। রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী জানায়, গত সপ্তাহে জাহাজ দুটি এই প্রণালী অতিক্রম করে। চীন ও তাইওয়ানের মধ্যকার চরম উত্তেজনার মধ্যে একথা জানানো হলো।

রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুসারে, মার্কিন সেনাবাহিনী আরলেই বার্ক-ক্লাস গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার ডেউয়ি পাঠায় তাইওয়ান প্রণালীতে। কানাডার ফ্রিগেট এইচএমসিএস উইনিপিগকে পাঠানো হয়েছিল ওই জলসীমায়। বৃহস্পতি ও শুক্রবার নৌযান দুটি তাইওয়ান প্রণালীতে চলাচল করে।

মার্কিন সেনাবাহিনী জানায়, আমাদের মিত্র ও অংশীদারদের প্রতি স্বাধীন ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্রশান্ত অঞ্চলের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতির নিদর্শন হিসেবে যুদ্ধজাহাজ দুটি সেখানে চলাচল করেছে।

চীন এই পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে। তারা বলেছে জাহাজ দুটির চলাচল শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

শ্রমিকদের এমন ক্ষোভ কয়েক দশক দেখেনি যুক্তরাষ্ট্র

শ্রমিকদের এমন ক্ষোভ কয়েক দশক দেখেনি যুক্তরাষ্ট্র

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৬

জাপানের একদল গবেষক একটি ফটোক্যাটালিটিক বা আলোক-অনুঘটকের উপাদান ব্যবহার করে নিরাপদে পানি থেকে অতি বিশুদ্ধ হাইড্রোজেন উৎপাদনে সক্ষম হয়েছেন। একটি ফটোক্যাটালিস্ট, সূর্যরশ্মি শোষণের মাধ্যমে পানি থেকে হাইড্রোজেন ও অক্সিজেনের বিভক্ত হওয়ার গতিকে ত্বরান্বিত করে।

জীবাশ্ম জ্বালানির বিপরীতে পোড়ানোর সময় হাইড্রোজেন থেকে কার্বন-ডাই-অক্সাইড গ্যাস নিঃসরিত হয় না। হাইড্রোজেন গ্যাসকে কার্বন-মুক্ত বিশ্ব গড়ার চাবিকাঠি হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়, শিনশু বিশ্ববিদ্যালয় এবং অন্যান্য বিভিন্ন সংস্থার গবেষকরা বাইরে স্থাপিত ১০০ বর্গমিটার আয়তনের সৌর প্যানেল চুল্লিতে একটি ফটোক্যাটালিটিক উপাদান ব্যবহার করে পানি থেকে হাইড্রোজেন উৎপাদনের গবেষণা চালান।

গবেষক দলটি বলছে, তারা ৯৪ শতাংশ বিশুদ্ধতায় উৎপাদিত হাইড্রোজেনের ৭০ শতাংশের বেশি নিরাপদে পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন।

দলটি বলছে, হাইড্রোজেনকে আরও কার্যকরভাবে বের করে আনতে সক্ষম এমন একটি নতুন উপাদানের উন্নয়নই হবে এই প্রযুক্তিকে ব্যবহার উপযোগী করার পরবর্তী ধাপ। সূত্র: এনএইচকে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩৭

লেবাননের পার্লামেন্টে হিজবুল্লাহ সমর্থিত সংসদীয় দলের প্রধান মুহাম্মাদ রায়াদ বলেছেন, বৃহস্পতিবারের বিক্ষোভে যারা গুলি চালিয়েছে তারা শাস্তি পাবে। তবে আমরা দেশে গৃহযুদ্ধ হতে দেবো না। ষড়যন্ত্রকারীরা সফল হবে না। পাশাপাশি সেদিন যারা শহীদ হয়েছেন তাদের রক্ত বৃথা যেতে দেবো না। বৈরুতে এক অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

রায়াদ বলেন, বিক্ষোভকারীদের হত্যার বিচারের বিষয়ে সরকার কী করছে তা আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। ঘাতকদের চিহ্নিত করে তাদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সরকারের পদক্ষেপের জন্য অপেক্ষা করবো। আমাদের শহীদদের রক্তকে ভুলে যাবো না।

বৈরুতে বিস্ফোরণের বিষয়ে তিনি বলেন, একদল ব্যক্তি বিস্ফোরণ সংক্রান্ত সত্য ফাঁস হতে দিতে চায় না। তারা কাদেরকে ভয় পাচ্ছে? তবে সত্য প্রকাশ হবেই।

গত বৃহস্পতিবার বৈরুতে আদালতের সামনে বিক্ষোভের ডাক দেয় হিজবুল্লাহ ও আমাল মুভমেন্ট। কিন্তু শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে একদল অস্ত্রধারী গুলি চালায়। এতে সাত জন নিহত এবং ৬০ জন আহত হয়।

গত বছর বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনার তদন্ত থেকে বিচারক তারেক বিতারকে অপসারণের দাবিতে হিজবুল্লাহ ও আমাল মুভমেন্ট ওই বিক্ষোভের ডাক দিয়েছিল। ওই বিচারকের তৎপরতাকে পক্ষপাতদুষ্ট বলে দাবি করেছে এই দুই সংগঠন। বিক্ষোভকারীরা তাকে আমেরিকার দাস হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

গত বছরের ৪ আগস্ট দুই দফায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে লেবাননের রাজধানী বৈরুত। এতে দুই শতাধিক মানুষ নিহত হন। ওই বিস্ফোরণের তদন্তে পক্ষপাতিত্ব করা হচ্ছে বলে বিচারক তারেক বিতারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে দেশটির ইরান সমর্থিত শিয়াপন্থী সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। সূত্র: পার্স টুডে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

শিয়া মসজিদগুলোতে হামলার হুমকি দিলো আইএস

শিয়া মসজিদগুলোতে হামলার হুমকি দিলো আইএস

চীনা হুমকি, দ্রুত মার্কিন এফ-১৬ যুদ্ধবিমান চায় তাইওয়ান

চীনা হুমকি, দ্রুত মার্কিন এফ-১৬ যুদ্ধবিমান চায় তাইওয়ান

ভারতের কাছে ৫০ কোটি ডলার ঋণ চাইলো শ্রীলঙ্কা

ভারতের কাছে ৫০ কোটি ডলার ঋণ চাইলো শ্রীলঙ্কা

আসিয়ান সম্মেলনে বাদ পড়ায় ‘চরম হতাশ’ মিয়ানমার জান্তা

আসিয়ান সম্মেলনে বাদ পড়ায় ‘চরম হতাশ’ মিয়ানমার জান্তা

করোনাবিধি শিথিল, আগের রূপে ফিরলো মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববী

করোনাবিধি শিথিল, আগের রূপে ফিরলো মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববী

সর্বশেষ

এবার মরুর বুকে ক্ষত-বিক্ষত মাহমুদউল্লাহরা

এবার মরুর বুকে ক্ষত-বিক্ষত মাহমুদউল্লাহরা

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত: এনডিটিভি

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত: এনডিটিভি

গিটার সঙ্গী স্বপনের স্মৃতিতে আইয়ুব বাচ্চু

গিটার সঙ্গী স্বপনের স্মৃতিতে আইয়ুব বাচ্চু

‘রাসেল নামটি শুনলেই যে ছবি সামনে ভেসে আসে...’

‘রাসেল নামটি শুনলেই যে ছবি সামনে ভেসে আসে...’

প্রথমবার জাতীয়ভাবে ‘শেখ রাসেল দিবস’ পালিত হচ্ছে আজ

প্রথমবার জাতীয়ভাবে ‘শেখ রাসেল দিবস’ পালিত হচ্ছে আজ

© 2021 Bangla Tribune